মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০১১, ১৫ অগ্রহায়ন ১৪১৮
সেনা মোতায়েনের প্রয়োজন নেই, ইভিএম থাকবে অনিয়মে প্রার্থিতা বাতিল
কুসিক নির্বাচন নিয়ে মতবিনিময়সভায় সাখাওয়াত ॥ আ'লীগের প্রার্থী ঘোষণা আজ
নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিল্লা, ২৮ নবেম্বর ॥ সোমবার দুপুরে কুমিলস্না জেলা পরিষদ মিলনায়তনে সম্ভাব্য প্রার্থী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে মতবিনিময়সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এম সাখাওয়াত হোসেন বলেছেন, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সেনাবাহিনীর দরকার নেই। নির্বাচনে মোতায়েন থাকবে অন্তত ৩ হাজার র্যাব পুলিশ, বিজিবি ও আনসার। তিনি প্রাথর্ীদের আচরণবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে বলেন এতে কোন প্রার্থী আচরণবিধি লঙ্ঘন করলে প্রার্থিতা বাতিল করা হবে। তিনি আরও বলেন, এখন ভোটাররা অনেক সচেতন, তারা সিদ্ধান্ত নিতে ভুল করে না। এর আগে বেলা ১১টায় কুমিলস্না জেলা প্রশাসক সম্মেলন কৰে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের সঙ্গে যখন কমিশনার সাখাওয়াতের বৈঠক চলছিল তখন মহানগরীতে বিএনপির উদ্যোগে চলছিল প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিৰোভ।
জানা যায়, সোমবার বেলা ১১টায় কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কৰে নির্বাচন সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা রৰাকারী বাহিনীর সঙ্গে বৈঠক করেন ইসি কমিশনার। পৃথকভাবে অনুষ্ঠিত ওই দুটি সভায় ব্রিগেডিয়ার সাখাওয়াত সুষ্ঠু ও শানত্মিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করার লৰ্যে সকল ভয়ভীতি উপেৰা করে নিরপেৰভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, নির্বাচনের পূর্বে সকল অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের পাশাপাশি সকলের বৈধ অস্ত্রও জমা দিতে হবে। তিনি আরও বলেন, প্রতিটি কেন্দ্র এলাকায় ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সিসিটিভি ক্যামেরা দিয়ে পরিস্থিতি পর্যবেৰণ করা হবে। কেন্দ্র এলাকায় রাখা হবে ডগ স্কোয়ার্ড। তিনি বলেন প্রাথর্ীদের খরচের বিষয়ে দুদক, ইসি, এনবিআর তদনত্ম করবে। তিনি আরও বলেন, ইভিএম বিষয়ে কেউ এর কারচুপি প্রমাণ করতে পারলে ইভিএম ছাড়াই নির্বাচন করা হবে। ওই দুটি সভায় বক্তব্য রাখেন কুমিলস্না সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ, জেলা প্রশাসক মোঃ রেজাউল আহসান, জেলা রিটার্নিং অফিসার আবদুল বাতেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ড. আবদুল মান্নান, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী তাজুল ইসলাম প্রধান, পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান, বিজিবির কুমিলস্নার সেক্টর কমান্ডার কর্নেল মোঃ রোসত্মম আলী, কুমিলস্না র্যাব-১১-এর কোম্পানি কমান্ডার স্কোয়াডন লিডার মোসত্মফা কামাল, সভায় জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাসহ নির্বাচন ও আইন প্রয়োগকারী বিভিন্ন সংস্থার পদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। জেলা পরিষদ সম্মেলন কৰে আয়োজিত সভায় সম্ভাব্য প্রাথর্ীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আ'লীগের মেয়র প্রাথর্ী, জেলা আ'লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যৰ আফজল খান, জাপার মেয়র প্রাথর্ী ও দলের কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান এয়ার আহমেদ সেলিম, মেজর (অব) মামুনুর রশিদ, সাবেক ভিপি নূর-উর-রহমান মাহমুদ তানিম, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান মিঠু, শহর আ'লীগের সাধারণ সম্পাদক কাসেম রৌশন। কাউন্সিলর প্রাথর্ীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গোলাম জিলানী, শাহরিয়ার আক্তার, পাপন পাল, নাসরিন সুলতানা রম্ননা, সেলিনা আক্তার, মোহাম্মদ আলী কিসমত। ওই সভায় উপস্থিত কোন মেয়র এবং কাউন্সিলর ইভিএমের বিরোধিতা না করলে এর বেশি প্রচারণা দাবি করেছে। মেয়র প্রার্থী মেজর (অব) মামুনুর রশিদ সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে কুমিলস্না ময়নামতি সেনানিবাসে প্রয়োজনীয় সংখ্যক 'সেনাবাহিনী প্রস্তুত' রাখার দাবি জানালে ইসি কমিশনার সাখাওয়াত তাও নাকচ করে দেন।
আ'লীগের প্রার্থী ঘোষণা আজ ॥ কুসিক নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হওয়ার পর ক্রমেই পাল্টে যাচ্ছে কুমিলস্না মহানগরীর দৃশ্যপট। আজ ২৯ নবেম্বর কুমিলস্নার আ'লীগ ও এর অঙ্গ-সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের ঢাকায় তলব করা হয়েছে। আনুষ্ঠানিকভাবে কুসিক নির্বাচনে আ'লীগের প্রাথর্ী সমর্থনের বিষয়ে ঘোষণা দেয়া হবে।
জানা যায়, মেয়র পদে আ'লীগের এ্যাডভোকেট আফজল খান দলীয় সমর্থনের বিষয়ে দলের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর নিকট থেকে গত ২০ নবেম্বর ইতিবাচক ইঙ্গিত এবং গত ২৪ নবেম্বর সংসদ ভবনে কুমিলস্নার আ'লীগ দলীয় সংসদ সদস্যদের উপস্থিতিতে তার সমর্থনের বিষয়ে ইতিবাচক সিদ্ধানত্ম হলেও আজ ২৯ নবেম্বর জেলা আ'লীগ ও এর অঙ্গ-সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে ঢাকায় বৈঠক শেষে আনুষ্ঠানিকভাবেই দলীয় প্রার্থী সমর্থনের বিষয়টি জানানো হবে বলে জানা গেছে।