মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০১৩, ১৪ চৈত্র ১৪১৯
আসছে এক নতুন ইমন
ইমন। একজন স্বপ্নবাজ তরুণ। স্বপ্ন দেখতে ও দেখাতে ভালোবাসেন। আর লক্ষ্যটা যদি হয় বড় কিছুর, মহৎ কিছুর, সুন্দর কিছুর, তো স্বপ্ন তো দেখতেই হবে। স্বপ্ন দেখবার জন্য সাহসেরও দরকার আছে। হ্যাঁ, নায়ক ইমনের আছে সাহস ইস্পাতদৃঢ়। মডেলিং দিয়ে শুরু। আজ ঢালিউডের অন্যতম জনপ্রিয় নায়ক। সিনেমার রঙিন দুনিয়ায় যেতে চান বহুদূর।
রঙিন দুনিয়ায় যাত্রা শুরু
‘আমি মডেলিং করতাম। ইবনে হাসান খানের কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি। তিনি চ্যানেল আইয়ে কাজ করতেন। তিনিই একদিন আমাকে নায়ক হবার কথা বললেন। আমার ভেতরের স্বপ্নটাকে জাগিয়ে তুললেন। দারুচিনি দ্বীপ’এ অভিনয় করে সাহস পেলাম, আত্মবিশ্বাস পেলাম। এরপর ২০০৯ সালে ‘এক বুক ভালোবাসা’ সিনেমা। এই ছবির পরিচালক ইস্পাহানী আরিফ জাহান আমাকে খুবই সাহায্য করলেন। আর এই পর্যন্ত ফিল্ম ইন্ড্রাস্টির প্রায় সবাই আমাকে সহযোগিতা করছেন।’
বর্তমানে ইমনের হাতে বেশ কিছু সিনেমা আছে, এর মধ্যে কমার্শিয়াল সিনেমাই বেশি, এই বিষয়টা কিভাবে মূল্যায়ন করবেন? উত্তরটা ইমনের ঠোঁটের কিনারায়ই ছিল, ‘আমি গণমানুষের নায়ক হতে চাই। সব শ্রেণীর দর্শক আমার সিনেমা দেখুক তা আমি চাই। সামনে বেশ কিছু সিনেমা আসছে সেগুলোয় আমাকে নতুনভাবে পাবেন সবাই। খালেদ মাহমুদ মিঠুর ‘জোনাকির আলো’ সিনেমার ডাবিং শেষ। এই পরিচালকের ‘গহিনের শব্দ’ ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে দেশে বিদেশে। বর্তমান ছবিটি বেশ প্রশংসিত হবে। আগেই বিস্তারিত কিছু বলছি না, মনে রাখার মতো কিছু ছবি আসছে আমার।’
‘আমি অভিনয় শিখেছি, পাঁচ বছর ধরে কাজ করছি। আজীবন আমি অভিনয় শিখে যেতে চাই আর করে যেতে চাই। ইচ্ছা আছে ফিল্ম এ্যান্ড মিডিয়াতে দেশের বাইরে গিয়ে পড়াশোনা করব।’ বর্তমানে ইমন একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিএ পড়ছেন।
আজকের জনপ্রিয় নায়ক ইমনের সবচেয়ে প্রিয় বন্ধু তার বাবা মুহম্মদ আব্দুল বাসেত মিয়া। নায়কের নায়ক। ‘তিনি ছোটবেলা থেকে আজ পর্যন্ত আমাকে একজন সৎ মানুষ হতে শিখিয়েছেন। দেশপ্রেম, মুক্তিযুদ্ধ, আমার রঙিন স্বপ্ন তিনিই শিখিয়েছেন। আমার সিনেমা দেখে দেখে তিনি উৎসাহ আর উপদেশ দুটোই দেন। বিপদে আমার পাশে থাকেন। আপনার তো অসংখ্য ভক্ত, কতো কতো মানুষের প্রিয় নায়ক আপনি। সিনেমা জগতে আপনার প্রিয় নায়ক কে বা কারা? ইমন একটু ভাবলেন, মনে হয় কাকে রেখে কাকে বলবেন ! বললেন, ‘হলিউডে টম ক্রুজ, ভিনসেন্ট ক্যাসেল, বলিউডে আমির খান আর দেশে প্রয়াত শালমান শাহ্, জাফর ইকবাল ও অনেকে। পাঁচ বছর ধরে অভিনয় করছেন। জনপ্রিয়তা পেয়েছেন আকাশ ছোঁয়া, ভালো ভালো সিনেমায় বোদ্ধা মহলের প্রশংসা পেয়েছেন, সামগ্রিক দিক বিবেচনা করে আপনার ক্যারিয়ার আর ঢাকার সিনেমা জগতের কথা কিছু বলুন। ‘এখন আমি আমাদের সিনেমা শিল্প নিয়ে খুবই আশাবাদী। আমার অভিনীত গহিনের শব্দ, লালটিপ, দেশে-বিদেশে ব্যাপক প্রশংসা ও সম্মান এনেছে। আমাদের বর্তমান নির্মাতারা অত্যন্ত মেধাবী, পরিশ্রমী ও প্রতিশ্রুতিশীল। খুব বেশিদিন নাই আমরা সারাবিশ্বে হইচই ফেলে দেব। অবশ্য এজন্য একটু সময় দরকার।’
‘এমন যদি হতো যে, আমাদের সিনেমা এডিট করতে দেশের বাইরে যেতে হচ্ছে না, আমাদের বিএফডিসি’তে দামীদামী ক্যামেরা ও শূটিং সামগ্রির অভাব নেই, সিনেমা হলগুলোর ব্যাপক আধুনিকায়ন হয়েছে, অভিনয় শিল্পীসহ অনান্য শিল্পীদের সিআইপি (কালচারাল ইমপর্টেন্ট পারসন) সম্মাননা দেয়া হয়েছে, অশ্লীলতাহীন জীবনমুখী সিনেমার জয়জয়কার হচ্ছে- তাহলে কী একটা চমৎকার অর্জনই না হতো !’
