মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ১৫ জুন ২০১১, ১ আষাঢ় ১৪১৮
গাদ্দাফি অপসারণে আরও কঠোর ব্যবস্থা নিন ॥ হিলারি
আফ্রিকান নেতাদের প্রতি আহ্বান ॥ বিদ্রোহীদের অন্তর্বর্তী পরিষদকে স্বীকৃতি দিল জার্মানি
লিবীয় নেতা কর্নেল গাদ্দাফির অপসারণের ব্যাপারে আরও চাপ দেয়ার জন্য আফ্রিকান নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। তিনি গাদ্দাফির শাসনের বিরুদ্ধে কঠোরতর ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানান। যুক্তরাষ্ট্রের এই শীর্ষ কূটনীতিক নিজ নিজ দেশ থেকে গাদ্দাফির কূটনীতিকদের বহিষ্কার করার জন্য আফ্রিকান দেশসমূহের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আপনাদের বক্তব্য ও কার্যক্রমের ফলে লিবিয়ায় শান্তি ফিরে আসতে পারে। আফ্রিকান ইউনিয়নের সদর দফতর আদ্দিস আবাবায় হিলারি ক্লিনটন যখন লিবীয় নেতা কর্নেল গাদ্দাফির বিরম্নদ্ধে তাঁর দেশের কঠোর মনোভাব ব্যক্ত করছিলেন ঠিক তখন মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদ লিবিয়ায় মার্কিন সামরিক অভিযানে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ ব্যয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে একটি বিল পাস করেছে। সোমবার রাতে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ২৪৮-১৬৩ ভোটে এ সংক্রানত্ম একটি বিল পাস হয়। এদিকে প্রথমবারের মতো জার্মানির সমর্থন পেয়ে উজ্জীবিত লিবিয়ার বিদ্রোহীরা মিসরাতা থেকে গাদ্দাফি বাহিনীর কয়েকটি বাধা অতিক্রম করে রাজধানী ত্রিপোলির দিকে এগিয়ে যেতে শুরম্ন করেছে। সোমবারই মিসরাতার কাছে গাদ্দাফি বাহিনীর সঙ্গে তীব্র লড়াইয়ের পর বিদ্রোহীরা ভূমধ্যগরের তীর ঘেঁষে এগিয়ে যায় এবং জিলিতান শহরের ৬ কিলোমিটারের মধ্যে পেঁৗছে যায়। খবর এএফপি ও বিবিসি অন লাইনে।
আদ্দিস আবাবায় ৫৩ জাতির সমম্বয়ে গঠিত আফ্রিকান ইউনিয়নের নেতাদের উদ্দেশে হিলারি বলেন, আপনারা আপনাদের নিজ নিজ দেশের লিবীয় দূতাবাসের কার্যক্রম সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিন এবং গাদ্দাফি অনুগত কূটনীতিকদের বহিষ্কার করে দিন। হিলারি লিবিয়ার বিদ্রোহীদের সংগঠন ন্যাশনাল ট্রানজিশনাল কাউন্সিলের (এনটিসি) প্রতি সমর্থন আরও বাড়িয়ে দেয়ার জন্য তাঁদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, আপনাদের কার্যক্রমের ফলে লিবিয়ার শানত্মি ফিরে আসতে পারে। হিলারি বলেন, আপনাদের সমর্থন লিবীয় জনগণকে তাদের সংবিধান রচনা এবং দেশ পুনর্গঠনে সহায়ক হতে পারে। পরে হিলারি ক্লিনটন ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী মেলেস জিনাবির সঙ্গে বৈঠক করেন। তবে ইরিত্রিয়ায় আগ্নেয়গিরির অগ্নু্যৎপাতের কারণে ছাই মেঘে আদ্দিস আবাবার আকাশপথ ঢেকে যাওয়ার আশঙ্কায় হিলারি ক্লিনটন তাঁর আফ্রিকা সফর সংৰিপ্ত করে সোমবার রাতেই আদ্দিস আবাবা ত্যাগ করেন। এদিকে লিবিয়ার বিদ্রোহীদের গঠিত ন্যাশনাল ট্রানজিশনাল কাউন্সিলকে (এনটিসি) সে দেশের জনগণের বৈধ প্রতিনিধিত্বকারী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে জার্মানি। লিবিয়া সফররত জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী গুইডো ভেস্টারভেলে সোমবার বিদ্রোহী বাহিনী নিয়ন্ত্রিত বেনগাজীতে বলেন, ন্যাশনাল কাউন্সিল লিবীয় জনগণের বৈধ প্রতিনিধি। আমরা মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে ছাড়া একটি স্বাধীন, শানত্মিপূর্ণ ও গণতান্ত্রিক লিবিয়া চাই। এর আগে ফ্রান্স, ইতালি, স্পেন, কাতার, ডেনমার্ক ও নেদারল্যান্ডসসহ প্রায় ১২টি দেশ বিদ্রোহীদের স্বীকৃতি দেয়।
এনটিসির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দেল হাফিজ গোঘা বলেন, এটা অনেক বড় ধরনের একটি পদক্ষেপ এবং আমরা এতে জার্মানি সরকারের প্রশংসা করছি। ফেব্রম্নয়ারির মাঝামাঝি লিবিয়ায় গাদ্দাফির পতনের দাবিতে বিক্ষোভ শুরম্ন হয়।