মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
রবিবার, ৯ অক্টোবর ২০১১, ২৪ আশ্বিন ১৪১৮
জিয়ার বিএনপি ফেরত আসুক ॥ বি চৌধুরী
স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, বিকল্পধারা চারদলীয় জোটের রোডমার্চে অংশ নেবে। এ জন্য রোডমার্চ চলাকালে পথে পথে আমাদের নেতাকর্মীরা ব্যানার নিয়ে এর প্রতি সমর্থন জানাবে। তিনি বলেন, আমরা চাই জিয়াউর রহমানের বিএনপি ফেরত আসুক। আর এ জন্য আমাদের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। শুক্রবার রাতে রাজধানীর কুড়িল বিশ্ব রোডে বিকল্পধারার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত দলের নির্বাহী কমিটির বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন। দেশের অর্থনীতির দুরবস্থা নিয়ে সরকারকে শ্বেতপত্র প্রকাশের আহ্বান জানান তিনি।
চারদলীয় জোটের রোডমার্চে বিএনপির অবস্থান কি হবে তা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে বি চৌধুরী বলেন, আমরা বিএনপির সঙ্গে রাজনৈতিক আলোচনায় ছিলাম এবং আছি। এ জন্য লিয়াজোঁ কমিটি গঠন করা হবে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রশ্নে আমরা ১০ অক্টোবর বা পরে অটল থাকব। বর্তমান সরকারের আচরণ গণতান্ত্রিক নয় বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, তারা সুপ্রীমকোর্টের যে রায়ের কথা বলে সেখানে দুটি অংশ ছিল। রায়ে স্পষ্টভাবেই বলা আছে পর পর আরও দুটি নির্বাচন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে হতে পারে। তাই একটি অংশকে তারা রায় বলে মেনে নেবে আর অন্য অংশ মেনে নেবে না তা হতে পারে না। তারা আজ পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ রায়টি প্রকাশ করেনি।
বি চৌধুরী বলেন, দেশের অর্থনীতি ভাল নয়। অথচ দেশের অর্থনৈতিক ব্যাপারে সরকার ধোঁকাবাজি করছে। মনে হয় না সরকার দেশ নিয়ে কিছু ভাবছে বরং সরকার লুকোচুরি করছে। আর পদ্মা সেতুর দুর্নীতির ব্যাপারে এখন আর যাচাই করার কিছু নেই।
বি চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব) আবদুল মান্নান, যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী, প্রেসিডিয়াম সদস্য নূরম্নল আমিন বেপারী, ডা. আবু মোজাফ্ফর আহমেদ, আবদুর রহিম, সহসভাপতি মোঃ ইউসুফ, শাহ আহমেদ বাদল প্রমুখ।
মেজর মান্নান বলেন, আমরা দুর্নীতিমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ চেয়েছিলাম। এখনও আমরা সেই অবস্থানেই আছি। বর্তমান সরকার দেশের মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি। গত ৪০ বছরে দেশ এমন ভয়াবহ অবস্থায় পড়েনি। এ সরকার তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিল করে দেশে একটি বড় সমস্যা সৃষ্টি করেছে।
মাহী বি চৌধুরী বলেন, দেশ এখন ক্রানত্মিকাল অতিক্রম করছে। তিনি বলেন, বিএনপির ব্যর্থতার কারণেই বিকল্পধারা গঠন করা হয়েছিল। তিনি বলেন, ভুল স্বীকার করা দোষের কিছু নয়। তাই বিএনপির স্পষ্ট ঘোষণা থাকতে হবে ভবিষ্যতে তারা ক্ষমতায় গেলে কোন প্রকার দুর্নীতিকে আশ্রয় প্রশ্রয় দেবে না।