মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ২৯ জুন ২০১১, ১৫ আষাঢ় ১৪১৮
দশম শ্রেণীর পড়াশোনা
সাধারণ বিজ্ঞান
অধ্যায়-৭
জ্বালানী
সৃজনশীল প্রশ্ন
নিচের উদ্দীপকটি পড়ো এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও_
পরিবেশ ও বন সংরৰণ কর্মকর্তা আব্দুস সালাম একটি গ্রামে এক সচেতনমূলক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করলেন। উপস্থিত এলাকাবাসীদের উদ্দেশ্যে তিনি বললেন, জ্বালানির চাহিদা মেটাতে আমরা পশুর মলমূত্র, তরিতরকারির উচ্ছিষ্ট অংশ, পচা আবর্জনা ইত্যাদি ব্যবহার করে বায়োগ্যাস পস্নান্টের সাহায্যে রান্নাবান্নার প্রয়োজনীয় গ্যাস পেতে পারি, আলো জ্বালাতে পারি এবং পাখাও চালাতে পারি অর্থাৎ বায়োগ্যাস প্রযুক্তি আমাদের শহুরে ও গ্রামীণ জীবনে পার্থক্য কমিয়ে দেয়। তিনি একটি স্থির ডোম বায়োগ্যাস পস্নান্টের চিত্র অংকন করে এতে বায়োগ্যাস উৎপাদনের কৌশল বুঝিয়ে দেন।
ক. বায়োগ্যাস কী?
খ. স্থির ডোম বায়োগ্যাস পস্নান্টের কয়েকটি গঠন বৈশিষ্ট্য উলেস্নখ কর।
গ. আব্দুস সালাম সাহেবের অঙ্কিত বায়োগ্যাস পস্নান্টে বায়োগ্যাস উৎপাদন কৌশল বর্ণনা কর।
ঘ. শহুরে ও গ্রামীণ জীবনের পার্থক্য কমাতে বায়োগ্যাস ব্যবহারের যথার্থতা মূল্যায়ন কর।
প্রশ্ন ক-এর উত্তর
বায়োগ্যাস : গোবর, মলমূত্র, পাতা, খড়কুটা প্রভৃতি পদার্থ পানিতে মিশিয়ে বাতাসের অনুস্থিতিতে রাখলে এক ধরনের ব্যাক্টেরিয়ার সাহায্যে এর ফারমেন্টেশন (ঋবৎসবহঃধঃরড়হ) বা গাঁজন প্রক্রিয়ায় এক ধরনের বর্ণহীন গ্যাস উৎপন্ন হয়, যা খুবই দাহ্য। এই গ্যাসকে বায়োগ্যাস বলে।
প্রশ্ন খ-এর উত্তর
স্থিরডোম বায়োগ্যাস পস্নান্টের গঠন বৈশিষ্ট্য হলো_
র. এর নির্মাণ খরচ কম ও দীর্ঘস্থায়ী
রর. গম্বুজ তৈরি হয় ইট, বালি ও সিমেন্ট দিয়ে
ররর. সম্পূর্ণ মাটির নিচে থাকে।
প্রশ্ন গ-এর উত্তর
আব্দুস সালাম একটি স্থির ডোম বায়োগ্যাস পস্ন্যান্টের চিত্র এঁকে এলাকাবাসীকে এর সুবিধা ও উৎপাদন পদ্ধতি বুঝিয়ে দেন। কৌশল দেখানো হলো :
একটি স্থির ডোম বায়োগ্যাস পস্নান্টের সমগ্র অংশ ইট, বালি ও সিমেন্ট দিয়ে তৈরি হয়। নিচের চিত্রে একটি স্থির ডোম বায়োগ্যাস পস্নান্টের বিভিন্ন অংশ দেখানো হল এবং ধারাবাহিকভাবে উৎপাদন কৌশল উপস্থাপন করা হলো_

র. স্থির ডোম বায়োগ্যাস পস্নান্টে বায়োগ্যাস উৎপাদন করার জন্য পস্নান্টটি চালু করার সময় ১.৫-২ টন কাঁচামাল যেমন_ হাঁস-মুরগির মল, মানুষের মল জাতীয় পচনশীল পদার্থের প্রয়োজন। প্রথমে এই কাঁচামাল এবং পরিষ্কার পানি গোবরের ৰেত্রে ১ : ১ অনুপাতে মিশিয়ে প্রবেশ নল দিয়ে আসত্মে আসত্মে কুয়ায় ঢালব। এ সময় লৰ রাখব যেন মাটির ঢেলা, পাথর, বালি, রড আকারেরা খড়কুটা ঢুকে না পড়ে।
রর. পস্নান্ট সম্পূর্ণ ভর্তি না হলে পানি দিয়ে বাকি অংশ ভর্তি করে দেব। কুয়া থেকে এসব পদার্থ ডাইজেস্টার বা কোমলায়ন যন্ত্রে যায়।
ররর. কোমলায়ন যন্ত্রে প্রবিষ্ট পদার্থ বায়ুুর অনুপস্থিতিতে পচে বায়োগ্যাস উৎপন্ন হবে এবং অবশিষ্ট অংশ ডানদিকের হাইড্রোলিক চেম্বারে যায়। এ রেসিডিউ মূল্যবান জৈব সার হিসেবেও ব্যবহার করতে পারি।
রা. সবশেষে উৎপন্ন বায়োগ্যাস গ্যাস চেম্বার থেকে ডোমের উপরের অংশে স্থাপিত গ্যাস ভাল্ব যুক্ত পিভিসি বা জিআই পাইপের সাহয্যে সরবরাহ করব।
প্রশ্ন ঘ-এর উত্তর
শহর ও গ্রামীণ জীবনে জ্বালানির ব্যবহার পার্থক্য হলো শহরের মানুষ গ্যাস ব্যবহার করে, ফলে কাঠ বা গাছপালা ধ্বংস হয় না। অপরদিকে গ্রামীণ জীবনে জ্বালানী হিসেবে গাছপালা ব্যবহার করা হয়, ফলে পরিবেশের ৰতি হয়।
শহরের মানুষের প্রধান জ্বালানিগুলো হলো গ্যাস, বিদু্যৎ, তেল। এৰেত্রে পরিবেশ দূষণ কম হয় এবং এগুলো ঝামেলামুক্ত। ফলে জীবনযাত্রার মান উন্নত হয় এবং সময় ও অর্থ সাশ্রয় হয়।
উদ্দীপকে বায়োগ্যাস উৎপাদনের মাধ্যমে গ্রামীণ এলাকায় গ্যাস প্রযুক্তি আনা সম্ভব। ফলে খরচ কমবে, পরিবেশ দূষণ কমবে, ঝামেলা কমবে। সেখানে শহরে এলাকার মতোই জ্বালানি ব্যবহৃত হবে জীবনযাত্রার মান ভাল হবে।
তাই বলা যায় বায়োগ্যাস শহরের ও গ্রামীণ জীবনের মানের পার্থক্য কমাতে পারে।
উত্তর নির্দেশনা : উপরোক্ত উদ্দীপকটি বায়োগ্যাস প্রকল্প সম্পর্কিত তথ্যের ওপর ভিত্তি করে রচনা করা হয়েছে। গ্যাস উৎপাদনের জন্যে বায়োগ্যাস পস্নান্টের প্রকারভেদ, গ্যাস উৎপাদন এবং আমাদের দৈনন্দিন জীবনে এর গুরম্নত্ব সম্পর্কিত তথ্য ভালোমত পড়া থাকলে এরূপ আরও প্রশ্নের উত্তর দেওয়া যাবে।
বহু নির্বাচনী প্রশ্ন
পূর্ব প্রকাশের পর
২১। বায়োগ্যাসে মিথেন গ্যাসের পরিমাণ কত?
্ত) ৬০-৭০ খ) ৫০-৬০
গ) ৬০-৯০ ঘ) ৭০-৮০
২২। কোনটি সত্য?
ক) বায়োগ্যাসে শতকরা ৫০-৬০ ভাগ মিথেন গ্যাস
্ত) বায়োগ্যাসে শতকরা ৬০-৭০ ভাগ মিথেন গ্যাস
গ) বায়োগ্যাসে শতকরা ৬৫-৭০ ভাগ মিথেন গ্যাস
ঘ) বায়োগ্যাসে শতকরা ৫৫-৬০ ভাগ মিথেন গ্যাস
২৩। আমাদের দেশের মানুষের মলমূত্র থেকে বছরে কতটুকু বায়োগ্যাস উৎপাদন সম্ভব?
্ত) ১.০৩ ঢ ১০৯ ঘন মিটার খ) ১.০৪ ঢ ১০১০ ঘন মিটার
গ) ১ ঢ ১০৯ ঘন মিটার ঘ) ২.০৩ ঢ ১০৯ ঘন মিটার
২৪। জীবাশ্ম জ্বালানি বলতে কোনটি বোঝায়?
্ত) কয়লা ও খনিজ তেল খ) কাঠ কয়লা ও পাটখড়ি
গ) ফলম্যালডিহাইড ঘ) ফরমাইকা
২৫। প্রাকৃতিক গ্যাসের সাধারণ সংকেত কী?
