মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শুক্রবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১১, ১৩ ফাল্গুন ১৪১৭
দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২২৩ রানের টার্গেট দিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপ ক্রিকেটে নিজের অভিষেক ম্যাচেই ঝলসে উঠলেন দৰিণ আফ্রিকার গোপন অস্ত্র ইমরান তাহির। দৰিণ আফ্রিকান এই স্পিনারের বোলিং কারিশমায় বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ব্যাটিংটা ভাল হল না ওয়েস্ট ইন্ডিজের। পুরো ৫০ ওভারও ব্যাট করতে পারেনি ক্যারিবীয়রা। প্রোটিয়াস বোলারদের দাপটে ৪৭.২৩ ওভারে মাত্র ২২২ রানে অলআউট হয় ড্যারেন সামির দল। দলের পৰে সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন ড্যারেন ব্রাভো। দৰিণ আফ্রিকার পৰে ১০ ওভার বল করে ৪১ রানে ৪ উইকেট নেন তাহির। বিশ্বকাপ শুরম্নর আগে যাঁকে সাফল্যের গোপন অস্ত্র হিসেবে আখ্যা দিয়েছিল প্রোটিয়াসরা। ৭.৩ ওভারে ২৪ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন পেসার ডেল স্টেইন। গতকাল দিলস্নীর ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় এবারের আসরের অন্যতম ফেবারিট দক্ষিণ আফ্রিকা ও 'আন্ডার ডগ' ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই দলের জন্যই এটি ছিল এবারের আসরের প্রথম ম্যাচ। দিবা-রাত্রির এ ম্যাচে টসে জিতে আগে ফিল্ডিং বেছে নেন দৰিণ আফ্রিকার অধিনায়ক গ্রায়েম স্মিথ। এর কারণ ছিল দু'টি। প্রথমত ফিরোজ শাহ কোটলার পিচ নিয়ে বিতর্ক অনেক আগে থেকেই। স্পোর্টিং উইকেট নয়, ব্যাটসম্যানদের জন্য বিপজ্জনক পিচ_এই অভিযোগে দীর্ঘ এক বছর আনত্মর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ছিল মাঠটি। অবশেষে গতকাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ-দৰিণ আফ্রিকা ম্যাচের মধ্য দিয়ে আবার আনত্মর্জাতিক ক্রিকেটের ছাড়পত্র পেল কোটলা। পিচের চরিত্র নিয়ে তাই অনেকটাই সংশয়ে ছিলেন স্মিথ। দ্বিতীয়ত ডিউ ফ্যাক্টর নিয়েও আতঙ্কে ছিলেন প্রোটিয়াস অধিনায়ক। টসে জিতে তাই আগে ফিল্ডিং নেয়াই যুক্তিসঙ্গত মনে করেন স্মিথ। শুধু তাই নয়, ইনিংসের শুরম্নতেই বল তুলে দেন অফ স্পিনার জন বোথার হাতে। প্রথম ওভারেই সাফল্যের মুখ দেখে দৰিণ আফ্রিকা। বোথার চতুর্থ বলে জ্যাক ক্যালিসের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরের পথ ধরেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সবচেয়ে মারকুটে ব্যাটসম্যান ও সাবেক অধিনায়ক ক্রিস গেইল। দলীয় ২ রানে তাই প্রথম উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে শুরম্নর এ বিপর্যয় কাটিয়ে দলকে বড় সংগ্রহের স্বপ্ন দেখায় ডেভন স্মিথ ও ড্যারেন ব্রাভোর ১১১ রানের জুটি। ৮২ বলে ৮ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ৭৩ রান করার পর এলবিডবিস্নউ আউট হয়ে বোথার দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন ওয়ান ডাউনে নামা ব্রাভো। তিনি আউট হবার পরই যেন ক্যারিবীয় ব্যাটিংয়ে ধস নামে। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে শুরম্ন করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যদিও মাঝে পঞ্চম উইকেট জুটিতে ৫৮ রান করে খানিকটা ঘুড়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেন শিব নারায়ন চন্দরপল ও ডোয়াইন ব্রাভো। চন্দরপলের ব্যাট থেকে আসে ৩১ রান। ৩৭ বলে ৪০ রান করে রান আউটের শিকার হন ডোয়াইন ব্রাভো। এ ম্যাচে এলবিডবিস্নউ আউটের শিকার হন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৪ ব্যাটসম্যান। ২২৩ রানের জবাবে দৰিণ আফ্রিকার ব্যাটিংয়ের শুরম্নটাও ভাল হয়নি। ওয়েস্ট ইন্ডিজও স্পিনারদের দিয়েই বোলিং আক্রমণ শুরম্ন করে। অপর প্রানত্মে আক্রমণ শানান মিডিয়াম পেসার কেমার রোচ। স্পিন-পেসের এই মিলিত আক্রমণে মাত্র ২০ রানে ২ উইকেট হারিয়ে বসে দৰিণ আফ্রিকা। খুব সকালেই সাজঘরে ফিরতে হয় প্রোটিয়াসদের দুই নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান ওপেনার হাশিম আমলা ও অলরাউন্ডার জ্যাক ক্যালিসকে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যনত্ম ২১ ওভার শেষে দৰিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ২ উইকেটে ৯৬ রান। ৩০ রান নিয়ে ব্যাট করছেন অধিনায়ক গ্রায়েম স্মিথ। ৪৭ রানে ব্যাট করছেন এবি ডি ভিলিয়ার্স।