মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ২৩ নভেম্বর ২০১১, ৯ অগ্রহায়ন ১৪১৮
আমন সংগ্রহ নিয়ে অনিশ্চয়তা
স্টাফ রিপোর্টার ॥ সরকারের মজুদের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় এবার আমন সংগ্রহ নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। অভ্যন্তরীণ বাজার থেকে চাল কেনা হবে কি না, এক দফা আলোচনা করেও সে সিদ্ধানত্ম নিতে পারেনি সরকার। বাজার পর্যবেক্ষণের পর এই লক্ষে কয়েক দিনের মধ্যে আবার বৈঠকে বসবে খাদ্য পরিধারণ কমিটি। কমিটির আগামী বৈঠকে এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এর মধ্যে আমন ধান কাটার পরিমাণ আরও বৃদ্ধি এবং বাজারে চালের মূল্যে তার প্রভাব পর্যবেৰণ করে সরকার শীঘ্রই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। বৈঠকে দেশের সার্বিক খাদ্য নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হয়।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, খাদ্যশস্যের বর্তমান অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক মূল্য, সরকারী সংগ্রহ অবস্থা, সরকারী-বেসরকারী আমদানি পরিস্থিতি, সরকারী খাদ্য বিতরণ অবস্থা ইত্যাদি বিষয়ে পর্যালোচনা করা হয়। সভায় জানানো হয়, বর্তমানে সরকারের গুদামে প্রায় ১৫ লাখ টন খাদ্যশস্য মজুত রয়েছে। পাইপ লাইনসহ এ মজুদের পরিমাণ প্রায় ১৯ লাখ টন। এ পরিস্থিতিতে দু'লাখ টনের মতো খাদ্য সংগ্রহ করা যাবে। আমন মৌসুমে সাধারণত কম পরিমাণ চাল সংগ্রহ করা হয়। বিগত বছরে আমন মৌসূমে চাল সংগ্রহ করা হয়নি। আমন ধান তুলনামূলকভাবে শুকনা থাকে বলে কৃষক নিজ গুদামে মজুত করে থাকে। বৈঠকে খোলা বাজারে চাল-আটা বিক্রি কার্যক্রম অব্যাহত রাখা এবং চাল ও আটার মূল্য কেজি প্রতি পূর্বনির্ধারিত ২৪ টাকা ও ২০ টাকা বহাল রাখার সুপারিশ করা হয়। একইসঙ্গে সুলভমূল্য কার্ডের মাধ্যমে চাল বিক্রিসহ অন্যান্য সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচী অব্যাহত রাখারও সুপারিশ করা হয়।