মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৩, ৬ কার্তিক ১৪২০
জবি ক্যাম্পাসে মিলনমেলা-অষ্টম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর বর্ণাঢ্য উদ্বোধন
জবি রিপোর্টার ॥ নানা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে পালিত হচ্ছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অষ্টম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী । বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান শহীদ মিনারের পাদদেশে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে রবিবার ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় দিবস ২০১৩’ এর উদ্বোধন করেন। তিন দিনব্যাপী আয়োজিত অনুষ্ঠানে উদ্বোধন শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিভিন্ন রঙের বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা অবমুক্ত করেন।
এ সময় উপাচার্য বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সবচেয়ে কম জমির উপর প্রতিষ্ঠিত হলেও শিক্ষার্থীদের দিক থেকে দেশের চতুর্থ বৃহত্তম বিশ্ববিদ্যালয় এটি। ভর্তিইচ্ছু শিক্ষার্থীদের অন্যতম পছন্দের স্থান ও এটি। এটি একটি অনাবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় হলেও এখানে মেধার সমন্নয় ঘটেছে।
তিনি এ সময় বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরই অধিকাংশ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের অন্যতম পছন্দের স্থান হলো এ বিশ্ববিদ্যালয়।
পাঠদানের বিষয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা যত সময় শিক্ষার্থীদের পিছনে ব্যয় করে অন্য কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এত সময় শিক্ষার্থীদের দেয় না।
কারন হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অনাবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় হওয়ার কারণে শিক্ষকদের বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহনের ওপর নির্ভর করতে হয়। তাই শিক্ষকরা সকাল ৮ টা থেকে শুরু করে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকতে হয়। অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে অপেক্ষাকৃত মেধাবী শিক্ষকরা এ বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরির জন্য আবেদন করেন।
লাল নীল বাতি দিয়ে সাজানো হয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যম্পাস। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে শিক্ষার্থীরা ঈদের ছুটি শেষ হওয়ার একদিন আগেই ছুটে এসেছে ব্যস্ততম নগরী ঢাকায়। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস অনেক জাকজমক ভাবে পালন করা হবে এ কথা জানা ছিল সবার। তাই সকাল থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ে আনন্দের আমেজ বিরাজ করছিল। আতোশবাজী শব্দে কিছু সময় পর পরই কেঁপে উঠছিল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। সকাল ১০টার দিকে পুরাতন বিজনেস স্টাডিজ ভবনের নিচতলায় উপাচার্য কেক কাটেন। এছাড়া একাডেমিক ভবনের নিচ তলায় তিন দিনব্যাপী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকাশনা প্রদশর্নীর আয়োজন করা হয়। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক মোঃ সেলিম ভূঁইয়া, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামান, গ্রন্থাগারিক, পরিচালক (ছাত্র-কল্যাণ), প্রক্টর ড. অশোক কুমার সাহা, সহকারী প্রক্টরবৃন্দ, শিক্ষক-ছাত্রছাত্রী-কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করে।
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় দিবস-২০১৩’- উপলক্ষে আগামীকাল সোমবার চিত্র প্রদশর্নী ও রক্তদান কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যম্পাসে সকাল সোয়া দশটায় একাডেমিক ভবনের নিচ তলায় দেশের বরেণ্য শিল্পীদের আঁকা চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন ও রয়েছে। এছাড়া বাংলা বিভাগের উদ্দ্যেগে মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য চত্ত্বরে সাড়ে ১০টায় কবিতা প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। সকাল সাড়ে ১০টায় ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সংসদ’ কর্তৃক মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চিত্র প্রদর্শনী ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচী এবং সকাল ১১টায় বাঁধন কর্তৃক স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচীর পালন করা হবে।
অনুষ্ঠানের তৃতীয় দিনে শহীদ মিনার চত্বর হতে সকাল ১০টায় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর র‌্যালী বের করা হবে। সকাল ১১টার দিকে বাংলাবাজার সরকারী বালিকা বিদ্যালয় সংলগ্ন স্থানে ‘বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল’-এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও সকাল ১১টায় বিজ্ঞান ভবন চত্বরে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান ভবন চত্বরে বেলা বারটায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।