মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৩, ৫ অগ্রহায়ন ১৪২০
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আজ খালেদা জিয়ার সাক্ষাত
স্টাফ রিপোর্টার ॥ বঙ্গভবনে গিয়ে রাষ্ট্রপতিকে কি বলবেন খালেদা জিয়া? এ প্রশ্নটি এখন সারাদেশের মানুষের মুখে মুখে। কেউ বলছেন, নির্বাচন কিছুদিন পিছিয়ে হলেও একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচনকালীন সরকারের অধীনে যেন বিএনপিসহ সকল দলের অংশগ্রহনেই নির্বাচনের ব্যবস্থা করা হয়, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদকে তা জানাতে যাবেন। আবার কেউ বলছেন, সর্বদলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে সে নির্বাচন বর্জনের কথা তিনি রাষ্ট্রপতিকে জানাতে যাবেন। তবে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতকালে তিনি কি নিয়ে কথা বলবেন তা ঠিক করতে সোমবার রাতে বিএনপির অন্য সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছেন।
বিএনপি সূত্র জানায়, দেশের চলামান রাজনৈতিক সঙ্কট নিরসনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার জন্য আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ২০ সদস্যের প্রতিনিধি দল নিয়ে খালেদা জিয়া বঙ্গভবনে যাচ্ছেন। এ ব্যাপারে জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতার একান্ত সচিব সালেহ আহমেদ সাংবাদিকদের জানান, খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে সর্বোচ্চ ২০ সদস্যবিশিষ্ট একটি প্রতিনিধি দল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বঙ্গভবনে যাবে। নির্বাচনকালীন সরকার নিয়েও তাদের মধ্যে আলোচনা হতে পারে।
সোমবার বঙ্গভবনে সর্বদলীয় সরকারের মন্ত্রীদের শপথ গ্রহণের পর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে খালেদা জিয়ার সাক্ষাতের সময় চেয়ে বঙ্গভবনে চিঠি দেয় বিএনপি। বিএনপির পক্ষ থেকে এ চিঠি দেন বিরোধীদলীয় নেতার একান্ত সচিব সালেহ আহমেদ। চিঠিতে মঙ্গলবার সাক্ষাতের জন্য সময় চাওয়া হয়। সংবাদ মাধ্যমের কাছে বিষয়টি নিশ্চিত করেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী। পরে বঙ্গভবন থেকে জানানো হয়, আজ মঙ্গলবার সাড়ে ৬টায় রাষ্ট্রপতির সঙ্গে খালেদা জিয়াকে সাক্ষাতের সময় দেয়া হয়েছে।
বিএনপির একটি সূত্র জানায়, রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতকালে খালেদা জিয়া সকল দলের অংশগ্রহণে অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা বলার পাশাপাশি দলের নেতাকর্মীদের ওপর গ্রেফতার-নির্যাতনের কথাও রাষ্ট্রপতির কাছে তুলে ধরবেন। সেই সঙ্গে দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা ও গণতন্ত্র রক্ষায় রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ কামনা করবেন। সূত্র মতে, ২০ সদস্যের প্রতিনিধি দলে খালেদা জিয়া ছাড়াও ১৮ দলীয় জোটের কয়েকজন সিনিয়র নেতাদের রাখা হচ্ছে।
উল্লেখ্য, বেশ ক’দিন ধরেই সরকারের তরফ থেকে বলা হচ্ছিল বিএনপি না এলে অন্য দলগুলোকে নিয়েই নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠন করা হবে। আর বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা সর্বদলীয় সরকার মানবেন না। নির্দলীয় সরকার ছাড়া তারা নির্বাচনেও যাবে না। এ পরিস্থিতিতে রবিবার সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে গিয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাত করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাত শেষে সরকারের তরফ থেকে ঘোষণা দেয়া হয় সোমবার সর্বদলীয় সরকারের মন্ত্রীদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
অবশ্য সর্বদলীয় সরকারের ঘোষণা আসার পর রবিবার রাতেই বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সর্বদলীয় সরকার প্রত্যাখ্যান করেন। তিনি বলেন, সর্বদলীয় সরকার গঠন জনগণের সঙ্গে প্রহসন ও তামাশা। রাষ্ট্রপতির সোমবার নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকারের মন্ত্রীদের শপথ বাক্য পাঠ করান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। এর পর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাত চেয়ে খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে বঙ্গভবনে চিঠি দেয়া হয়। আর বঙ্গভবনও চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় রাষ্ট্রপতির সঙ্গে খালেদা জিয়ার সাক্ষাতের সময় দেয়। এ পরিস্থিতিতে দেশের মানুষ অপেক্ষার প্রহর গুনছে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতকালে খালেদা জিয়া কি বলেন এবং শেষ পর্যন্ত দেশের পরিস্থিতি কোন্্ দিকে যায়।