মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ২ ডিসেম্বর ২০০৯, ১৮ অগ্রহায়ন ১৪১৬
খান আতা স্মরণে সভা, কাল বাংলা একাডেমীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী
সংস্কৃতি সংবাদ
স্টাফ রিপোর্টার বাংলা চলচ্চিত্রের উজ্জ্বলতম নক্ষত্র বহুমাত্রিক প্রতিভা পরিচালক খান আতাউর রহমানের মৃতু্যবার্ষিকী পালিত হলো মঙ্গলবার। এ উপলক্ষে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির উদ্যোগে নানা কর্মসূচী হাতে নেয়া হয়। এদিন সকালে চলচ্চিত্র পরিচালক, শিল্পী ও খান আতা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে একটি দল মানিকগঞ্জের উদ্দেশে রওনা হয়। সেখানে খান আতার কবরে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানায় তারা। মৃতু্যবার্ষিকী উপলক্ষে সেখানে আয়োজিত স্মরণসভায় বক্তৃতা করেন পরিচালক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম কিরন, নায়ক ফারুক, নূর মোহাম্মদ মনির, এমএ আউয়াল, সাইদুর রহমান সাইদ, শাহ আলম চৌধুরী, আলম কোরাইশী, সিডি জামান প্রমুখ। মরহুম পরিচালকের পরিবারের পক্ষে ছেলে কণ্ঠশিল্পী আগুন, মেয়ে রোমানা ইসলাম, খান আবিদুর রহমান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা বলেন, খান আতাউর রহমান ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভার অনন্য নজির। কাজের প্রতি নিবিষ্ট এ মানুষটি যখন যেখানে হাত দিয়েছেন, সেখানেই স্বর্ণ ফলেছে। বাংলা চলচ্চিত্রকে সমৃদ্ধ করতে প্রচেষ্টার অন্ত ছিল না তাঁর। সেই ষাটের দশক থেকে শুরু করে নব্বইয়ের দশক পর্যন্ত খান আতার বিভিন্ন নির্মাণের কথা উল্লেখ করে তাঁরা বলেন, 'সুজন সখি', 'আবার তোরা মানুষ হ', 'এখনো অনেক রাত', 'সুখ দুঃখ', 'মনের মতো বউ', 'পরশ পাথর' ইত্যাদি ছবি সৃজনশীলতার পরিচয় বহন করে। শুধু পরিচালক হিসেবে নয়, একজন শক্তিমান অভিনেতা, গীতিকার, সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে খান আতাউর রহমানের ভূমিকারও প্রশংসা করেন বক্তারা।
এদিকে বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়ক ফারুককে সভাপতি করে এদিন গঠন করা হয় 'খান আতা স্মৃতি সংসদ।' সংগঠনের সদস্য সচিব সিডি জামান। আগামী ১১ ডিসেম্বর খান আতাউর রহমানের জন্মদিনে পূর্ণাঙ্গ কমিটির নাম ঘোষণা করে কাজ শুরু করবে নতুন এ সংগঠন।
আদি সুরে লালন গীতি রবিবার
'মানুষ ভজলে সোনার মানুষ হবি, মানুষ ছাড়া ক্ষ্যাপারে তুই মূল হারাবি'_লালনের এ অমৃত বাণীকে স্লোগান হিসেবে নিয়ে কাজ করে চলা একদল বাউল আদি সুরে লালনের গান গাইতে জড়ো হচ্ছেন। রবিবার এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে লালন সংসদ নামের একটি সংগঠন। কাজী বশির মিলনায়তনে বেলা ৩টায় শুরু হবে অনুষ্ঠান। প্রথম পর্বে 'ভাব বিনিময়' শীর্ষক বিশেষ আয়োজনে অংশ নেবেন সাধক শ্রেণীর বাউলরা। বিকেল ৫টা থেকে শুরু হবে লালন গীতির আসর। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন কাঙ্গালিনী সুফিয়া, মান সাই, লতিফ শাহ, সাধনা, তৌহিদ সরকার, জাহাঙ্গীর, সমীর বাউলসহ আরও অনেকে।