্ত) ঈহঐ২হ + ২ খ) ঈ২হঐ২হ + ২
গ) ঈহঐ২হ + ১ ঘ) ঈ২হঐহ + ২
২৬। খনিজ গ্যাস একটি কার্বন যৌগ। এটি_।
্ত) মিথেন খ) কার্বন ডাই-অঙ্াইড
গ) প্রোপেন ঘ) কেরোসিন
২৭। নিচের তথ্যসমূহ লৰ্য কর_
র. কয়লা জীবাশ্ম জালানি
রর. সমুদ্রস্রোত নবায়নযোগ্য জ্বালানি
ররর. প্রাকৃতিক গ্যাস নবায়নযোগ্য জ্বালানি
নিচের কোনটি সঠিক?
্ত) র ও রর খ) র ও ররর
গ) রর ও ররর ঘ) র, রর ও ররর
২৮। বায়োগ্যাসের সুবিধা হচ্ছে_
র. পরিচ্ছন্ন জ্বালানি
রর. উন্নতমানের জৈব সার পাওয়া যায়
ররর. দূষণমুক্ত পরিবেশের সহায়ক
নিচের কোনটি সঠিক?
ক) র ও রর খ) র ও ররর
গ) রর ও রর ্ত) র, রর ও ররর
২৯। নাইলন প্রস্তুত হয়_
র. খনিজ তের হতে
রর. প্রাকৃতিক গ্যাস হতে
ররর. ডিজেল হতে
নিচের কোনটি সঠিক?
্ত) র খ) র ও ররর
গ) রর ও রর ঘ) র, রর ও ররর
ন্ধ নিচের অংশটুকু পড় এবং ৩০-৩২নং প্রশ্নের উত্তর দাও
ভাসমান গম্বুজ জৈব গ্যাস কারখানার গুরম্নত্বপূর্ণ অংশে গাঁজন প্রক্রিয়া ঘটে। এ কারখানার কাঁচামাল হিসেবে কচুরিপানা, আবর্জনা, বিভিন্ন প্রাণীর মলমূত্র ব্যবহৃত হয়।
৩০। গাঁজন প্রক্রিয়া কোথায় ঘটে?
ক) গ্যাস হোল্ডারে ্ত) ডাইজেস্টারে
গ) প্রবেশ কুয়ায় ঘ) একটিও না
৩১। কোথায় গ্যাস জমা থাকে?
ক) প্রবেশ কুয়ায় খ) ডাইজেস্টারে
্ত) গ্যাস হোল্ডারে ঘ) সবগুলো সত্য
৩২। গ্যাস হোল্ডার_
র. পস্নাস্টিকের তৈরি
রর. ধাতুর তৈরি
ররর. বাঁশের তৈরি
নিচের কোনটি সঠিক?
ক) র ও রর খ) রর ও ররর
্ত) রর ঘ) র, রর ও ররর

সামাজিক বিজ্ঞান

অধ্যায় : ৪
পৌরনীতি-নাগরিকত্ব
সৃজনশীল প্রশ্ন
নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
জোয়ান সেন্ডি অস্ট্রেলিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। পরবতর্ীতে ২০০৩ সালে একটি উন্নয়ন প্রকল্পের পরামর্শক হিসাবে চাকরি নিয়ে বাংলাদেশে আসেন। ঘটনাচক্রে বাংলাদেশকে ভাল লাগায় এ দেশের নাগরিকত্ব লাভ করেন। একদিন তিনি অফিস থেকে বনানীস্থ বাসার উদ্দেশে আসার পথে মতিঝিলে ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন। ছিনতাইকারীরা তাকে অস্ত্রের মুখে নগদ ৫০০ ডলার, একটি ঘড়ি এবং একটি স্বর্ণের চেইন নিয়ে পালিয়ে যায়। তিনি এ ব্যাপারে আইন-শৃঙ্খলা রৰার কাজে নিয়োজিত স্থানীয় কর্তৃপৰকে অবহিত না করে সরাসরি বাসায় চলে যান।
প্রশ্ন :
ক) জোয়ান সেন্ডি কোন সূত্রে বাংলাদেশের নাগরিক?
খ) একজন নাগরিকের আইনগত অধিকারের ব্যাখ্যা কর।
গ) আইনগত অধিকার লাভে জোয়ান সেন্ডির কী করা উচিত ছিল?
