মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০১১, ৯ পৌষ ১৪১৮
পাশাপাশি শুয়ে আছে জীবিত ও মৃত জোড়া শিশু!
স্টাফ রিপোর্টার ॥ বেদনাদায়ক এক চিত্র। জোড়া লাগা যমজ শিশুর একজন বেঁচে আছে, অন্য জন মারা গেছে। কিন্তু মৃত শিশুটি জীবিত জনের পাশেই শুয়ে আছে। পাশে শুয়ে থাকতে বাধ্য সে। তাদের বিচ্ছিন্ন করা যে কঠিন কাজ। সার্জারি করার অবস্থা তৈরি হয়নি। জীবিত শিশুটির অবস্থাও আশঙ্কাজনক। জীবিত শিশুটিকে বাঁচিয়ে রাখার সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন চিকিৎসকরা। বৃহস্পতিবার এমন করুণ চিত্র দেখা গেছে ঢাকা শিশু হাসপাতালের ১৪নং ওয়ার্ডের ১৭নং বেডে।
রোগীর আত্মীয়স্বজন জানায়, মোঃ রাজ্জাকের স্ত্রী আসমা আক্তার বৃহস্পতিবার ঢাকা ন্যাশনাল হাসপাতালে টুইন বেবি জন্ম দেয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় টুইন বেবিকে সকালে ঢাকা শিশু হাসপাতালে স্থানানত্মর করা হয়। পুরান ঢাকার কোর্টকাছারি এলাকায় তাদের বাসা। শিশু দু'টির বুকের এক পাশ সংযুক্ত অবস্থায় আছে। ঢাকা শিশু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে জোড়া শিশুর একটি মারা যায়। হাসপাতাল কর্তৃপৰ জানায়, জন্মের পর থেকেই শিশু দু'টির নাড়িভুঁড়ি বাইরে বের হয়ে আছে। শিশু দু'টি স্বাভাবিক অবস্থায় ছিল না। এক পর্যায়ে একটি শিশুর মৃত্যু হয়। জীবিত শিশুটির অবস্থাও আশঙ্কাজনক। ওই অবস্থায় সার্জারি করে মৃত শিশুটিকে বিচ্ছিন্ন করাও সম্ভব হচ্ছে না। তবে নানা দিক পরীৰা-নিরীৰা করে দেখা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, টুইন বেবিকে তোয়ালে মুড়িয়ে রাখা হয়েছে। বিছানার তিন দিকে উদ্বিগ্ন আত্মীয়স্বজনদের ভিড়। শিশুদের ব্যাপারে বিসত্মারিত বলতে রাজি হননি তাঁদের কেউ। হাসপাতালের নার্স ও দায়িত্বরত চিকিৎসকরা টুইন বেবির একজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।