মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ১ ডিসেম্বর ২০১৪, ১৭ অগ্রহায়ন ১৪২১
চট্টগ্রামে আজ থেকে মাসব্যাপী বিজয় মেলা শুরু
স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রামের এমএ আজিজ আউটার স্টেডিয়ামে আজ সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধে বিজয়মেলা। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ছড়িয়ে দিতে আজ থেকে ২৬ বছর আগে চট্টগ্রাম থেকে যে মেলা শুরু হয়েছিল তা এখন বিস্তৃত সারাদেশে। একটি সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের শপথে চট্টগ্রামের এ বিজয়মেলা এবারও সারা মাস মাতিয়ে রাখবে নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর নির্বিশেষে সকল শ্রেণীর মানুষকে।
রবিবার চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলার সার্বিক দিক অবহিত করেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক মেয়র ও মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। সংবাদ সম্মেলনে মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, একটি দুর্বিনীত দুঃসময়ে এ চট্টগ্রামে ১৯৮৯ সালে শুরু হয়েছিল মুুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা। অনেক প্রতিকূলতা পেরিয়ে এখন এমন একটি সময়ে দাঁড়িয়েছি, যখন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি রাষ্ট্র ক্ষমতায়। তিনি জানান, বিজয়মেলা শুরু হচ্ছে ১ ডিসেম্বর সোমবার। তবে আগামী ১০ ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলার মূল অনুষ্ঠানমালা জাতীয় পতাকা ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে। বিজয়মেলা উদ্বোধন করবেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।


আখাউড়ায় তৌফিক এলাহী ॥ এক বছরের মধ্যে এক শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুত আসবে ত্রিপুরা থেকে

স্টাফ রিপোর্টার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ॥ আগামী এক বছরের মধ্যে ত্রিপুরার পালাটানা বিদ্যুত কেন্দ্র থেকে বাংলাদেশে ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত আসবে। পর্যায়ক্রমে এর পরিমাণ আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী। তিনি আজ রবিবার দুপুরে ত্রিপুরার পালাটানা বিদ্যুত কেন্দ্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারত যাওয়ার পথে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, সব সময় প্রতিবেশীকে সাহায্য করলে প্রতিবেশীও আমাদের সাহায্য করবে। প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক থাকলেই উন্নতি সম্ভব। তিনি জানান, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার আগে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুত ছিল বর্তমানে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ১১ হাজার মেগাওয়াটে। এ সময় তিনি ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশের প্রতিটি ঘরে বিদ্যুত পৌঁছে দেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।