বাংলা একাডেমীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আগামীকাল
বাঙালী জাতির মেধা ও মননের প্রতীক বাংলা একাডেমীর ৫৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আগামীকাল বৃহস্পতিবার। এ উপলক্ষে একাডেমী সকাল ১০টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পু্#৬৩৭৪৩;স্তবক অর্পণ এবং বিকাল ৪টায় স্মারক বক্তৃতা ও সঙ্গীতানুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।
স্মারক বক্তৃতা পর্বে সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমীর সভাপতি ও জাতীয় অধ্যাপক কবীর চৌধুরী। বক্তৃতায় বিষয় 'রঙ্গপুর সাহিত্য পরিষদ : বাংলাদেশের সাহিত্য চর্চার প্রথম বাতিঘর।' বক্তৃতা দেবেন ড. মুহম্মদ মনিরুজ্জামান। স্বাগত ভাষণ দেবেন একাডেমীর মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান। সঙ্গীতানুষ্ঠান পর্বে গান গাইবেন শিল্পী পাপিয়া সারোয়ার। অনুষ্ঠানটি হবে একাডেমীর সেমিনার কক্ষে।
আদিবাসীদের সাংস্কৃতিক উৎসব শুরু আগামীকাল
'বৈচিত্র্যের বিকাশেই ঐক্যের বন্ধন' স্লোগান নিয়ে তিন দিনব্যাপী সাংস্কৃতিক উৎসব শুরু হচ্ছে আগামীকাল বৃহস্পতিবার। উৎসবের শিরোনাম 'ডাইভারসিটি কালচারাল ফেস্টিভ্যাল '০৯।' বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত এ উৎসবে থাকছে বিভিন্ন আদিবাসী জাতি গোষ্ঠীর হাতে তৈরি হস্তশিল্প সামগ্রীর প্রদর্শনী ও বিক্রয় এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
হস্তশিল্প সামগ্রী প্রদর্শনীয় উদ্বোধনের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় শুরু হবে এ অনুষ্ঠান।
তিন দিনব্যাপী এই প্রদর্শনী চলবে আগামী শনিবার পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা। আর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার, সন্ধ্যা ছ'টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। এতে থাকবে আদিবাসীদের সমৃদ্ধ সংস্কৃতির নানা আয়োজন।
নেত্রকোনার বারহাট্টায় চিত্রকর্ম প্রদর্শনী
জেলার বারহাট্টা উপজেলার মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্থানীয় চিত্র শিল্পীদের তিন দিনব্যাপী চিত্রকর্ম প্রদর্শনী শেষ হয়েছে মঙ্গলবার। স্থানীয় চিত্র শিল্পীদের উদ্যোগে প্রথম বারের মতো আয়োজিত এই প্রদর্শনীতে কবি নির্মলেন্দু গুণ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আজহারুল ইসলাম শেখ, দেবাশীষ পাল, পিন্টু দেব, সামছুন্নাহার নাসরিন, মাহমুদুল হাসান খান, সুব্রত চৌধুরী, ফাইজুন্নাহার তাসরিন, মাইদুল ইসলাম খানসহ ২২ জন শিল্পীর ৩২টি শিল্পকর্ম প্রদর্শিত হয়। পেনসিল, জল রং, তেল রং, এ্যাক্রিলিক, টেপেস্ট্রি, উডকাট, পাতিনা, পোড়ামাটি ও গ্লাস পেইন্টিংসহ বিভিন্ন মাধ্যমে শিল্পীরা তাঁদের শিল্প বৈচিত্র্য তুলে ধরেন।
গত রবিবার এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেছিলেন সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন। প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক নারী-পুরুষ এসেছেন এই চিত্রকর্ম দেখতে।