মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১১, ৫ মাঘ ১৪১৭
বিশ্ব এজতেমা উপলক্ষে বিশেষ ট্রেন ও বাস সার্ভিস
স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিশ্ব এজতেমা উপলক্ষে রেলওয়ে ২৫টি বিশেষ ট্রেন সার্ভিস এবং সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি) ৫০টি বাস দিয়ে মুসলিস্ন পরিবহন করবে। এ ছাড়া সকল আনত্মঃনগর, মেল এবং এঙ্প্রেস ট্রেন টঙ্গী স্টেশনে যাত্রা বিরতি করবে।
যোগাযোগ মন্ত্রণালয় সূত্র মতে, আখেরী মোনাজাতের আগের দু'দিন ২১ এবং ২২ জানুয়ারি জামালপুর-টঙ্গী এবং আখাউড়া-টঙ্গী প্রতিদিন একটি করে বিশেষ ট্রেন চলাচল করবে। আখেরী মোনাজাতের দিন ২৩ জানুয়ারি ২২টি বিশেষ ট্রেন চলবে। এর মধ্যে ঢাকা-টঙ্গী সাতটি, টঙ্গী-ঢাকা সাতটি, টঙ্গী-ময়মনসিংহ চারটি, টঙ্গী-আখাউড়া দুটি এ ছাড়া টঙ্গী-লাকসাম এবং ঈশ্বরদী-টঙ্গী-ইশ্বরদী একটি করে বিশেষ ট্রেন চলাচল করবে। সকল আনত্মঃনগর, মেল এবং এঙ্প্রেস ট্রেন ১৮ থেকে ২৩ তারিখ পর্যনত্ম টঙ্গী স্টেশনে যাত্রা বিরতি করবে।
বিশেষ ট্রেন পরিচালনার জন্য আখেরী মোনাজাতের দিন ৭০১/৭০২ সুবর্ণ এঙ্প্রেস এবং ৭০৭/৭০৮ তিসত্মা এঙ্প্রেস চলাচল করবে না। এ ছাড়া একই দিন ঢাকা-জয়দেবপুর এবং নারায়ণগঞ্জ-জয়দেবপুরের তুরাগ এঙ্প্রেস ১, ২, ৩, ৪, ৫ ও ৬ চলাচল করবে না। রেলওয়ে সূত্র বলছে, যাত্রীদের তথ্য প্রাপ্তির সুবিধার্থে সকল স্টেশনে সর্বৰণিক মাইকিং, মুসলিস্নদের জন্য অতিরিক্ত টিকেট কাউন্টার এবং টঙ্গী স্টেশনে সর্বৰণিক চিকিৎসক থাকবেন।
বিআরটিসি সূত্রমতে, ২১ থেকে ২৩ জানুয়ারি এবং ২৮ থেকে ৩০ জানুয়ারি ৫০টি বাস বিভিন্ন এলাকা থেকে এজতেমা এলাক পর্যনত্ম যাত্রী পরিবহন করবে। এজতেমা সার্ভিসের বাসগুলো আরিচা, পাটুরিয়া, মাওয়া, মিরপুর, নরসিংদী, ভৈরব, ময়মনসিংহ, সায়েদাবাদ, গুলিসত্মান, গাবতলী, কমলাপুর এবং জয়দেবপুর থেকে যাত্রী পরিবহন করবে। এ ছাড়া রাজধানীর মধ্য থেকে ফুলবাড়িয়া, কমলাপুর এবং ফার্মগেট থেকে যাত্রীদের জন্য এজতেমাস্থল পর্যনত্ম বিআরটিসির বাস চলাচল করবে। মুসলিস্নদের চাহিদা অনুযায়ী ২১-২২ জানুয়ারি এবং ২৮-২৯ জানুয়ারি দ্বিতল বাস কাকরাইল মসজিদ থেকে এজতেমাস্থলে নিয়ে যাবে। বাসগুলো দ্বিতল-বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণে চলাচল করবে। আখেরী মোনাজাতের পরের দিন ২৪ জানুয়ারি থেকে ৩ ফেব্রম্নয়ারি পর্যনত্ম সময়ে মুসলিস্নদের গনত্মব্যে পেঁৗছে দেয়ার জন্য এজতেমাস্থল থেকে বিভিন্ন জেলার উদ্দেশে বিআরটিসির বাস ছেড়ে যাবে। এ ছাড়া বিদেশী মুসলিস্নদের সুবিধার্থে একটি সংরৰিত মিনিবাস চলাচল করবে। এজতেমা সার্ভিস সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য বিআরটিসি পৃথক দুটি কন্ট্রোল রম্নম খুলবে। এজতেমা সার্ভিসের সকল গাড়িতে স্পেশাস সার্ভিসের স্টিকার লাগানো থাকবে।