মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বৃহস্পতিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১১, ১ পৌষ ১৪১৮
যুবক হত্যার জের ॥ লাশ নিয়ে মিছিল ১৪৪ ধারা জারি ॥ মহিলার মৃত্যু
দুই পার্বত্যজেলায় উত্তেজনা
পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি/ নিজস্ব সংবাদদাতা, খাগড়াছড়ি ও রাঙ্গামাটি, ১৪ ডিসেম্বর ॥ ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলচালককে খুনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে খাগড়াছড়ি ও রাঙ্গামাটিতে পাহাড়ী ও বাঙালীদের মাঝে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত মোটরসাইকেলচালক আব্দুস সাত্তার (৩০) ও অপর উপজাতীয় মহিলা কিরন নীলা চাকমা (৪৬) নিহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সেনা, পুলিশ ও বেসামরিক প্রশাসন সর্বাত্মক ব্যবস্থা নিয়েছে। বাঘাইছড়ি এলাকায় সংঘাতের আশঙ্কায় প্রশাসন অনির্দিষ্টকালের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করেছে।
মোটরসাইকেলচালক নিহত আবদুস সাত্তারের গ্রামের বাড়ি কবাখালি এলাকার ও রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করলেও পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। খাগড়াছড়ি সহকারী পুলিশ সুপার আল আসাদ মোঃ মাহফুজুল ইসলাম জানান, সেনাবাহিনীর দীঘিনালা জোন, পুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের মোতায়ন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। বর্তমানে ঘটনাস্থল ও আশপাশের এলাকায় স্বাভাবিক পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে কোন মহল উস্কানিমূলক কর্মকা- চালালে তাদের বিরম্নদ্ধে কঠোর আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদশর্ী সূত্রে ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ঘটনাস্থল এলাকা রাঙ্গামাটির জেলাধীন বাঘাইছড়ি উপজেলার রূপকার ইউনিয়নের পতেঙ্গাছড়া গ্রামে মোটরসাইকেলচালক আবদু সাত্তারকে ভাড়ায় নিয়ে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে হত্যা করে। নিহত সাত্তারের দেহে বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাতের চিহ্নহ্নহ্ন রয়েছে। এ ঘটনার রেশ ধরে বুধবার সকালে দীঘিনালার কবাখালি এলাকায় উত্তেজিত বাঙালীরা একটি চাঁদের গাড়িতে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে ইটের আঘাতে এক উপজাতীয় মহিলার মৃতু্য হয়। এ ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। প্রশাসনিক হসত্মক্ষেপে বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।
জানা গেছে, মঙ্গলবার রাতে দুই উপজাতীয় যুবক সাত্তারকে দীঘিনালার কবাখালি থেকে মোটরসাইকেল ভাড়ায় বাঘাইছড়ি উপজেলার পতেঙ্গাছড়ায় নিয়ে যায়। রাতেই উপজাতীয় সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যা করে তার মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ঘটনার পর হত্যাকা-ে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। সংশিস্নষ্ট থানায় মামলাও হয়নি।