মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
রবিবার, ৯ অক্টোবর ২০১১, ২৪ আশ্বিন ১৪১৮
গাইবান্ধায় বিএনপির দু'গ্রুপে সংঘর্ষ, আহত ৫
নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা, ৮ অক্টোবর ॥ পলাশবাড়ী উপজেলা সদরে শনিবার বিকেলে স্থানীয় মহিলা কলেজ চত্বরে পৌর বিএনপির পরিচিতি সভাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। এ সময় সভামঞ্চ, চেয়ার, টেবিল ও মাইক ভাংচুর করা হয়। সম্প্রতি থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদকে আহ্বায়ক করে পৌর বিএনপির একটি কমিটি গঠন করে কেন্দ্রের অনুমোদন নিয়ে আসা হয়। কিন্তু থানা বিএনপির অগোচরে ওই কমিটি গঠন হওয়ায় থানা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল হক জুয়েলের নেতৃত্বাধীন অপর একটি গ্রুপ এর বিরোধিতা করে এবং তারা ওই কমিটি বাতিলের দাবি জানান। এরপর জেলা বিএনপির সভাপতি আনিসুজ্জামান খান বাবুর স্বাক্ষরে গত সপ্তাহে জিয়াউল হক জুয়েলকে আহ্বায়ক করে আরেকটি কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়। শনিবার পলাশবাড়ী মহিলা কলেজ চত্বরে জুয়েলের নেতৃত্বাধীন ওই কমিটি তাদের পরিচিতি সভার আয়োজন করে। এতে থানা বিএনপির সভাপতি শাহ আলম সরকারের সমর্থক আবুল কালাম নেতৃত্বাধীন কমিটির নেতাকর্মীরা শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে পরিচিতি সভাস্থলে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। তারা সভামঞ্চ এবং আসবাবপত্র ছাড়াও একটি জিপগাড়ি ও একটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করে। এ সময় জুয়েল সমর্থক নেতাকর্মীরা আত্মরক্ষার্থে পালিয়ে যায়। ওই ঘটনায় তাদের সমর্থক যুগ্ম আহ্বায়ক সাদেকুল ইসলাম রম্নবেল, যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আজাদুল ইসলাম, মতিয়ার রহমান, সাইফুল আলমসহ ৫ নেতাকর্মী আহত হয়। ওই ঘটনার পর বিএনপির উভয়গ্রুপ উপজেলা সদরে ধাওয়া পাল্টাধাওয়ার ঘটনায় জড়িয়ে পড়ে। পরে আবুল কালাম সমর্থকরা জুয়েল পরিবারের একটি মার্কেটে হামলা চালিয়ে ৩টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর করে।