মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ১৩ মার্চ ২০১৩, ২৯ ফাল্গুন ১৪১৯
রাষ্ট্রপতির অবস্থার উন্নতি হচ্ছে
বিশেষ প্রতিনিধি ॥ সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন রাষ্ট্রপতি মোঃ জিল্লুর রহমানের শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। রবিবার রাতে ঢাকা সেনানিবাসের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল থেকে সিঙ্গাপুর মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে স্থানান্তরের সময় তাঁর শারীরিক অবস্থা যা ছিল তার চেয়ে এখন অপেক্ষাকৃত ভাল বলে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব এ কে এম নেছার উদ্দিন ভূঞা মঙ্গলবার জানিয়েছেন।
সিঙ্গাপুরের হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, রাষ্ট্রপতির ফুসফুসে ইনফেকশনের কারণে পানি জমে যায়। মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তির পর এই পানি অপসারণ শুরু হয়। সঙ্গে সঙ্গে ইনফেকশন নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসা শুরু হয়েছে। এতে তাঁর শারীরিক অবস্থা ক্রমশ উন্নতি হচ্ছে। রাষ্ট্রপতির কার্যালয় এবং রাষ্ট্রপতির পরিবারের সদস্যদের পক্ষ থেকে তাঁর আশু রোগমুক্তির জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করা হয়েছে। রাষ্ট্রপতির রোগমুক্তি কামনায় সব ধর্মীয় উপাসনালয়ে দোয়া ও প্রার্থনার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে মঙ্গলবার সারাদেশের মসজিদে মোনাজাত এবং মন্দির, গির্জা ও প্যাগোডায় বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের আশু রোগমুক্তি ও আরোগ্য কামনায় মঙ্গলবার বঙ্গভবন জামে মসজিদ, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ রাজধানীর বিভিন্ন মসজিদে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের দরবারে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়েছে। বেলা ১২টায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে এক বিশেষ প্রার্থনাসভার আয়োজন করা হয়। প্রার্থনাসভায় উপস্থিত ছিলেন সুজিত রায় নন্দী, পংকজ নাথ, মহানগর পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল কুমার চ্যাটার্জি, সুব্রত পাল, ড. অসীম সরকার, রমেন ম-ল, পংকজ সাহা প্রমুখ।
এ ছাড়া ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম রাষ্ট্রপতির আরোগ্য কামনায় দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ ও বাংলাদেশ নারী মুক্তি আন্দোলন রাষ্ট্রপতির আরোগ্য কামনায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।
উল্লেখ্য, শ্বাসকষ্টজনিত কারণে গত শনিবার রাতে রাষ্ট্রপতি অসুস্থ হয়ে পড়েন। রবিবার ভোরে তাঁকে ঢাকা সেনানিবাসের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়। এই হাসপাতালের চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়। রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তাঁর পুত্র নাজমুল হাসান পাপন এমপি ও ব্যক্তিগত চিকিৎসক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোতাহার হোসেনও রয়েছেন।