মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
রবিবার, ৪ সেপ্টেম্বর ২০১১, ২০ ভাদ্র ১৪১৮
যুক্তরাষ্ট্র আ'লীগের নতুন নেতৃত্বের নাম ঘোষণা করবেন শেখ হাসিনা
এনা, নিউইয়র্ক থেকে ॥ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের প্রত্যাশার প্রতিফলন হিসেবে ২৫ সেপ্টেম্বর অপরাহ্নে সভানেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে কর্মিসভা অনুষ্ঠিত হবে এবং সেখানে নতুন সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করবেন শেখ হাসিনা নিজে। যুক্তরাষ্ট্রের আইন অনুযায়ী আওয়ামী পরিবারের লোকজন ঐক্যবদ্ধভাবে বাংলাদেশের জন্য কাজ করতে পারেন_ এমন চমৎকার একটি পরিবেশ তৈরির জন্য শেখ হাসিনা এ প্রক্রিয়া অবলম্বন করছেন বলে বার্তা সংস্থা এনাকে ২ সেপ্টেম্বর জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ড. সিদ্দিকুর রহমান। তিনি বলেন, একই দিন দুপুরে নিউইয়র্ক সিটির ম্যানহাটানে হিল্টন হোটেলের বলরুমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নাগরিক সংবর্ধনা জ্ঞাপন করা হবে। এ লক্ষ্যে ২৬ আগস্ট বলরুমের ভাড়া হিসেবে আগাম ১০ হাজার ডলার পরিশোধ করেছি। ড. সিদ্দিক বলেন, হাইকমান্ডের নির্দেশে সংবর্ধনা সমাবেশের পর কেবলমাত্র আওয়ামী পরিবারের লোকজন নিয়ে সভানেত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন ইস্যুতে কথা বলবেন। এদিকে, প্রধানমন্ত্রীর সফর সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনার জন্য যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নিজাম চৌধুরী ঢাকায় গেছেন। উলেস্নখ্য, জাতিসংঘের ৬৬তম সাধারণ অধিবেশনে যোগদানের জন্য ১৮ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে আসছেন শেখ হাসিনা।

সরকারকে একের পর এক আঘাত করুন

সমর্থকদের প্রতি আন্না হাজারে
নয়াদিল্লী, ৩ সেপ্টেম্বর, এএফপি ॥ ভারতের দুর্নীতিবিরোধী সমাজকর্মী আন্না হাজারে দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করতে কেলেঙ্কারিতে জর্জরিত সরকারকে একের পর এক আঘাত দিতে সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
গত মাসে নয়াদিলস্নীতে দুসপ্তাহের অনশন শেষে মহারাষ্ট্র রাজ্যে নিজ গ্রাম রালেগান সিদ্ধিতে ফিরে যান আন্না হাজারে (৭৪)। সেখানে শুক্রবার তিনি শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেন। তিনি বলেন, ভারতকে দুর্নীতিমুক্ত করতে সরকারকে একের পর এক আঘাত দিয়ে যেতে হবে। সরকারী বার্তা সংস্থা পিটিআই এ কথা জানায়।
গ্রামে আন্না হাজারেকে শুভেচ্ছা জানাতে প্রায় ১০ হাজার লোক উপস্থিত হয়। তাদের উদ্দেশে হাজারে বলেন, ব্রিটিশ শাসন থেকে মুক্তি পাওয়ার ৬৪ বছর পরেও দেশের কোন কিছুরই পরিবর্তন হয়নি। কেবল শ্বেতাঙ্গদের জায়গা দখল করেছে ভারতীয়রা। অব্যাহতভাবে চলছে লুটপাট, দুর্নীতি ও সন্ত্রাস।
আন্না হাজারে তরুণদের প্রতি তাঁর গণমুখী আন্দোলন চালানোর সময় ভারতের জেলখানাগুলো ভরে ফেলার আহ্বান জানান।