মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বৃহস্পতিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১১, ১ পৌষ ১৪১৮
কুসিক নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বী ২৯৫ জন মেয়র প্রার্থী ৯
নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিলস্না, ১৪ ডিসেম্বর ॥ কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে বুধবার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেছেন ১৫ প্রার্থী। এসব প্রার্থীর সকলেই সাধারণ আসনে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন। মেয়র ও সংরৰিত মহিলা আসনে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র দাখিলকারীদের কেউ প্রত্যাহার করেননি। এ নিয়ে কুসিক নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বী তালিকায় প্রার্থীর সংখ্যা হলো মোট ২৯৫ জন। এরমধ্যে মেয়র পদে ৯ জন, সংরৰিত মহিলা আসনে কাউন্সিলর পদে ৬৯ জন ও সাধারণ আসনে কাউন্সিলর পদে ২১৭ জন।
জানা যায়, কুসিক নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য দাখিলকৃত মনোনয়নপত্রে ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকায় গত ৪ ও ৫ ডিসেম্বর বাছাইয়ে মেয়র পদে ১ জন ও কাউন্সিলর পদে ১৯ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছিল। এসব প্রার্থীর আপীল আবেদনের প্রেৰিতে গত ৮ ডিসেম্বর নির্বাচনী আপীল অফিসার ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মোঃ সিরাজুল হক খান শুনানি শেষে ১৯ জন আপীলকারী প্রার্থীর মধ্যে ১২ জনের মনোনয়নপত্র বহাল রেখে ৭ জনের বাতিল আদেশ বহাল রাখেন। ওই ৭ জনের মধ্যে ২১নং ওয়ার্ডে সাধারণ আসনে কাউন্সিলর প্রার্থী কাজী মাহবুবুর রহমান বাতিল আদেশের বিরম্নদ্ধে হাইকোর্টে রিট পিটিশন দাখিল করলে গত ৮ ডিসেম্বর দু'জন বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র গ্রহণপূর্বক প্রতীক বরাদ্দের জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তাকে আদেশ দেন। বুধবার ওই প্রার্থী হাইকোর্টের আদেশসহ রিটার্নিং অফিসারের নিকট আবেদন করে প্রার্থিতা ফিরে পান। এ নিয়ে মেয়র পদে ৯ জন, ৩৬টি ওয়ার্ডের ৯টি সংরৰিত আসনে মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬৯ জন ও ২৭টি ওয়ার্ডে সাধারণ আসনে কাউন্সিলর পদে ২১৭ জনসহ মোট ২৯৫ প্রার্থী চূড়ানত্ম তালিকায় ভোটের মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় কুমিলস্না টাউন হলে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ করা হবে বলে জানিয়েছেন কুসিক নির্বাচনী রিটার্নিং অফিসার আবদুল বাতেন।
সাধারণ আসনে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারকারী ১৫ জন হলেন- ৩নং ওয়ার্ড : আবদুলস্নাহ আল মোমেন, একেএম তোফাজ্জল হোসেন, ১৬নং ওয়ার্ড : আবুল কাশেম, ১৮নং ওয়ার্ড : সালাহউদ্দিন ছালাম, ১৯নং ওয়ার্ড : মোঃ শাহীন চৌধুরী, ২০নং ওয়ার্ড : মোঃ সাইফুল ইসলাম, ২২নং ওয়ার্ড : মনিরম্নল হক মৈশান, মাহাবুবুল হক মজুমদার, ২৩নং ওয়ার্ড : মোঃ আবুল কালাম আজাদ, মোহাম্মদ খলিলুর রহমান, মোঃ জামাল উদ্দিন, ২৪নং ওয়ার্ড : মোঃ আবদুলস্নাহ আল মামুন, ২৫নং ওয়ার্ড : মোঃ আক্তার হোসাইন ও ২৬নং ওয়ার্ড : কফিল উদ্দিন মজুমদার, আবদুর রব ফয়সাল।
এদিকে সাবেক দুই ছাত্রলীগ নেতা প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করায় নেতাকর্মীরা দ্বিধাদ্বন্দ্বে পড়েছেন। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয়ভাবে দলের নেতা ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এ্যাডভোকেট আফজল খানকে সমর্থন দেয়। দলীয় সিদ্ধানত্ম না মেনে ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য ও ভিক্টোরিয়া কলেজের সাবেক ভিপি নুর উর রহমান মাহমুদ তানিম এবং জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান মিঠু প্রার্থিতা বহাল রেখেছেন।
অপরদিকে মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কুকে বিএনপি দলের প্রাথমিক সদস্য পদসহ সব পদ থেকে অব্যাহতি দেয়ায় সাক্কু সমর্থক দলীয় নেতাকর্মী-সমর্থকদের মাঝে হতাশা ও ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। সাক্কুকে দলের সব পদ থেকে সরিয়ে দেয়ার বিষয়টি ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন আ'লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আফজল খানের সমর্থকরা।