মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
রবিবার, ২২ ডিসেম্বর ২০১৩, ৮ পৌষ ১৪২০
এশিয়া ডিবেট একাডেমির যাত্রা শুরু
মহান বিজয় দিবসে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করল এশিয়া ডিবেট একাডেমি। ওয়ার্ল্ড ডিবেট ইনস্টিটিউটের সহযোগিতায় ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও ক্যামব্রিয়ার এডুকেশন গ্রুপ এই অনুষ্ঠান আয়োজন করে। একাডেমির পৃষ্ঠপোষকতা করছে ইউনাইটেড গ্রুপ। দ্বিতীয় দিনের বিতর্ক প্রশিক্ষণসহ কর্মশালাগুলো ক্যমব্রিয়ান স্কুল এ্যান্ড কলেজে অনুষ্ঠিত হয়। দ্বিতীয় দিনের শুরুতে ছাত্রছাত্রীদের সামনে বক্তব্য রাখেন ক্যমব্রিয়ান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লায়ন এমকে বাশার পিএমজেএফ, এশিয়া ডিবেট একাডেমির পরিচালক শরীফ উদ্দিন আহমেদ রানা, একাডেমিটির এ্যাডভাইজর সুমন আহমেদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আলফ্রেড স্নাইডার। তাঁর বক্তব্যে তিনি পুরোদিনের কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করেন। তিনি বলেন, প্রশিক্ষণগুলোতে বিশ্বমান বজায় রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি আশা করেন এর ফলে বাংলাদেশের তরুণদের মধ্যে সুদূরপ্রসারী প্রভাব ফেলবে। ক্যামব্রিয়ান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লায়ন এমকে বাশার পিএমজএফ তাঁর বক্তব্যে অনেক চেষ্টা ও শ্রমের পর শেষ পর্যন্ত সফলভাবে এশিয়া ডিবেট একাডেমি যাত্রা শুরু করেছে বলে আনন্দ প্রকাশ করেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন তরুণদের মাঝে যুক্তির মাধ্যমে এগিয়ে যাবে সুন্দর বাংলাদেশ নির্মাণের পথে। এশিয়া ডিবেট একাডেমির এ্যাডভাইজর সুমন আহমেদ তাঁর বক্তব্যে বলেন, ছাত্রছাত্রীদের মেধা বিকাশ ও নেতৃত্বগুণ বৃদ্ধিতে এই একাডেমি কাজ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন আজকের তরুণদের আগামীতে দেশের নেতৃত্ব নিতে হবে, তাই তাদের উপযুক্ত করে গড়ে তুলতে এই উদ্যোগটি সফল হবে বলে আশা করেন। এশিয়া ডিবেট একাডেমির পরিচালক শরীফ উদ্দিন আহমেদ রানা তাঁর বক্তব্যে সকলকে ধন্যবাদ জানান ব্যস্ত উদ্বোধনী দিন কাটানোর পর সবার উপস্থিতির জন্য। তিনি বলেন, এখানে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের অভিজ্ঞ এবং অনভিজ্ঞ ছাত্র ছাত্রীরা একত্রিত হয়েছে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন এর মাধ্যমে তারা বাংলা ও ইংরেজী উভয় বিতর্কে এবং নেতৃত্বের ক্ষেত্রে এগিয়ে যাবে।
সকাল ১০টায় দিনের কার্যক্রম শুরু হয়। দিনের শুরুতে পাঁচ ভাগে বিভক্ত করে প্রশিক্ষণগুলো শুরু হয়। স্কুলের ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অনভিজ্ঞ ছাত্রছাত্রীদের জন্য ইংরেজী পাবলিক স্পিকিং প্রশিক্ষণ, বাংলা পাবলিক স্পিকিং কর্মশালা, অভিজ্ঞ বিতার্কিকদের জন্য কর্মশালা এবং কমিউনিকেশন স্কিলের উন্নতির জন্য কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। তারপর পাবলিক স্পিকিংয়ের অনুশীলন অনুষ্ঠিত হয় সকাল ১১টা থেকে। অনুশীলনগুলোতে অংশগ্রহণ করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে আসা বিতার্কিকরা। দিনের দ্বিতীয় ভাগে বিতার্কিকদের জন্য নির্দেশনামূলক একটি সেশন করা হয়। তারপরে বিতর্কের মোশন নিয়ে আলোচনা করা হয়। এবং সর্বশেষে পাঁচ মিনিট স্পিচের বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়। পুরো আয়োজনে প্রায় ৩৫০ শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে। তারা সারাদিন প্রশিক্ষণ কার্যক্রম ও অনুশীলন মূলক বিতর্কগুলোতে অংশগ্রহণ করে। দিন শেষে তাদের অনুভূতি ছিল অসাধারণ। তারা আশা করছে এই পুরো সপ্তাহের প্রশিক্ষণ কর্মসূচিটি তাদের ভবিষ্যত গঠনে ভূমিকা পালন করবে। এখানে আসার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলে বিতর্কের মাধ্যমে নিজের নেতৃত্ব গুণ বিকশিত করাই তাদের লক্ষ্য আর এই কাজে এশিয়া ডিবেট একাডেমি সহযোগিতা অনেক সুদূরপ্রসারী ভূমিকা পালন করবে।

নজরুল ইসলাম