মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৩, ৯ শ্রাবণ ১৪২০
আগারগাঁওয়ে ক্লিনিক থেকে ভুয়া ডাক্তার গ্রেফতার, দুই বছর কারাদণ্ড
র‌্যাবের অভিযান
স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর আগারগাঁও এলাকার একটি ক্লিনিকে অভিযান চালিয়ে এক ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেফতারের পর তাৎক্ষণিক সাজা দেয়া হয়েছে। তার নাম আকরাম হোসেন। র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনোয়ার পাশা মঙ্গলবার তাকে দু’বছরের কারাদন্ড প্রদান করেন।
জানা যায়, রাজধানীর ২৬ নং পশ্চিম আগারগাঁওয়ে (পঙ্গু হাসপাতালের বিপরীতে) মরিয়াম অর্থোপেডিক এ্যান্ড জেনারেল হাসপাতালে র‌্যাব-২-এর অভিযানে আকরাম হোসেন (৪৫) ধরা পড়েন। তিনি ঐ কিèনিকে বড় ডাক্তার পরিচয়ে রোগীদের প্রতারণা করে আসছিলেন। ঠাকুরগাঁও হতে আসা রোগী দুলাল জানান, বড় ডাক্তার পরিচয় দিয়ে আকরাম তাকে অপারেশন থিয়াটারে নিয়ে গিয়ে সেলাই করে।এবং প্রেসক্রিপশন লিখে ডাক্তার জহির নামে স্বাক্ষর করে। বরগুনা হতে আসা তফাজ্জলের হাতেও ডাক্তার হিসেবে আকরামের স্বাক্ষর করা কাগজ পাওয়া যায়।
জানা যায়, একই অপরাধে বছর দুয়েক আগেও একই আদালত আকরামকে দুই বছরের কারাদন্ড প্রদান করে। ছয় মাস কারাভোগের পর জামিনে বেরিয়ে এসে আবারও একই কাজ শুরু করেন বলে ধৃত আকরাম স্বীকার করেন। অভিযুক্ত আকরাম জানান, গত ২০ বছর যাবত তিনি এই ধরনের অপরাধ করছেন। তিনি ম্যাট্রিক পাস করেছেন বলে জানান। এরপর নড়াইল থেকে ঢাকায় চলে আসেন। কিছুদিন বিভিন্ন হাসপাতালে চাকরি করার পর শ্যামলী হাসপাতাল নামে একটি হাসপাতালের মালিক হন। সেখানে রোগী মারা গেলে মামলা হয় এবং তিনি পালিয়ে যান। এরপর এই এলাকার বিভিন্ন ক্লিনিকে ভুয়া ডাক্তারের কাজ চালিয়ে যান। বার বার ধরা পড়ার পরও তিনি সরকারী হাসপাতালের দালালদের সহায়তায় ভুয়া ডাক্তারের কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন বলে জানান। উক্ত হাসপাতালে বিক্রয় নিষিদ্ধ সরকারী ওষুধ পাওয়া যায়। পঙ্গু হাসপাতাল থেকে চুরি করে ওষুধ আনা হয়েছে বলে আকরাম স্বীকার করেন। এ বিষয়ে নিয়মিত মামলার নির্দেশ প্রদান করা হয়।