ঘ) 'একজন নাগরিকের আইনগত অধিকার ভোগ করার জন্য কিছু নাগরিক দায়িত্ব পালন করতে হয়।'_উক্তিটি বিশেস্নষণ কর।
উত্তর :
ক) জোয়ান সেন্ডি যে সূত্রে বাংলাদেশের নাগরিক : জোয়ান সেন্ডি অনুমোদন সূত্রে বাংলাদেশের নাগরিক।
খ) একজন নাগরিকের আইনগত অধিকার : রাষ্ট্র কর্তৃক সৃষ্ট ও অনুমোদিত অধিকারকে আইনগত অধিকার বলে। যেমন-সম্পত্তির অধিকার। এই অধিকার ভঙ্গ হলে অধিকার ভঙ্গকারীকে শাসত্মি দেয়া হয়। পৌরবিজ্ঞান আইনগত অধিকার নিয়েই আলোচনা করে। সামাজিক অধিকার ও রাজনৈতিক অধিকার হচ্ছে আইনগত অধিকার। যেসব অধিকার সমাজে নাগরিকদের সভ্য ও উন্নত জীবনযাপনে সাহায্য করে এবং যেসব অধিকার জীবন রৰা ও নিরাপত্তার জন্য অপরিহার্য সেসব অধিকারকে সামাজিক অধিকার বলে। যেমন-জীবন রৰার অধিকার, চলাফেরার অধিকার ইত্যাদি। আর যেসব সুযোগ-সুবিধা দ্বারা ব্যক্তি সক্রিয়ভাবে রাষ্ট্রের শাসনকার্য পরিচালনায় অংশগ্রহণ করতে পারে, সেগুলোকে রাজনৈতিক অধিকার বলে। যেমন-বসবাসের অধিকার, নির্বাচনের অধিকার ইত্যাদি।
গ) আইনগত অধিকার লাভে জোয়ান সেন্ডির যা করা উচিত ছিল : জীবনের নিরাপত্তার অধিকারই হচ্ছে জীবন রৰার অধিকার। জীবনের নিরাপত্তা না থাকলে অন্য সব অধিকারই অর্থহীন হয়ে দাঁড়ায়। নাগরিকের জীবনের নিরাপত্তা রৰা করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। সকল নাগরিকের রাষ্ট্রের সর্বত্র অবাধে চলাফেরার অধিকার আছে। কাজেই চলাফেরার নিরাপত্তা ও নিশ্চয়তার স্বার্থে জোয়ান সেন্ডির আইন-শৃঙ্খলা রৰার কাজে নিয়োজিত স্থানীয় কর্তৃপৰকে অবহিত করা উচিত ছিল।
ঘ) আলোচ্য উক্তিটির বিশেস্নষণ : একজন নাগরিকের আইনগত অধিকার ভোগ করার জন্য কিছু নাগরিক দায়িত্ব পালন করতে হয় যাকে নাগরিক কর্তব্য বলে। নিম্নে বিষয়টি বিশেস্নষণ করা হলো :
১. রাষ্ট্রের প্রতি আনুগত্য : নাগরিক হিসেবে আমাদের প্রথম কর্তব্য রাষ্ট্রের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করা। আনুগত্য বলতে রাষ্ট্রের প্রতি অনুগত থাকা বোঝায়। দেশ রৰার জন্য সেনাবাহিনীতে যোগদান করা ও যুদ্ধ করা নাগরিকের দায়িত্ব। আনুগত্য রাষ্ট্রের স্বাধীনতা রৰা ও উন্নতির জন্য অত্যাবশক।
২. আইন মান্য করা : রাষ্ট্রের প্রচলিত সমসত্ম আইন মেনে চলা নাগরিকের আরেকটি গুরম্নত্বপূর্ণ দায়িত্ব। রাষ্ট্রে শানত্মি-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা রৰার্থে সকলকে আইন মেনে চলতে হবে।
৩. সততার সাথে ভোটদান : ভোটদানের মাধ্যমে নাগরিকগণ রাষ্ট্রের শাসনকার্যে অংশগ্রহণ করে। সততার সাথে উপযুক্ত ব্যক্তিকে ভোট দিয়ে নির্বাচন না করলে সরকার দুর্বল ও অযোগ্য হবে।
৪. কর প্রদান করা : রাষ্ট্রের শাসনকার্য পরিচালনা, প্রতিরৰা ও উন্নয়নমূলক কার্য সম্পাদনের জন্য অর্থের প্রয়োজন। নিয়মিত কর প্রদান না করলে অর্থাভাবে সরকারের কর্মকা- ব্যাহত হবে।
৫. সরকারি কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করা : এটি আরেকটি উলেস্নখযোগ্য কর্তব্য। নাগরিকদের সুষ্ঠু কাজকর্মের উপর সরকারের সফলতা, উন্নতি ও অগ্রগতি নির্ভর করে।
৬. সনত্মানের শিৰাদান : সনত্মানদের উপযুক্ত শিৰা দিয়ে সুনাগরিক করে গড়ে তোলা আরেক নাগরিক কর্তব্য। গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার সফলতা নির্ভর করে সুশিৰিত নাগরিকের উপর।
সবশেষে বলা যায়, আলোচ্য কর্তব্যসমূহ রাষ্ট্রের নাগরিকেরা যদি যথাযথভাবে পালন করে তাহলে রাষ্ট্র সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পরিচালিত হবে।
নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
যেসব অধিকার সমাজে নাগরিকদের সভ্য ও উন্নত জীবনযাপনে সাহায্য করে এবং যে সব অধিকার জীবন রৰা ও নিরাপত্তার জন্য অপরিহার্য যেসব অধিকারকে সামাজিক অধিকার বলে। এসব অধিকার ব্যক্তির ব্যক্তিত্ব, মানবিক গুণ বিকাশে সাহায্য করে। এগুলো ব্যতীত মানুষের পৰে উন্নত সামাজিক জীবনযাপন সম্ভব নয়।
প্রশ্ন
ক) নাগরিক অধিকার প্রধানত কত প্রকার ও কী কী?
খ) নাগরিক অধিকার বলতে কী বোঝায়?
গ) নাগরিকের রাজনৈতিক অধিকারসমূহ ব্যাখ্যা কর।
ঘ) "সামাজিক অধিকার ব্যতিরেকে উন্নত সামাজিক জীবন সম্ভব নয়।" উক্তিটির আলোকে সামাজিক অধিকারগুলো বিশেস্নষণ কর।
উত্তর :
ক) নাগরিক অধিকারের প্রকারভেদ : নাগরিক অধিকারকে প্রকৃতির ওপর ভিত্তি করে প্রথমে দুভাগে ভাগ করা যায়। যথা-র. নৈতিক অধিকার রর. আইনগত অধিকার। আইনগত অধিকারের সঙ্গে সংশিস্নষ্ট অধিকারগুলো হলো_সামাজিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক, ধমর্ীয় ও ব্যক্তিগত অধিকার।
খ) নাগরিক অধিকার : অধিকার বলতে কোনো কিছু করা বা না করার ৰমতাকে বোঝায়। কিন্তু পৌরনীতিতে অবাধ অধিকার সমর্থনযোগ্য নয়। নাগরিক হিসেবে বাস করলে রাষ্ট্র বা সরকার যেসব সুযোগ-সুবিধা প্রদান করে তাকে নাগরিক অধিকার বলে। নাগরিক অধিকার সম্পর্কে অধ্যাপক লাস্কি বলেন, "অধিকার হচ্ছে সমাজ জীবনের সে সকল সুযোগ-সুবিধা যা ব্যতীত ব্যক্তি তার ব্যক্তিত্বের বিকাশ সাধনে সৰম হয় না।" টি.এইচ. গ্রিন বলেছেন, "অধিকার হচ্ছে সে সকল বাহ্যিক অবস্থা যা মানুষের মানবিক উন্নতি সাধন করে।" বোসাংকের মতে, "অধিকার হলো সমাজ কর্তৃক স্বীকৃত ও রাষ্ট্রকর্তৃক প্রযুক্ত দাবি।" অধ্যাপক হল্যান্ড বলেন, "অধিকার হচ্ছে কোনো ব্যক্তির সে ৰমতা যা দ্বারা সে রাষ্ট্রের সম্মতি ও সাহায্য বলে অপরের কাজ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।" সুতরাং অধিকার বলতে রাষ্ট্র কর্তৃক স্বীকৃত কতকগুলো সুযোগ-সুবিধা বোঝায়, যার সাহায্যে ব্যক্তি তার ব্যক্তিত্বের বিকাশ ও সমাজের কল্যাণ সাধন করে।
গ) নাগরিকের রাজনৈতিক অধিকার : যেসব সুযোগ-সুবিধা দ্বারা ব্যক্তি সক্রিয়ভাবে রাষ্ট্রের শাসনকার্য পরিচালনায় অংশগ্রহণ করতে পারে সেগুলোকে রাজনৈতিক অধিকার বলে। নিচে গুরম্নত্বপূর্ণ কতকগুলো রাজনৈতিক অধিকার ব্যাখ্যা করা হলো :
১. বসবাসের অধিকার : রাষ্ট্রের যে কোনো অংশে অন্য কোনো নাগরিকের অধিকারে হসত্মৰেপ না করে এবং রাষ্ট্রের কোনো ৰতি না করে বসবাস করার অধিকার প্রত্যেক নাগরিকের আছে।
২. নির্বাচনের অধিকার : এ অধিকার দুই রকম। একটি নির্বাচন করার অধিকার ও অন্যটি নির্বাচিত হওয়ার অধিকার।
৩. বিদেশে অবস্থানকালে নিরাপত্তার অধিকার : যখন কোনো নাগরিক বিদেশে থাকে তখন যদি সে কোনো অসুবিধা বা বিপদের সম্মুখীন হয়, তখন সে তার নিজ রাষ্ট্রের নিকট নিরাপত্তা দাবি করতে পারে।
৪. সরকারি চাকরি লাভের অধিকার : প্রত্যেক নাগরিকের নিজ গুণ ও যোগ্যতা অনুযায়ী সরকারি চাকরি পাওয়ার অধিকার আছে। এর মাধ্যমেই নাগরিকরা রাষ্ট্রীয় কাজে অংশগ্রহণ করে থাকে।
৫. আবেদন করার অধিকার : ব্যক্তিস্বাধীনতা রৰা করার অধিকার প্রত্যেক নাগরিকের আছে। গণতান্ত্রিক দেশে নাগরিকের এই অধিকার অন্যায়ভাবে খর্ব করা হলে নাগরিকরা তা প্রতিরোধ করতে পারে।
ঘ) আলোচ্য উক্তিটির আলোকে নাগরিকের সামাজিক অধিকার : যেসব অধিকার সমাজে নাগরিকদের সভ্য ও উন্নত জীবনযাপনে সাহায্য করে এবং যেসব অধিকার জীবন রৰা ও নিরাপত্তার জন্য অপরিহার্য সেসব অধিকারকে সামাজিক অধিকার বলে। এসব অধিকার ব্যক্তির ব্যক্তিত্ব, মানবিক গুণ বিকাশে সাহায্য করে। এগুলো ব্যতীত মানুষের পৰে উন্নত সামাজিক জীবনযাপন সম্ভব নয়। নিম্নে নাগরিকের প্রধান প্রধান সামাজিক অধিকারসমূহ বিশেস্নষণ করা হলো :
১. জীবন রৰার অধিকার : জীবনের নিরাপত্তার অধিকারই হচ্ছে জীবন রৰার অধিকার। খাদ্য, বস্ত্র, শিৰা, বাসস্থান ও চিকিৎসার সুবন্দোবসত্ম করা প্রতিটি রাষ্ট্রের দায়িত্ব।
২. সম্পত্তির অধিকার : সম্পত্তির অধিকার বলতে সম্পত্তি অর্জন করা, সম্পত্তি ভোগ দখল করা ও হসত্মানত্মর করার সুযোগ-সুবিধা বোঝায়। একে অন্যের সম্পত্তি যাতে দখল করতে না পারে তার যথাযথ ব্যবস্থা করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব।
৩. মতপ্রকাশের অধিকার : নাগরিকের মতামত প্রকাশের স্বাধীনতা একটি গুরম্নত্বপূর্ণ অধিকার যা ব্যতীত গণতন্ত্র কার্যকরী হতে পারে না। তবে মতামত রাষ্ট্রবিরোধী নয় বরং যুক্তিসঙ্গত, গঠনমূলক ও জনকল্যাণমূলক হওয়া বাঞ্ছনীয়।
৪. চলাফেরার অধিকার : রাষ্ট্রের অখ-তা বিপন্ন না করে দেশের এক প্রানত্ম থেকে অন্য প্রানত্ম পর্যনত্ম স্বাধীনভাবে চলাচলের সুযোগকে চলাফেরার অধিকার বলে।
৫. সংবাদপত্রের স্বাধীনতা : স্বাধীন ও নিভর্ীকভাবে নিরপেৰ ও বস্তুনিষ্ঠ খবর প্রকাশ করার অধিকারকে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা বলে, যা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে খুবই প্রয়োজনীয় অধিকার।
৬. পরিবার গঠনের অধিকার : পরিবার হচ্ছে সমাজের মূল শক্তি। তাই পরিবার গঠনের অধিকার প্রত্যেক নাগরিককে দেওয়া হয়।
৭. ধমর্ীয় অধিকার : প্রত্যেক ধর্মের ব্যক্তি যাতে তার ধর্ম গ্রহণ, ধমর্ীয় আচার-অনুষ্ঠান পালন ও ধর্ম প্রচার করতে পারে সে জন্য রাষ্ট্রকে নাগরিকদের অধিকার দিতে হবে।
৮. কর্মের অধিকার : নাগরিক তার যোগ্যতা ও দৰতা অনুযায়ী যে কোনো আইনসঙ্গত পেশা গ্রহণ করতে পারে।
৯. স্বাস্থ্য ও শিৰা লাভের অধিকার : জীবন বিকাশের জন্য স্বাস্থ্য ও শিৰা একানত্ম প্রয়োজনীয়। সবাইকে এ সুযোগ দেওয়া রাষ্ট্রের দায়িত্ব।
১০. ভাষার অধিকার : নিজের ভাষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চার অধিকার ভোগ করার ব্যাপারে রাষ্ট্র প্রয়োজনীয় সাহায্য ও সহযোগিতা প্রদান করে।
পরিশেষে বলা যায়, উপরিউক্ত অধিকারসমূহ ছাড়াও আইনের চোখে সমানাধিকার, চুক্তি করার অধিকার সভা-সমিতির অধিকার ইত্যাদি সামাজিক অধিকার। আর এসব সামাজিক অধিকার ব্যতিরেকে উন্নত সামাজিক জীবন সম্ভব নয়।

বহুনির্বাচনী প্রশ্নোত্তর
১। বাংলাদেশের এক দম্পতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করে। তাদের একটি পুত্র সনত্মান জন্মলাভ করে। এৰেত্রে সনত্মানটির নাগরিকত্ব নির্ধারণে কোন পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়েছে?
