মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
মঙ্গলবার, ৮ অক্টোবর ২০১৩, ২৩ আশ্বিন ১৪২০
ছবিতে আমার চরিত্রটি চরিত্রহীন ছিল -শাহেদ আলী
সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে অমিত আশরাফ পরিচালিত চলচ্চিত্র ‘উধাও’। ছবিটি এখন পর্যন্ত সাতটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছে। এ ছবিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাহেদ আলী। ছবিটি নিয়ে টেলিফোনে আলাপন বিভাগে কথা হয় তাঁর সঙ্গে

‘উধাও’ ছবিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন...
শাহেদ আলী : অভিজ্ঞতা তো আছেই, এছাড়া দর্শকদের ওপরও কিছুটা অভিজ্ঞতার দায়ভার আছে। আমি সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি আমার চরিত্রটাকে ফুটিয়ে তুলতে। এখন দর্শক যদি ছবিটি দেখে আমাকে প্রণোদনা দেয়, তাহলে অভিজ্ঞার পরিম-ল আর বাড়বে।
ছবিতে আপনার চরিত্রটি কেমন...
শাহেদ আলী : ছবিতে আমার চরিত্রটি চরিত্রহীন ছিল। আমি একজন স্কুল ভ্যান চালক। আমার নাম বাবু। শহরের একজন ধনী ও প্রভাবশালী ব্যক্তিকে অপহরণের বিষয়কে নিয়েই ছবিটির গল্প। আমার ভয় ছিল, চরিত্রটাকে ঠিক রূপ দিতে পারব কি না। একটা চ্যালেঞ্জিং ডিরেকশনও ছিল। সব মিলিয়ে স্ক্রিনে দেখে মোটামুটি পাস পেয়েছি বলে মনে হচ্ছে।
একজন দর্শক হিসেবে ছবিটি কেমন মনে হয়েছে...
শাহেদ আলী : প্রশ্নটা অত্যন্ত কঠিন। আমি বিভিন্ন হলে গিয়ে এবং লোকমুখে শুনে অবাক হয়েছি। আমি ভাবতেই পারিনি দর্শক এভাবে রিএ্যাক্ট করবে। আমি তাদের সঙ্গে তাল মেলাতে বাধ্য হয়েছি।
এছাড়া আর কোন্ কোন্ ছবিতে অভিনয় করছেন?
শাহেদ আলী : আমি আকরাম খানের ‘খাঁচা’ ছবিতে অভিনয় করেছি। ভারতের নির্মাতা গৌতম ঘোষের একটি ছবিতে কাজ করার কথা চলছে। এর আগে গৌতম ঘোষের ‘মনের মানুষ’ ছবিতে আমি লালনের মুরিদের চরিত্রে অভিনয় করেছি। এছাড়া এন রাশেদ চৌধুরীর একটি ছবিতে কাজ করব।
ঈদের ও ধারাবাহিক নাটকের ব্যস্ততা কেমন?
শাহেদ আলী : এবার ঈদের নাটকে তেমন কাজ করছি না। সাগর জাহানের ‘সিকান্দার বক্স’ এবং অরণ্য আনোয়ায়ের ‘অপেক্ষার সুরঞ্জনা’ নাটকে অভিনয় করেছি। এছাড়া গিয়াস উদ্দিন সেলিমের একটি নাটক ও অনন্য ইমনের একটি নাটকে কাজ করছি। ধারাবাহিক তো কয়েকটি চ্যানেলে যাচ্ছে। এগুলো হলো- এনটিভিতে আলী ফিদা একরাম তোজোর ‘অঘটনঘটনপটীয়সী’, বাংলা ভিশনে অরণ্য আনোয়ারের ‘কর্তা কাহিনী’, এটিএন বাংলায় মাতিয়া বানু সুকু ও যুবরাজ খানের ‘প্রজ্ঞা পারমিতা’, মাছরাঙায় আতিক জামানের ‘ইউনিভার্সিটি’ ও এসএ টিভিতে রাজু ভাইয়ের ‘চুপ কথা’।
মঞ্চে শাহেদ আলীর খবর বলুন...
শাহেদ আলী : অনেক দিন মঞ্চে উঠতে পারছি না। প্রাচ্যনাটের সঙ্গে আমি যেসব প্রোডাকশনে কাজ করেছি, সেগুলো এখন মঞ্চায়ন হচ্ছে না।
-গৌতম পাণ্ডে