মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ৩০ জানুয়ারী ২০১৩, ১৭ মাঘ ১৪১৯
পাড়ায় পাড়ায় দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে ॥ তরিকুল
স্টাফ রিপোর্টার ॥ নির্দলীয় সরকারের দাবি আদায় করতে পাড়ায় পাড়ায় ও মহল্লায় মহল্লায় সংগঠিত হয়ে এ সরকারের বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, সরকার দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে একদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করতে চায়। আন্দোলন করেই নির্দলীয় সরকারের দাবি আদায় ও মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ সকল নেতাকর্মীর মুক্ত করতে হবে। মঙ্গলবার বিকেলে নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে ঢাকা মহানগর বিএনপি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
তরিকুল বলেন, বর্তমান সরকারের মধ্যে একদলীয় প্রেতাত্মা ভর করেছে। এ জন্যই তারা দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করে আবারও ক্ষমতায় থাকতে চায়। তিনি বলেন, এ সরকার মনে করছে র‌্যাব-পুলিশ সব তাদের। কেউই তাদের ক্ষমতা থেকে নড়াতে পারবে না। তাই তারা চিরকাল ক্ষমতা আঁকড়ে থাকতে চায়। অবশ্য ক্ষমতায় থাকাকালে সব স্বৈরাচারই মনে করে মেয়াদের একদিন আগেও তারা ক্ষমতা ছাড়বে না। কিন্তু তারা শেষ পর্যন্ত ক্ষমতা আঁকড়ে থাকতে পারে না। এ সরকারের বেলায়ও তাই হবে।
তরিকুল বলেন, যারা আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে তারাই এ সরকারের কাছে খারাপ। আর এ জন্যই প্রবীণ সাংবাদিক এবিএম মূসা, ড. কামাল, ড. মুহাম্মদ ইউনূস ও কাদের সিদ্দিকী তাদের কাছে খারাপ হয়ে গেছে। যারা আওয়ামী লীগের পক্ষে একমাত্র তারাই এ সরকারের কাছে ভাল।
তরিকুল বলেন, দেশের সব রাজনৈতিক দল ও বিশিষ্ট নাগরিকই চান তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হোক। শুধু আওয়ামী লীগ ও প্রধানমন্ত্রীই চান না। মনে হয় যেন দেশে তারা ছাড়া আর কোন মানুষ নেই।
ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক সাদেক হোসেন খোকার সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, এমকে আনোয়ার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, যুগ্ম মহাসচিব আমানউল্লাহ আমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক জয়নুল আবদিন ফারুক, যুববিষয়ক সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সালাম, ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, মহিলা দলের সভাপতি নূরে আরা সাফা, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক শরাফত আলী সপু, ছাত্রদল সভাপতি আবদুল কাদের ভুইয়া জুয়েল প্রমুখ।
ওবামার সঙ্গে শেখ হাসিনার মিল কোথায়- মওদুদ ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, সম্প্রতি বলেছেন ওবামা যদি ক্ষমতায় থেকে নির্বাচন করতে পারেন তাহলে আমরা পারব না কেন? এভাবে শেখ হাসিনা নিজেকে ওবামার সঙ্গে তুলনা করেছেন। কিন্তু বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বিরোধী দলের সঙ্গে যে আচরণ করেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপ্রধান ওবামা, এমনকি ভারতের বিরোধী দলের সঙ্গে এমন আচরণ করা হয় না। মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে জিয়াউর রহমানের ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে জিয়া সমাজকল্যাণ পরিষদ আয়োজিত আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
জামায়াতের হামলা দুঃখজনক, পুলিশের আচরণ বেআইনী ॥ পুলিশের ওপর জামায়াত-শিবিরের হামলা দুঃখজনক এবং তাদের প্রতি পুলিশের আচরণকে বেআইনি বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির প্রচার সম্পাদক ও জাতীয় সংসদে বিরোধী দলের চীফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক। মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুলের মুক্তির দাবিতে স্বাধীনতা ফোরাম আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এমন মন্তব্য করেন।
ফারুক বলেন, যখন সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিরোধীদলীয় চীফ হুইপকে পেটানোর জন্য মহানগর পুলিশের ডিসি হারুন অর রশীদকে রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক দেয়া হয়েছে। মন্ত্রীর পথ অনুসরণ করে এবার ঢাকার পুলিশ কমিশনার বেনজীর আহমেদ বলেছেন, শিবির দেখামাত্র গুলি করা হবে। এ থেকে বোঝা যায়, সরকারের দলীয়করণে দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তথা পুলিশ ও র‌্যার কিভাবে রাজনৈতিক কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে।