মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ২৯ জুন ২০১১, ১৫ আষাঢ় ১৪১৮
সম্পূরক চার্জশীটের বিরুদ্ধে আসমা কিবরিয়ার নারাজি
নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ, ২৮ জুন ॥ সাবেক অর্থমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলার সম্পূরক চার্জশীটের বিরুদ্ধে হবিগঞ্জের আদালতে মঙ্গলবার নারাজি পিটিশন দিলেন নিহতের স্ত্রী আসমা কিবরিয়া। স্বামী হত্যার ন্যায়বিচার পেতে তিনি কোনরূপ ছাড় দিতে নারাজ। তাই তিনি আবারও বিগত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের মন্ত্রী ও নেতাদের সহযোগিতায় হরকত-উল জিহাদ জড়িত থাকার অভিযোগ এনে কিবরিয়াসহ ৫ ব্যক্তি হত্যা মামলায় দাখিলকৃত সর্বশেষ সম্পূরক চার্জশীটে মঙ্গলবার আদালতে নারাজি পিটিশন দিলেন। ওই দিন দুপুরে সংশিস্নষ্ট মামলার আইনজীবী এডভোকেট আলমগীর ভূইয়া বাবুল বাদী আসমা কিবরিয়ার পক্ষে হবিগঞ্জের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজিব বিশ্বাসের আদালতে নারাজি পিটিশনটি দাখিল করেন। তাঁকে সহযোগিতা করেন আছমা কিবরিয়ার অপর আইনজীবী এ্যাডভোকেট ত্রিলোক কানত্মি চৌধুরী বিজন। বিচারক ১ ঘণ্টা আবেদনকারীর আইনজীবী এবং সরকারপক্ষের কেঁৗসুলির যুক্তিতর্ক শেষে পিটিশন গ্রহণ করেন এবং সংশিস্নষ্ট মামলার নথি আমল আদালতে না থাকায় আবেদনটি সিলেট দ্রম্নত বিচার ট্রাইবু্যনালে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এ সময় আদালতপাড়া ছিল উৎসুক সাধারণ মানুষ ও আওয়ামী লীগ নেতাকমর্ীদের পদচারণায় মুখর। বাদীর আবেদনে বলা হয়েছে, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ও হুজি নেতা মুফতি হান্নানকে অভিযুক্ত করে গত ২০ জুন হবিগঞ্জের আদালতে মামলার তদনত্মকারী কর্মকর্তা সিআইডির এএসপি রফিকুল ইসলামের দাখিলকৃত কিবরিয়া হত্যা মামলার সম্পূরক চার্জশীটে মূল হোতাদের বাদ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ডিজিএফআইয়ের তৎকালীন মেজর জেনারেল সাদেক হাসান রম্নমিসহ উর্ধতন সামরিক কর্মকর্তাদের সাক্ষী ও আসামি বাবর এবং গ্রেফতারকৃত অন্যদের জবানবন্দীতে ওই হত্যাকা-ে বিগত চারদলীয় জোট সরকারের মন্ত্রী ও কয়েকজন নেতার নাম এলেও সম্পূরক চার্জশীটে তাদের নাম নেই।
২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জের বৈদ্যের বাজারে ঘাতকের ছোড়া গ্রেনেডে অর্থমন্ত্রী শামস কিবরিয়াসহ ৫ নেতাকমর্ী নিহত এবং শতাধিক লোক আহত হন। এঁদের মধ্যে আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুলস্নাহ সর্দারসহ অনেকেই এখন পঙ্গুত্ববরণ করে জীবিকা নির্বাহ করছেন।