ক) জন্মনীতি খ) জন্মসূত্রে
গ) জন্মস্থান সূত্রে ঘ) অনুমোদন সূত্রে
উত্তর : গ) জন্মস্থান সূত্রে
২। নূর ফকির ভিৰাবৃত্তি করে জীবিকা নির্বাহ করে। এটি কোন অধিকারের পর্যায়ভুক্ত?
ক) সামাজিক খ) অর্থনৈতিক
গ) আইনগত ঘ) নৈতিক
উত্তর : ঘ) নৈতিক
* নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে ৩ ও ৪ নং প্রশ্নের উত্তর দাও।
আরমিন রাউজানে জন্মগ্রহণ করে সেখানেই জায়গা কিনে স্থায়ী ও স্বাচ্ছন্দ্যে বসবাস করেন। তার ক্রয়কৃত জায়গায় একটি কারখানা স্থাপন করে জীবিকা নির্বাহ করেন এবং তিনি সরকারের নির্ধারিত করও পরিশোধ করেন। এলাকায় তাকে সবাই সজ্জন লোক হিসাবে শ্রদ্ধা করে।
৩। আরমিন অধিকার ভোগের পাশাপাশি যে কর্তব্য পালন করছে তা হচ্ছে_
র. তার এলাকায় শানত্মি-শৃঙ্খলা বজায় রাখে
রর. তার উপর আরোপিত কর সঠিকভাবে পরিশোধ করে
ররর. আইনের অনুশাসনগুলো মেনে চলে
নিচের কোনটি সঠিক?
ক) র খ) রর
গ) র ও রর ঘ) র, রর ও ররর
উত্তর: ঘ) র, রর ও ররর
৪। একজন নাগরিক হিসাবে আরমিন যে গুণের পরিচয় দিচ্ছেন_
র. কারখানা স্থাপনের মাধ্যমে বুদ্ধিমত্তার প্রয়োগ
রর. নির্ধারিত কর পরিশোধের মাধ্যমে দায়িত্ব বোধের পরিচয়
ররর. আইন-শৃঙ্খলা অনুসরণের মাধ্যমে শানত্মি স্থাপন
নিচের কোনটি সঠিক?
ক) র খ) ররর
গ) র ও রর ঘ) র, রর ও ররর
উত্তর: ঘ) র, রর ও ররর
৫। আরমিনের রাউজানে স্থায়ীভাবে বসবাস করা কোন ধরনের অধিকার?
ক) নৈতিক অধিকার খ) আইনগত
গ) সামাজিক অধিকার ঘ) রাজনৈতিক অধিকার
উত্তর : ঘ) রাজনৈতিক অধিকার
৬। নাগরিকতা অর্জন করা যায়_
অথবা, নাগরিকতা কত প্রকারে লাভ করা যায়?
ক) দুইভাবে খ) তিনভাবে
গ) চারভাবে ঘ) পাঁচভাবে
উত্তর : ক) দুইভাবে
৭। বাংলাদেশে নাগরিকতা নির্ধারণে কোন নীতি অনুসরণ করা হয়?
অথবা, পাকিসত্মান ও বাংলাদেশ নাগরিকতা নির্ধারণে কোন নীতি অনুসরণ করে?
ক) জন্মনীতি খ) জন্মস্থাননীতি
গ) জন্মস্থান ও জন্মনীতি উভয়টি ঘ) কোনোটি না
উত্তর : ক) জন্মনীতি
৮। "অধিকার হচ্ছে সমাজ জীবনের সে সকল সুযোগ-সুবিধা যা ব্যতীত ব্যক্তি তার ব্যক্তিত্বের বিকাশ সাধনে সৰম হয় না।" বলেন_
ক) এরিস্টটল খ) গেটেল
গ) লাস্কি ঘ) ই.এম. হোয়াইট
উত্তর: গ) লাস্কি
৯। যারা জন্মের অধিকারে নাগরিকত্ব অর্জন করে তাদের কী বলা হয়?
ক) জন্মসূত্রে নাগরিক খ) অনুমোদন সূত্রে নাগরিক
গ) প্রকৃত নাগরিক ঘ) পরোৰ নাগরিক
উত্তর: ক) জন্মসূত্রে নাগরিক
১০। অধিকার সাধারণত কয় ভাগে বিভক্ত?
ক) ৩ ভাগে খ) ২ ভাগে
গ) ৫ ভাগে ঘ) ৪ ভাগে
উত্তর : খ) ২ ভাগে
১১। নিচের কোনটি একজন নাগরিকের রাজনৈতিক অধিকার?
অথবা, রাজনৈতিক অধিকার_
ক) বসবাসের অধিকার খ) সম্পত্তির অধিকার
গ) জীবন রৰার অধিকার ঘ) পরিবার গঠনের অধিকার
উত্তর : ক) বসবাসের অধিকার
১২। রাষ্ট্র কর্তৃক সৃষ্ট ও অনুমোদিত অধিকারকে বলে_
ক) রাষ্ট্রীয় অধিকার খ) প্রচলিত আইন অধিকার
গ) ব্যক্তিগত অধিকার ঘ) আইনগত অধিকার
উত্তর : ঘ) আইনগত অধিকার
১৩। নাগরিকের যোগ্যতানুযায়ী যে কোনো আইনসঙ্গত পেশা গ্রহণ করাই হচ্ছে_
ক) জীবন রৰার অধিকার খ) পরিবার গঠনের অধিকার
গ) যোগ্য অধিকার ঘ) কর্মের অধিকার
উত্তর : ঘ) কর্মের অধিকার
১৪। কোন অধিকার মানবিক গুণ বিকাশে সাহায্য করে?
ক) রাজনৈতিক খ) আইনগত
গ) সামাজিক ঘ) অর্থনৈতিক
উত্তর : গ) সামাজিক
১৫। আইনের চোখে মানবাধিকার কোন জাতীয় অধিকার?
ক) রাজনৈতিক খ) সামাজিক
গ) অর্থনৈতিক ঘ) নৈতিক
উত্তর : খ) সামাজিক
১৬। সামাজিক অধিকার বলতে বোঝায়_
ক) আবেদন করা অধিকার খ) ব্যক্তি স্বাধীনতা রৰার অধিকার
গ) নির্বাচনের অধিকার ঘ) মতপ্রকাশের অধিকার
উত্তর : ঘ) মতপ্রকাশের অধিকার
১৭। লর্ড ব্রাইসের মতে, সুনাগরিকের গুণাবলি কয়টি?
ক) ২টি খ) ৩টি
গ) ৪টি ঘ) ৫টি
উত্তর : খ) ৩টি
১৮। __ নাগরিকের একটি শ্রেষ্ঠ গুণ।
ক) বিবেক খ) বুদ্ধিমত্তা
গ) আত্মসংযম ঘ) সাহসিকতা
উত্তর : গ) আত্মসংযম
১৯। কোনটি সুনাগরিকের গুণাবলি?
ক) বিবেক খ) আনুগত্য
গ) কর প্রদান ঘ) ভোট প্রদান
উত্তর : ক) বিবেক
২০। যারা রাষ্ট্র প্রদত্ত রাজনৈতিক ও সামাজিক অধিকার ভোগ করে তারা_
ক) বিদেশি খ) নাগরিক
গ) দেশবাসী ঘ) জনগণ
উত্তর : খ) নাগরিক
২১। পৌরবিজ্ঞান প্রধানত কোন অধিকার নিয়ে আলোচনা করে?
ক) সাংস্কৃতিক খ) অর্থনৈতিক
গ) ধমর্ীয় ঘ) আইনগত
উত্তর : ঘ) আইনগত
২২। কোন অধিকার ৰুণ্ন হলে শাসত্মি দেওয়ার ব্যবস্থা নেই?
ক) সামাজিক অধিকার খ) রাজনৈতিক অধিকার
গ) নৈতিক অধিকার ঘ) আইনগত অধিকার
উত্তর : গ) নৈতিক অধিকার
২৩। সুনাগরিকের গুণ নয়_
ক) আত্মসংযম খ) বিবেক
গ) দাম্ভিকতা ঘ) বুদ্ধিমত্তা
উত্তর : গ) দাম্ভিকতা
২৪। রাজনৈতিক অধিকার কোনটি?
ক) আনুগত্য খ) আবেদন করার অধিকার
গ) সাংস্কৃতিক ও ভাষার অধিকার ঘ) সভাসমিতির অধিকার
উত্তর : খ) আবেদন করার অধিকার