মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ২৮ জুন ২০১০, ১৪ আষাঢ় ১৪১৭
হরতাল নিয়ে বি'বাড়িয়ায় বিএনপির দুই গ্রুপে সংঘর্ষ ॥ আহত ২০
নিজস্ব সংবাদদাতা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ২৭ জুন ॥ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বিএনপির দু'গ্রুপের সংঘর্ষে এক গ্রুপের দলনেতাসহ উভয় গ্রুপের ২০জন আহত হয়েছে। রবিবার সকাল ১১টায় সরাইল সদরের হাসপাতাল মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষ্যদশীরা জানায়, বিএনপির ডাকা হরতাল চলাকালে সরাইল হাসপাতাল মোড়ে পিকেটিং করছিল উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও বর্তমান যুগ্ম আহ্বায়ক এ্যাডঃ আব্দুর রহমানের সমর্থকরা। সকাল ১১টার দিকে উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান যুগ্ম আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন মাস্টারের সমর্থকরা মিছিল নিয়ে আসলে দু'গ্রম্নপের নেতাকমীদের মধ্যে সেস্নাগান পাল্টা সেস্নাগানের রেশ ধরে দু'গ্রম্নপ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। কয়েক শ' বিএনপি নেতাকমীর হামলা পাল্টাহামলায় পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। আধ ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন মাস্টার (৪৫)সহ উভয় গ্রম্নপের ২০জন নেতাকমী আহত হয়। আনোয়ার মাস্টারকে প্রথমে সরাইল থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরবতীতে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতাল হয়ে ঢাকায় পাঠানো হয়। অন্য আহতরা হলো আলাল মিয়া (২৭), মহরম আলী (২০), শিপন মিয়া (২৫), কদর আলী (১৮), আজমল হোসেন (২৫), জয়নাল আবেদীন (২০) ও আইনুল হককে (২৫) সরাইল স্বাস্থ্য কমপেক্ষ ভর্তি করা হয়। বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন মাস্টারের মালিকানাধীন সরাইল আইডিয়াল রেসিডেন্সিয়াল স্কুল ও তাঁর চাকরিস্থল সরাইল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে হামলা হয়েছে। সরাইলে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।
শরণখোলায় দুই গ্রম্নপে মারামারি ॥ নিজস্ব সংবাদদাতা বাগেরহাট থেকে জানান, জেলার শরণখোলায় হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করাকে কেন্দ্র করে বিএনপির দুই গ্রম্নপের মধ্যে মারামারি হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলা বিএনপি কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং মিছিল-মিটিং করতে বাধা দেয়।
জানা গেছে, কেন্দ্রীয় সিদ্ধানত্ম অনুযায়ী ২৭ জুনের হরতালের সমর্থনে শনিবার বিকেলে শরণখোলা উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করার কর্মসূচী নেয় স্থানীয় বিএনপি। এ নিয়ে উভয় পক্ষের নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করে। এক পর্যায়ে তা হাতাহাতিতে রূপ নেয়। পুলিশ খবর পেয়ে দ্রম্নত ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ব্যাপারে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন পঞ্চায়েত অভিযোগ করে বলেন, দলের সভাপতি আওয়ামী লীগের সঙ্গে আতাত করে দলীয় কর্মসূচী বানচালের ষড়যন্ত্র করে চলছে। এরই অংশ হিসেবে দলীয় কার্যালয়ে উপস্থিত নেতাকর্মীদের আগ্রহ থাকলেও তাঁদের মিছিল সমাবেশ করতে দেয়া হয়নি।
অপরদিকে উপজেলা বিএনপির সভাপতি খান মতিয়ার রহমান বলেন, দলের কতিপয় নেতা আওয়ামী লীগের সঙ্গে গোপনে অাঁতাতের মাধ্যমে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে নেতাকর্মীদের নামে মামলা করার ষড়যন্ত্র করেছিল। কিন্তু তিনি তা উপেক্ষা করে দলের সভা শেষে হরতালের সমর্থনে মিছিলের উদ্যোগ নিলে পুলিশ তাতে বাধা দিয়ে প- করে দেয়। এরপর দলীয় কার্যালয়ের সামনে এক পথসভার মাধ্যমে কর্মসূচী সমাপ্ত করেন। পথসভায় তিনি সকল ষড়যন্ত্র বানচাল করে দলের নেতাকর্মীদের আগামী দিনের আন্দোলন কর্মসূচী সফল করেতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।