মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শুক্রবার, ২১ অক্টোবর ২০১১, ৬ কার্তিক ১৪১৮
হাইকোর্টের দশ বিচারপতির শপথ
স্টাফ রিপোর্টার ॥ সুপ্রীমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে শপথ নিয়েছেন নতুন নিয়োগ পাওয়া ১০ বিচারপতি। প্রধান বিচারপতি মোঃ মোজাম্মেল হোসেন বৃহস্পতিবার সুপ্রীমকোর্টের জাজেস লাউঞ্জে এই নতুন বিচারকদের শপথ পড়ান। চলতি মাসে দুই দফায় এই দশ জনকে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি মোঃ জিলস্নুর রহমান।
নতুন নিয়োগ পাওয়া বিচারপতিরা বৃহস্পতিবার শপথের পরপরই এজলাসে বসেন। এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সহ-সভাপতি জগলুল হায়দার আফ্রিক বেঞ্চে বেঞ্চে গিয়ে তাঁদের সংবর্ধনা দেন। এ সময় সরকারী আইন কর্মকর্তা এবং সরকার সমর্থক আইনজীবীরা তাঁদের সঙ্গে ছিলেন। তবে সমিতির সভাপতি-সম্পাদকসহ একাংশ নতুন বিচারপতিদের অভিনন্দন জানানো থেকে বিরত থাকেন।
শপথ নেয়া অতিরিক্ত বিচারপতি হিসাবে আগামী দুই বছর তাঁদের নিয়োগ কার্যকর থাকবে। যাঁরা শপথ নিয়েছেন তাঁরা হলেন বিচারপতি এসএইচ মোঃ নুরম্নল হুদা জায়গীরদার, বিচারপতি কে এম কামরম্নল কাদের, বিচারপতি মুজিবুর রহমান মিয়া, বিচারপতি মোসত্মফা জামাল ইসলাম, বিচারপতি মোহাম্মদ উলস্নাহ, বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশিদ আলম সরকার, বিচারপতি একেএম শহিদুল হক, বিচারপতি শহিদুল করিম, বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন, বিচারপতি আবু তাহের মোঃ মুজিবুর রহমান। এঁদের মধ্যে ৬ জনকে ৪ অক্টোবর এবং ৪ জনকে বুধবার নিয়োগ দেয়া হয়। এ দশ জন বিচারপতি নিয়ে বর্তমান হাইকোর্ট বিভাগকে বিচারপতির সংখ্যা দাঁড়াল ৯৮-তে।
এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, সাংবিধানিক পদের নিয়োগ নীতিমালা দিয়ে ঘেরাটোপে আবদ্ধ করা ঠিক হবে না। সর্বোচ্চ আদালতে বিচারক নিয়োগ রম্নল ফ্রেম করে কন্ট্রোল করা যায় না। বিচারপতি নিয়োগ নিয়ে সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির নীতিমালা প্রণয়নের দাবি প্রশ্নে তিনি এসব কথা বলেন। বৃহস্পতিবার বেলা ২টার দিকে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ্যাটর্নর্ি জেনারেল এসব কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, 'সুপী্রমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এবং সম্পাদক একটি দলের সমর্থক। ওই দলের সমর্থনেই তারা এসব বক্তব্য দিচ্ছেন। বিচারপতিদের চাকরি ক্যাডার সার্ভিসের কোন চাকরি নয়। অনেক জুনিয়র বিচারপতি দক্ষতার সঙ্গে বিচারকাজ করতে পারেন।' তিনি বলেন, 'যাঁদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে তাঁরা অবশ্যই দক্ষ এবং যোগ্য। সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, সরকার বিচারপতি নিয়োগের ক্ষেত্রে কোন নীতিমালা মানছে না। কোন ধরনের নীতিমালা ছাড়াই এ দশ জন বিচারপতিকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্টের দক্ষিণ হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেছেন।