মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৩, ২৪ অগ্রহায়ন ১৪২০
নির্বাচন স্থগিত করার আহ্বান বিএনপির
স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঘোষিত তফসিলের একতরফা নির্বাচনে কোন ব্যক্তি বা দলের আদেশ না মানতে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি। একই সঙ্গে নির্বাচন স্থগিত করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আবারও আহ্বান জানায় দলটি।
শনিবার সকালে এক ভিডিও বার্তায় দলের যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, আওয়ামী লীগ নির্বাচনকে ভয় পায় বলেই একতরফা প্রহসনের নির্বাচন করতে চায়। আমরা নির্বাচন কমিশনকে আবারও সরকারের তল্পিবাহক না হয়ে প্রহসনের এই নির্বাচন অবিলম্বে স্থগিত করার দাবি করেন তিনি।
নির্দলীয় সরকারের দাবির এই আন্দোলনে সরকার ‘পতন ঘটাতে’ জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বানও জানান সালাউদ্দিন আহমেদ। প্রজাতন্ত্রের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে করে বলেন, আপনারা দেশের জনগণ এবং রাষ্ট্রের সেবক হিসেবে নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করুন। কোন ব্যক্তি বা দলের অবৈধ ইচ্ছা বা আদেশ পালনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হবেন না। ইতোমধ্যে এক তরফা নির্বাচনে শিক্ষক সমাজের একটি বৃহৎ অংশ দায়িত্বপালনে অপরাগতা প্রকাশ করেছেন।
যুগ্ম মহাসচিব বলেন, সরকারের একতরফা নির্বাচনে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন, কমনওয়েলথ, জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থা বা কোন গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্র ও পর্যবেক্ষক পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়নি। এমনকি নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত অধিকাংশ পর্যবেক্ষক সংস্থা ও সংগঠন পর্যবেক্ষণের জন্য আবেদন করেননি। এরপরও সেই একতরফা নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য এই ‘অবৈধ সরকার’ গোঁ ধরে বসে আছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
১৯৭৫ সালে সংসদে বাকশাল প্রতিষ্ঠার কথা উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, আওয়ামী লীগ সব সময় নির্বাচনকে ভয় পায়। প্রধানমন্ত্রীর পিতা বাকশালী সংশোধনীর মাধ্যমে তৎকালীন সংসদকে পুনর্বার আরও এক বছর মেয়াদের জন্য নির্বাচিত হওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন। আওয়ামী লীগের সভানেত্রীও আইন জারি করে আরেকবারের জন্য এই সংসদকে বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন বলে ঘোষণা দিতে পারেন।
একতরফা নির্বাচনের উদ্যোগের সমালোচনা করে সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, জানা গেছে, ‘অবৈধ সরকারের’ ৩৩ জন মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সাবেক মন্ত্রীসহ অনেকেই বিনা ভোটে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। আরও ১০৩টি আসনে একক প্রার্থী হওয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে। কিছু সংখ্যক আসনে কোন প্রার্থীই নেই।
৭২ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচীর শুরুর প্রথম দিনে সকালে সালাহউদ্দিন ভিডিও বার্তার মাধ্যমে দেশবাসীকে দলের এই অবস্থানের কথা তুলে ধরেন। ভোর ৬টা থেকে সারাদেশে রাজপথ-রেলপথ-নৌপথ অবরোধ কর্মসূচী শুরু করেছে ১৮ দল।
ভারতের দালাল হয়ে মৃত্যুবরণ করবেন না ॥ বিএনপির সহসভাপতি মেজর (অব) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ আওয়ামী লীগের সঙ্গে ‘পাতানো’ নির্বাচনে অংশ নিয়ে ‘ভারতের দালাল’ হয়ে মৃত্যুবরণ না করার জন্য জাতীয় পার্র্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের হলরুমে বাংলাদেশ কল্যাণপার্র্টির ষষ্ঠ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনাসভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।
তিনি বলেন, সরকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করে দিয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে অক্ষুণœ রাখার জন্য এবং জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠিত করতে হলে আওয়ামী লীগের দুঃশাসন থেকে আমাদের মুক্ত হতে হবে। হাফিজ উদ্দিন বলেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে পাতানো নির্বাচনে অংশ নিলে আপনি ভারতের দালাল হয়ে মারা যাবেন। শেষ জীবনে আপনার চাওয়া-পাওয়ার আর কি থাকতে পারে?
নির্বাচন কমিশনকে সরকারের আজ্ঞাবহ উল্লেখ করে হাফিজ বলেন, আত্মসম্মানবোধ থাকলে নির্বাচন কমিশনের আজই পদত্যাগ করা উচিত। দেশবিরোধী সব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে ১৮ দল দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা করবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে বিএনপি ২৮০টি আসন এবং আওয়ামী লীগ ২০টি আসন পাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।