মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বৃহস্পতিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১১, ১ পৌষ ১৪১৮
ভোলায় পুলিশ-জলদসু্য বন্দুকযুদ্ধ, নিহত ১১ অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার
নিজস্ব সংবাদদাতা, ভোলা, ১৪ ডিসেম্বর ॥ ভোলার দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরসহ মেঘনা নদীর বিচ্ছিন্ন চরগুলো এখন জেলেদের স্বর্গরাজ্য। দুর্গম দ্বীপ চরে বসে তারা সাগর আর মেঘনার মোহনার ডাকাতি নিয়ন্ত্রণ করছে। পুলিশ তাদের নৌ ঘাঁটিতে হানা দিলেও থামছে না ডাকাতির ঘটনা। পুলিশের সঙ্গে প্রায়ই ঘটছে তাদের বন্দুকযুদ্ব। সর্বশেষ বুধবার বিকেলে আবার মনপুরা উপজেলার সাগর মোহনায় পুলিশ ও জলদসু্যদের মধ্যে বন্ধুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ইলিশার জাকির বাহিনীর প্রধান জাকিরসহ ১০ জলদসু্য ও বেল্লাল (৩০) নামে এক জেলে নিহত হয়েছে। ডাকাতের গুলিতে তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়। এ অবস্থায় ভোলার উপকূলীয় এলাকার লক্ষাধিক জেলে চরম আতঙ্কে রয়েছে।
মনপুরা থানার এসআই নুরম্নল আলম তালুকদার জানান, মনপুরা উপজেলার উত্তর সাকুচিয়া ইউনিয়নের চরনিজামের দক্ষিণে সাগর মোহনার ভাসান চরে বুধবার সকাল থেকে জলদসু্যরা ডাকাতি করছে খবর পেয়ে তারা অভিযানে যায়। ভাসান চরের কালকিনি এলাকায় জলদসু্যরা মনির মাঝির ট্রলারে ডাকাতি করে। পুলিশ কিছু দূর অগ্রসর হলে জলদসু্যরা দুটি ট্রলার থেকে পুলিশের ওপর লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। এক পর্যায়ে জলদসু্যরা পুলিশের ওপর গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী উভয় পক্ষের মধ্যে চলে বন্দুকযুদ্ধ। এক পর্যায়ে ডাকাতরা অবস্থা বেগতি দেখে তাদের একটি ট্রলার নিয়ে পালিয়ে যায়। ডাকাতদের অপর ট্রলারটি চরে আটকা পড়লে পুলিশ তাদের ঘিরে ফেলে। ওই ট্রলারে থাকা জেলে বেলস্নালকে জলদসু্যরা আগেই মেরে ফেলে বলে জানান। এ ছাড়াও পুলিশের গুলিতে ও এলাকাবাসীর গণপিটুনিতে ১০ ডাকাত ঘটনা স্থলেই নিহত হয়। এদের মধ্যে শুধু মাত্র ভোলার ইলিশার জলদসু্য বাহিনীর প্রধান জাকিরের নাম এসআই নুরম্নল আলম নিশ্চিত করেন। তবে বাকিদের নাম-পরিচয় এখনও শনাক্ত করতে পারেনি। এদিকে জলদসু্যদের হামলায় গুলিতে এসআই নুরম্নল আলম তালুকদারসহ ৩ পুলিশ আহত হয়। তারা স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা নিচ্ছে। পুলিশ সূত্র আরও জানায়, জলদসু্যদের কাছ থেকে ২টি দুনালা পাইপগান,বন্দুক, ১ রাউন্ড গুলিসহ ৮টি বগি দা উদ্ধার করে। সন্ধ্যার আগে পুলিশ মনপুরার ভাসান চরে নিহত ১১ জনের লাশ নিয়ে ফিরেছে। এদিকে খবর পেয়ে এসপি বশির আহমেদ এ রিপের্াট লেখার সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ঘটনা স্থলের উদ্দ্যেশে পথে রয়েছেন।