মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শনিবার, ১২ জানুয়ারী ২০১৩, ২৯ পৌষ ১৪১৯
প্রতিবন্ধী ছাত্রী রহিমার অদম্য ইচ্ছা লেখাপড়ার
শিক্ষাকে আসল হাতিয়ার হিসেবে ধরে নিয়ে জীবনযুদ্ধ করে যাচ্ছে প্রতিবন্ধী রহিমা। অত্যন্ত ত্যাগ, তিতিক্ষা ও পরিশ্রম করে পড়ালেখা করছে নিয়মিত বিদ্যালয়ে এসে। জেলার উখিয়া হলদিয়ার দিনমজুর কবির আহমদের মেয়ে রহিমা জন্ম থেকেই প্রতিবন্ধী। স্থানীয় সাবেক রুমখাঁ পালং প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ২০০৮ সালে ৫ম শ্রেণীর সমাপনী পরীক্ষায় প্রথম গ্রেডে উত্তীর্ণ হওয়ার পর স্থানীয় বিত্তবানদের সহযোগিতায় মরিচ্যার মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হয়। প্রতিবছর বার্ষিক পরীক্ষায় ভাল ফলসহ সর্বশেষ গত ২০১১ সালে জেএসসি পরীক্ষায় সকল বিষয়ে উত্তীর্ণ হয়। বর্তমানে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বাণিজ্য বিভাগের নবম শ্রেণী থেকে বার্ষিক পরীক্ষা শেষে দশম মানে উঠবে। সম্প্রতি বিদ্যালয় ছুটির পর প্রতিবন্ধী রহিমা আক্তার (১৫) জনকণ্ঠকে জানায়, বাবা দিনমজুর, স্কুলে যেতে নিয়মিত গাড়ি ভাড়া দিতে পারেন না। অনেক সময় ৪ কিলোমিটার পথ হেঁটে বিদ্যালয়ে আসি। জন্মের পর থেকে আমার পা দুটি অক্ষম।
লাঠিতে ভর করে হাঁটতে হয়। যদি একটা হুইল চেয়ার থাকত, তাহলে বিদ্যালয়ে আসতে কোন সমস্যা হতো না আমার। সমাজসেবা থেকে প্রতিবন্ধী ভাতা পেয়ে থাকে বলে জানায় রহিমা। বাবা কবির আহমদ বলেন, এমনিতে দরিদ্র মানুষ, সৃষ্টিকর্তার রহমতÑকেন জানি আমার মেয়েকে প্রতিবন্ধী করল। তাতেও শুকরিয়া আল্লাহর কাছে। আমার মেয়ের পড়ালেখার তীব্র ইচ্ছা রয়েছে। আর্থিক অভাবে মেয়েকে একটি হুইল চেয়ার কিনে দিতে পারছি না। যদি বিত্তবান ব্যক্তিরা আমার মেয়েকে একটু সহযোগিতা করেন, অবশ্যই পঙ্গু মেয়েটি উচ্চ শিক্ষার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছবে বলে আশা করছি।

Ñএইচএম এরশাদ, কক্সবাজার