মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ২৩ জানুয়ারী ২০১৩, ১০ মাঘ ১৪১৯
আল কায়েদার বিরুদ্ধে লড়াই করার সঙ্কল্প আলজিরিয়ার
আলজিরিয়া এর মরুভূমির গ্যাস প্লান্টে জঙ্গী হামলার পর আল কায়েদার বিরুদ্ধে লড়াই চালানোর সঙ্কল্প ব্যক্ত করেছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী আবদেল মালেক সেল্লাল গত সপ্তাহের ওই হামলায় নেতৃত্ব দেয়ার জন্য এক কানাডীয় নাগরিককে অভিযুক্ত করেন, কমপ্লেক্সে অভিযান চালানোর ঘটনার প্রশংসা করেন এবং সাহারাতে ইসলামপন্থীদের উত্থান প্রতিহত করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। এক জিম্মি সঙ্কটের সময় ওই কমপ্লেক্সে ৩৭ বিদেশী নিহত হন বলে তিনি জানান। খবর বিবিসি ও ওয়েবসাইটের।
আবদেল মালেক সেল্লাল বলেন, আলজিরিয়া কখনও সন্ত্রাসবাদের কাছে নতিস্বীকার করবে না বা আল কায়েদাকে ‘সাহেলিস্তান’ কায়েম করতে দেবে না। এটি আল কায়েদার উত্তর-পশ্চিম আফ্রিকান আফগান ধরনের ঘাঁটি। তিনি আলজিয়ার্সে এক সংবাদ সম্মেলনে ভাষণ দিচ্ছিলেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের স্পষ্টত রাজনৈতিক সদিচ্ছা রয়েছে। আলজিরিয়ার এক আল কায়েদা নেতা পূর্ববর্তী সপ্তাহে প্রতিবেশী মালিতে তার মিত্রদের ওপর ফ্রান্সের হামলার প্রতিশোধ নিতে ওই প্লান্ট চার দিন ধরে অবরোধ করে রাখার কথা দাবি করেন। এতে সাহারা ও সাহেল অঞ্চলগুলোতে ইসলামপন্থীদের তৎপরতার দিকে বিশ্বে দৃষ্টি আকৃষ্ট হয়। পশ্চিমাশক্তিগুলো আফ্রিকান সরকারগুলোকে সমর্থন যোগানোর প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে। পশ্চিমাদের হাতে লিবিয়ার একনায়ক মুয়াম্মার গাদ্দাফির পতন ঘটার পর ওই অঞ্চলে অস্ত্রশস্ত্র ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। গত সপ্তাহান্তে আলজিরিয়ার সৈন্যরা ওই প্লান্টটি পুনরায় দখল করলে সেই অবরোধের অবসান ঘটে। সেল্লাল তাঁর দেশের বিশেষ বাহিনীর অভিযান চালানোর সিদ্ধান্তের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, গ্যাস প্লান্ট উড়িয়ে দেয়াই অপহরণকারীদের লক্ষ্য ছিল। তিনি বলেন, অভিযানে নিহত ২৯ বন্দুকধারীর মধ্যে শেদাদ নামের এক কানাডীয় নাগরিকও ছিল। ওই অঞ্চলের আরবদের মধ্যে ওই বংশনাম প্রচলিত রয়েছে। শেদাদ হামলায় নেতৃত্ব দেন বলে সেল্লাল জানান। অন্য তিন জঙ্গীকে জীবিত অবস্থায় আটক করা হয়। সেল্লাল বলেন, নিহত ৩৭ বিদেশী জিম্মির মধ্যে ৭ জনের পরিচয় জানা যায়নি। আরও পাঁচ বিদেশী এখনও নিখোঁজ রয়েছে। প্রায় ৭০০ আলজিরীয় ও অন্য ১০০ বিদেশী প্রাণে বেঁচে যায়।
প্রধানমন্ত্রী জানান, অপহরণকারীরা মালির উত্তরাঞ্চল দিয়ে সীমান্ত পেরিয়ে তাঁর দেশে অনুপ্রবেশ করেছিল। তারা আলজিরিয়া, মিসর, তিউনিসিয়া, মালি, নাইজার, কানাডা ও মৌরিতানিয়ার নাগরিক ছিল।