মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ১৬ মে ২০১১, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪১৮
সিএনজি চালকের সাহসিকতায় রক্ষা পেল এইচএসসি পরীক্ষার্থী রুপন্তী
অপহরণের চেষ্টা
নিজস্ব সংবাদদাতা, গফরগাঁও, ১৫ মে ॥ প্রত্যক্ষদর্শী সিএনজি চালকের সাহসিকতায় অপহরণকারীদের হাত থেকে রক্ষা পেল এক এইচএসসি পরীক্ষার্থী। ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে রবিবার দুপুরে। এ ঘটনায় পুলিশ অপহরণের কাজে ব্যবহৃত মাইক্রোবাস ও চালককে আটক করেছে।
উপজেলার আলতাফ গোলন্দাজ ডিগ্রী কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী (জান্নাতে রুমান রুপন্তী-১৮) পরীক্ষা শেষে উপজেলা সদর থেকে রিক্সাযোগে মায়ের সঙ্গে তেরশ্রী গ্রামের বাড়ি ফেরার পথে গফরগাঁও- কান্দিপাড়া সড়কের তেরশ্রী এলাকায় শেউলি ব্রিজের কাছে পিছনদিক থেকে একটি মাইক্রো এসে রিক্সায় ধাক্কা দেয়। রুপন্তী ও তার মা রিক্সা থেকে পড়ে গেলে তিলক, চন্দন, রনি, সাদ্দামের নেতৃত্বে ৫/৬ জন সশস্ত্র যুবক তার মাকে লাথি মেরে রাস্তার পাশে ক্ষেতে ফেলে দিয়ে রম্নপনত্মীকে টেনেহিঁচড়ে মাইক্রোবাসে তুলে নেয়। রুপন্তী ও তার মার চিৎকারে কাছাকাছি থাকা সিএনজি চালক বাছির ম-ল মাইক্রোবাসের পিছু নেয়। সিএনজি চালক বাছির ম-ল (২৪) জানায়, যখন সে মাইক্রোবাসের পিছু নেয় তখন মাইক্রোবাস থেকে অস্ত্র উঁচিয়ে যুবকরা তাকে বার বার গুলি করার হুমকি দিচ্ছিল। মাইক্রোবাসের সঙ্গে যখন সিএনজি চালক গতিতে পেরে উঠছিল না তখন উপজেলার খুরশিদ মহল ব্রিজের কাছে থানার পুলিশকে দেখতে পেয়ে ঘটনাটি অবহিত করলে এসআই ওয়াহেদুজ্জামানের নেতৃত্বে থানা পুলিশ মাইক্রোবাসের পিছু নিলে ৫/৬ কিলোমিটার দূরে খান বাহাদুর ইসমাইল রোডের লামকাইন এলাকায় আমজাদ চেয়ারম্যানের বাড়ির কাছে রুপন্তীকে ফেলে রেখে অপহরণকারীরা পালিয়ে যায়। এ সময় পুলিশ রূপন্তীকে উদ্ধার করে এবং অপহরণের কাজে ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটি এবং চালক মাহাবুবকে (২৪) আটক করে থানায় নিয়ে আসে। মাইক্রো চালক মাহাবুব জানায়, জয়দেবপুর যাওয়ার কথা বলে তিলক মাইক্রোবাসটি ভাড়া করে। রম্নপনত্মীকে মাইক্রোতে তুলে তিলক ও চন্দন আমার পিঠে রিভলবার ও ছুরি ঠেকিয়ে কিশোরগঞ্জের দিকে গাড়ি চালাতে বাধ্য করছিল। তেরশ্রী গ্রামের আজাহার (৩০) জানায়, কান্দিপাড়া এলাকার তিলক, চন্দন ও রনির বিরম্নদ্ধে মেয়েদের উত্ত্যক্ত করার অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। এসআই ওয়াহেদুজ্জামান জানায়, একটি মামলার তদনত্ম কাজে আমরা খুরশিদ মহল ব্রিজ এলাকায় অবস্থান করছিলাম। পুলিশ ও এলাকাবাসীর ধাওয়ার মুখে অপহরণকারীরা রম্নপনত্মীকে ফেলে পালিয়ে যায়। এদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। রুপন্তীর মা শরীফা খাতুন বাদী হয়ে এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেছে।