মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ১ ডিসেম্বর ২০১৪, ১৭ অগ্রহায়ন ১৪২১
মাদকাশক্তির প্রথম ধাপ কোমলপানীয়
ঈদ-পুজা-পার্বণ, বিয়ের অনুষ্ঠান, বন্ধুদের আড্ডাসহ যে কোন উৎসবে ঠাণ্ডা খাওয়ার নামে কোক, পেপসি, সেভেন-আপ না থাকলেই যেন নয়। তবে এর নানা কুফলও আছে
একটা সময় এমন হতো যে, কারোর সঙ্গে দেখা হলে। নতুন কোন মেহমান এলো, বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হলো তারপর বলতাম ভাই ওই কোম্পানির এক লিটার সফট ড্রিঙ্কস দেন। সিগারেট আর কোমলপানীয় একসঙ্গে খেতাম। তখন বুঝিনি যে এই কোমলপানীয় ভয়াবহতার কথা। গত মাসের মাঝামাঝি সময়ে হঠাৎই অফিসে অসুস্থ হয়ে পড়ি। পরে সহকর্মীদের সাহায্যে হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর আমার একটি কিডনি ফেইলিউর ধরা পড়ে তারপরই আমার মনে পড়ে সেই বিষসমেত প্রিয় কোমলপানীয়র কথা। বলছিলেন একটি বহুজাতিক কোম্পানিতে কর্মরত সোহেল আরমান।
সোহেল আরমানের মতো হাজারো তরুণ-তরুণী পরিবারের ছোট বড় অনেকেই কোমলপানীয়র আসক্তিতে নিমজ্জিত। অনেকে আবার সখের বসত তার দু’তিন বছরের সন্তানের মুখে তুলে দিচ্ছেন এই বিষসমেত সফট্ ড্রিঙ্কস বা কোমলপানীয়।
ঈদ-পুজো-পার্বণ, বিয়ের অনুষ্ঠান, বন্ধুদের আড্ডাসহ যে কোন উৎসবে ঠাণ্ডা খাওয়ার নামে কোক, পেপসি, সেভেন-আপ না থাকলেই যেন সাধামাটা। অনেকে আবার এক্ষেত্রে বাজি ধরাধরিও করে থাকেন। সর্বোচ্চসংখ্যক বোতল কোমলপানীয় খাওয়ার গৌরব আনন্দে উৎবেলিত হতে থাকেন। কিন্তু তিনি তাঁর স্বাস্থ্যের ব্যাপারে একেবারেই বেখেয়াল।
সাধারণত কোমলপানীয় আঠালো রং এবং মিথিলাই মিডাজল যা প্রাণীদেহে ক্যান্সার সৃষ্টি করে। যেখানে ১৫ মাইক্রোগ্রাম মিথিলই মিডাজল প্রতিদিন গ্রহণে ক্যান্সারের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়ায়। এছাড়া যকৃতে বেশি পরিমাণ গ্লুকোজ জমা হয় যা শরীরকে অতিরিক্ত মেদবহুল করে ফেলে।
সফট ড্রিঙ্কসের পর এখন বাজার সয়লাব হয়ে গেছে নানা নামের এনার্জি ড্রিঙ্কসে। টেলিভিশনের পর্দায় প্রিয় তারকার পাওয়ার বা প্রিয় শিল্পীর জিঙ্গেল শুনে ছেলে বুড়ো নির্বিশেষে সবারই তা খেতে মন চায়। একটু কারণেই মনে হয় আচ্ছা নিজেকে একটু ঠা-া করি। আসলে ঠা-ার নামে যে ওই ব্যক্তি তার নিজের জীবনকে ঠা-া করার ব্যবস্থা করছেন। তা কিন্তু তিনি কিছুদিন পর টের পাবেন।
এনার্জি ড্রিঙ্কসের অনেক ক্ষতিকর কারণের মধ্যে আরেকটি হচ্ছে সন্তান ধারণে জটিলতা। যেসব নারী বা পরুষ এনার্জি ড্রিঙ্কসে আসক্ত তাদের সন্তান জন্মদানের ক্ষমতা হ্রাস পায় এবং গর্বপাতের ঝুঁকি বাড়ে। এছাড়া দুর্বল শিশু বা সময়ের আগেই বাচ্চা হয়ে যাওয়ার প্রবণতাও দেখা দিতে পারে।
এখন আপনি সিদ্ধান্ত নিন বর্তমানের সামান্য আনন্দের জন্য কোমলপানীয় খাবেন নাকি সারা জীবন সুস্থতার সঙ্গে বেঁচে থাকবেন। ওষুধ আর ডাক্তারের পেছনে টাকা না দিয়ে কোমলপানীয় বর্জন করুন প্রথমে।
নজরুল হোসেন
মডেল : মিমো