‘নাটক করছি না এখন। প্রতি বছর আটটি কমার্শিয়াল ও একটি সিরিয়াস ঘরানার ছবিতে কাজ করতে চাই। সবচেয়ে বড় কথা হল, সুযোগ না পেলে তো সবই গেল ! কিছু করতে হলে স্কোপটা গুরুত্বপূর্ণ।’
বর্তমানে ইমন স্বপন আহমেদের ‘পরবাসিনী, চাষী নজরুল ইসলামের ‘ভুল যদি হয়’ ও ‘কোথায় আছো কেমন আছো, তন্ময় তাসনের ‘পদ্মপাতার জল’ আহমেদ আজিম টিটুর ‘পায়রা’ রাজু আহমেদের ‘তবু তুমি আমার’ মোস্তাফিজুর রহমান বাবুর ‘অবুঝ ভালোবাসা ও ‘মায়ের মমতা’, রফিক সিকদারের ‘পদ্মাপাড়ের পার্বতী’ সেলিম রেজার ‘না বলা ভালোবাসা’ সিনেমার শূটিং করছেন।
এখন পর্যন্ত মুক্তি পেয়েছে ইমনের ‘এক বুক ভালোবাসা’, ’গহিনের শব্দ’, ’লালটিপ’, ‘পাঁচ টাকার প্রেম’, ‘রাস্তার ছেলে’, ‘পিরিতের আগুন জ্বলে দিগুন’, ‘সবাইতো ভালোবাসা চায়’, ‘তোমার জন্য মরতে পারি,’ ‘মায়ের জন্য পাগল’, ‘এক সঙ্গে বাঁচব এক সঙ্গে মরব,’ ‘গার্মেন্টস কন্যা’, ‘দারুচিনি দ্বীপ’ ও ‘যেমন জামাই তেমন বউ’ ছবিগুলো।
শুধু সিনেমাই নয় সেই সঙ্গে ইমন কাজ করছেন বিজ্ঞাপনেও। এর মধ্যে করে ফেলেছেন তিব্বত, বাংলালিং, ইউরো কোলা, ডাবল কোলা, পারটেক্স গ্রুপ, কুলসহ ১৭-১৮টি নামীদামী প্রতিষ্ঠানের পণ্যের বিজ্ঞাপনের কাজ। বেশ কিছু নতুন বিজ্ঞাপনের কথাবার্তা চলছে।
সামনে আসছে ইমনের চমকে ভরা কিছু সিনেমা। শাহীন কবীর টুটুলের ‘এইতো ভালোবাসা’, সাদেক সিদ্দিকীর মুক্তিযুদ্ধের ছবি ‘হৃদয়ে একাত্তর’, খালেদ মাহমুদ মিঠুর ‘জোনাকির আলো’, নার্গিস আক্তারের ‘পুত্র এখন পয়সাওয়ালা’, মোস্তাফিজুর রহমান মানিকের ‘এমনও তো প্রেম হয়’ ও রিপন মিয়ার ‘সন্ধ্যার মেঘমালা’।
‘ভক্তদের কাছে আমার চাওয়া হচ্ছে আপনারা প্লিজ হলে গিয়ে সিনেমা দেখবেন। পাইরেসি প্রতিহত করতে আপনাদের সহযোগিতা বেশি দরকার। আমার অভিনয় দেখে আমার অভিনয়ের সমালোচনা করবেন। আর আমাকে উৎসাহ দিবেন যাতে আপনাদের প্রিয় নায়ক হতে পারি।’ আবেগঘন স্বরে যোগ করলেন, ‘আমার মৃত্যুর পরও আমি গণমানুষের নায়ক হয়ে বেঁচে থাকতে চাই।’ মুক্তির অপেক্ষায় ‘তুমি সন্ধ্যার মেঘমালা’, ‘পদ্মপাতার জল’, ও ‘জোনাকির আলো’ তে মীম এর সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন, এর আগে কুসুম সিকদারের সঙ্গে ‘গহিনের শব্দ’ ও ‘লালটিপ’-এ জুটি বেঁধেছেন, আপনার সামনের সিনেমাগুলোয় নিপুনসহ বেশকজন আলোচিত নায়িকার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন। জীবনের জুটিতে কাকে নায়িকা করছেন- কিছু কী জানতে পারে আপনার ভক্তরা? এই প্রশ্নের উত্তরও প্রায় ঠিক করাই ছিল, ‘জন্ম মৃত্যু বিয়ে’ স ব তাঁর হাতে ! তিনি কী করবেন তিনিই জানেন ! এই মুহূর্তে সিনেমা নিয়েই ভাবছি।’ Ñদিলু আলী