মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৩, ১১ আশ্বিন ১৪২০
বান্দরবানে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ
নিজস্ব সংবাদদাতা, বান্দরবান, ২৫ সেপ্টেম্বর ॥ জেলা আনসার কমান্ড্যান্ট কর্তৃক ২ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার রাতে উন্নত চিকিৎসার অজুহাতে গলায় ছুরি ধরে ভয়-ভীতি দেখিয়ে হাসপাতাল থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালানো হয়। জানা গেছে, জেলা আনসার কমান্ড্যান্ট সেলিমুজ্জামানের সঙ্গে চলতি বছরের ২৫ জুলাই জেলার লামা বাসিন্দা সোনিয়ার বিয়ে হয়। সোনিয়ার বাবা মোঃ আজিজের মৃত্যুতে বিয়ের পর থেকে নানা অজুহাতে সোনিয়ার ওপর মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে আসছে তার স্বামী সেলিমুজ্জামান। মানবাধিকার নেত্রী ডনাই প্রু নেলী বলেন, সরকারী বাহিনীতে থেকেও এই ধরনের মানবাধিকার লঙ্ঘনকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া প্রয়োজন।
আনসার কমান্ড্যান্ট সেলিমুজ্জামান জানান, সোনিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করার পরও বমি বন্ধ না হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামের ভাল ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করি। এ ঘটনার পর সদর হাসপাতালে একাধিক মানবাধিকারকর্মী ও প্রশাসনের কর্মকর্তা সোনিয়াকে দেখতে যান।

নীলফামারীতে গৃহবধূর শ্লীলতাহানির চেষ্টা
নিজস্ব সংবাদদাতা, নীলফামারী, ২৫ সেপ্টেম্বর ॥ নীলফামারীর কিশোরীগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের বানিয়াপাড়া কিসামত ধাইজান গ্রামে এক গৃহবধূর শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত বখাটে যুবক হেলাল হোসেনকে ৯ মাসের বিনাশ্রম কারাদ- প্রদান করেছে। রায়ের পর বুধবার দুপুরে ওই বখাটেকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। বখাটে যুবক একই গ্রামের মৃত আইয়ুব আলীর পুত্র।
জানা যায়, গ্রামের ওয়াহেদুল ইসলামের স্ত্রী স্বপ্না বেগমকে বেশ কিছু ধরে গ্রামের বখাটে হেলাল হোসেন যৌনহয়রানি করে আসছিল। ঘটনার দিন মঙ্গলবার রাতে ওই গৃহবধূ প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গেলে দুলাল তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায়। এ সময় ওই গৃহবধূর চিৎকারে গ্রামের লোকজন ছুটে এসে হেলালকে হাতেনাতে আটক করে। খবর পেয়ে বুধবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গোলাম আজম ঘটনাস্থলে গিয়ে গ্রামের সাক্ষ্যপ্রমাণ এবং বখাটের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ৫০৯ ধারায় তাকে দোষী করে ৯ মাসের বিনাশ্রম কারাদ- প্রদান করেন।