মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
রবিবার, ৯ অক্টোবর ২০১১, ২৪ আশ্বিন ১৪১৮
পুত্রের বদলে পিতাকে দোররা, সালিশ বৈঠকে জরিমানা
স্বামী-স্ত্রীর বিবাদ
নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ, ৮ অক্টোবর ॥ নওগাঁর মান্দায় সালিশ বৈঠকে পুত্রের পরিবর্তে পিতাকে শাসত্মি দিয়ে জরিমানা আদায় করেছে মাতবররা। পুত্র সালিশে হাজির না হওয়ায় পিতাকে এই শাসত্মি দেয়া হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের চকরামানন্দ গ্রামে। এ ঘটনায় শনিবার নির্যাতনের শিকার ওই ব্যক্তি বাদী হয়ে ৫ মাতবরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলার বাদী আবু বকর জানান, তাঁর পুত্র আনিছুর রহমানের সঙ্গে প্রতিবেশী খয়রম্নল ইসলামের মেয়ে খাদিজার প্রায় ৩ বছর আগে বিয়ে হয়। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় পুত্র আনিছুর রহমান প্রায় দুই মাস আগে খাদিজাকে তালাক দেয়। সম্প্রতি তারা আবারও ঘর সংসার বাঁধার চেষ্টা করে। এ ঘটনা প্রকাশ হয়ে পড়লে গ্রামের মাতবর আব্দুস সোবহানের নেতৃত্বে শুক্রবার রাতে ওমর আলীর বাড়িতে সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয়। সালিশে গ্রামের মাতবর সিরাজ উদ্দিন সভাপতিত্ব করেন। সালিশে আনিছুর রহমান হাজির না হওয়ায় তার পরিবর্তে পিতা আবু বকরকে ৫০ ঘা দোররা ও ১৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। মাতবর আব্দুস সোবহান দোররা মেরে সালিশের এ রায় কার্যকর করেন। আদায়কৃত জরিমানার টাকা সালিশের সভাপতি সিরাজ উদ্দিনের কাছে জমা রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় আবু বকর বাদী হয়ে আব্দুস সোবহান, সিরাজ উদ্দিন ও স্বপনসহ ৫ মাতবরের বিরম্নদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
এ বিষয়ে সালিশের মাতবর আব্দুস সোবহান জানান, তালাক দেয়া স্ত্রীর সঙ্গে মেলামেশার চেষ্টা করায় গ্রাম্য সালিশে এ বিচার করা হয়েছে। পুত্রের পরিবর্তে পিতাকে শাসত্মি দেয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পুত্র আনিছুর রহমান সালিশে হাজির না হওয়ায় পিতাকে এ শাসত্মি দেয়া হয়েছে। কাঁশোপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ইয়াদ আলী ম-ল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, গ্রাম্য সালিশে বিচারের নামে এ ধরনের ঘটনা অমানবিক। থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুলস্নাহেল বাকী জানান, অভিযোগ পাবার পর ঘটনা তদনত্মে উপপরিদর্শক সিরাজুল ইসলামকে তাৎৰণিকভাবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।