মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ২৩ জানুয়ারী ২০১৩, ১০ মাঘ ১৪১৯
প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে মমতার বিতর্কিত মন্তব্যে তোলপাড়
মমতা ব্যানার্জী বেশ কয়েকবার প্রধানমন্ত্রীর সে দেখা করে সারের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানালেও কোন কাজ হয়নি জানিয়ে জনগণের কাছে মমতা জানতে চেয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীকে কি তিনি মারবেন?
সোমবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিংয়ে এক জনসভায় কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে মমতা বলেন, ‘আমি রাজস্ব পাই ২১ হাজার কোটি রূপী। ওরা (কেন্দ্র) আমাদের থেকে ২৬ হাজার কোটি রুপী নিয়ে নিচ্ছে। আমরা কী করে চালাব? কিন্তু আমাদেরও বুদ্ধি আছে। আমরা এই আর্থিক বছরে ১০ হাজার কোটি টাকা বেশি রাজস্ব আদায় করেছি।’ ‘আমি এসব নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে কম করে দশ বার বলেছি। এর থেকে বেশি তো কিছু করতে পারি না। আমি কি মারব গিয়ে? মারলেই তো লোকে গুণ্ডা বলবে। এমনিতেই তো ওরা (কেন্দ্র) আমাকে গুণ্ডা বলে।’
কেন্দ্রীয় সরকার পশ্চিমবঙ্গকে তার নায্য অধিকার দিচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেন মমতা ব্যানার্জী। তিনি বলেন, ‘আমি বলছি, আমাদের আলাদা আর্থিক সাহায্য দিতে হবে না। সব রাজ্যকে কেন্দ্র যা দিচ্ছে, আমাদেরও তাই দেয়া হোক। কিন্তু তা হচ্ছে না।’ ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি ও খুচরা ব্যবসায় সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগের অনুমোদন দিয়ে মনমোহন নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার জনবিরোধী অবস্থান নিয়েছে বলেও সমালোচনা করেন মমতা ব্যানার্জী। প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে মমতার ওই বক্তব্যে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে। কংগ্রেস নেতা ও রেল প্রতিমন্ত্রী অধীর চৌধুরী বলেছেন, ‘যার পঞ্চায়েত প্রধান হওয়ার ক্ষমতা নেই, আমাদের দুর্ভাগ্য যে, তিনিই এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী।’ এই বক্তব্যের জন্য মমতাকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে বলেও দাবি করেছেন কংগ্রেসের আরেক নেতা মানস ভূঁইয়া। ‘কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের দাবি থাকতেই পারে। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্য অপসংস্কৃতির পর্যায়ে পড়ে। আশা করি তিনি ভুল বুঝবেন ও প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইবেন,’ বলেন তিনি।
অবশ্য মমতার বক্তব্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের পক্ষ থেকে এখনও কোন প্রতিক্রিয়া আসেনি। সূত্র : ওয়েবসাইট।