মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বৃহস্পতিবার, ২৯ আগষ্ট ২০১৩, ১৪ ভাদ্র ১৪২০
সরকারী কর্মচারীদের জন্য স্থায়ী পে-কমিশন গঠন করা হবে
রাজধানীতে ১৫০ শয্যার হাসপাতাল উদ্বোধনীতে প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকার জনপ্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির জন্য সুপারিশ করতে একটি স্থায়ী পে-কমিশন গঠন করার পরিকল্পনা করেছে। বর্তমানে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পে-কমিশন পেতে বছরের পর বছর অপেক্ষা করতে হচ্ছে এবং তাদের বেতন কখন বাড়বে এজন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয়। তিনি বলেন, সুতরাং আমরা মূল্যস্ফীতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নিয়মিতভাবে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধির জন্য একটি স্থায়ী পে-কমিশন গঠন করার পরিকল্পনা করেছি।
প্রধানমন্ত্রী বুধবার বিকেলে রাজধানীতে বঙ্গবাজারের নিকটে সদ্য নির্মিত ১৫০ শয্যার সরকারী কর্মচারী হাসপাতালের উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন। খবর বাসসর।
শেখ হাসিনা বলেন, সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কল্যাণে তাঁর সরকার খুবই আন্তরিক। তিনি বলেন, আমরা সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবসরে যাবার বয়স ৫৭ থেকে বাড়িয়ে ৫৯ বছর করেছি। মুক্তিযোদ্ধা সরকারি কর্মচারীদের বয়স ৫৭ থেকে বাড়িয়ে ৬০ বছর করা হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকারী চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের চাকরি কোটা সংরক্ষণ করা হয়েছে। প্রতিবন্ধীদের জন্য চাকরির বয়স ৩০ থেকে বাড়িয়ে ৩২ বছর করা হয়েছে এবং ১ শতাংশ কোটা সংরক্ষণ করা হয়েছে।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। মন্ত্রিপরিষদ সচিব এম মুশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ড. আফম রুহুল হক, প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রশাসন উপদেষ্টা এইচটি ইমাম এবং সিনিয়র সচিব আবদুস সোবহান শিকদার বক্তব্য রাখেন।