মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৩, ৭ আশ্বিন ১৪২০
নাটোরে বন্ধুকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা
নিজস্ব সংবাদদাতা, নাটোর, ২১ সেপ্টেম্বর ॥ নাটোরে দুই বন্ধু মিলে অপর বন্ধুর জন্য কবর খুঁড়ে শুক্রবার রাতে তাকে সেখানে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে নাটোরের বাগাতিপাড়া থানার দবিলা গ্রামে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, জামনগর ইউনিয়নের দবিলা গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে নিভেল এ ঘটনার শিকার। নিভেলের দুই বন্ধু একই গ্রামের হজরত আলীর ছেলে কান্দব ও নজরুল ইসলামের ছেলে রাকিব শুক্রবার রাত ৮টার দিকে নিভেলকে গ্রামের দীঘিরপাড় মাঠে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে তার জন্য আগে থেকেই কবর খুঁড়ে রাখা ছিল। নিভেলকে কবরের পাশে দাঁড় করিয়ে কান্দব ও রাকিব ধারাল অস্ত্র দিয়ে তাকে উপর্যুপরি কোপাতে থাকে। এ সময় প্রাণ বাঁচাতে জখম অবস্থায় নিভেল দৌড়ে পাশে ফুপুর বাড়িতে আশ্রয় নেয়। প্রথমে তাকে নেয়া হয় পুঠিয়া হাসপাতালে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় পাঠানো হয় রামেক হাসপাতালে। নিভেল রাজশাহীর পুঠিয়া ডিগ্রী কলেজে একাদশ শ্রেণীর ছাত্র। পুলিশ জানায়, নিভেল, কান্দব ও রাকিব তিন বন্ধু মিলে যৌথভাবে জমিজমা লিজ নিয়ে চাষাবাদের ব্যবসা শুরু করে। চাষাবাদ থেকে প্রাপ্ত লাভের টাকার ভাগাভাগি নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। কান্দব ও রাকিব ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন।

সাগরপথে আটত্রিশ মালয়েশিয়াগামীকে উদ্ধার
নিজস্ব সংবাদদাতা, কক্সবাজার, ২১ সেপ্টেম্বর ॥ দালালের প্রলোভনে পড়ে সাগর পথে মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রস্তুতিকালে উত্তরবঙ্গের ৩৮ জনকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব সদস্যরা। শনিবার দুপুর ১টায় র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের ইনচার্জ মেজর সরওয়ার-ই আলমের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি বিশেষ দল শহরের কলাতলীর একটি আবাসিক হোটেলে এ অভিযান চালায়। উদ্ধারকৃতরা স্বীকার করেছে তারা সবাই উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলার বাসিন্দা।
ভালুকায় বিয়েবাড়িতে হামলা ॥ বর-কনেসহ আহত ১২
নিজস্ব সংবাদদাতা, ভালুকা, ময়মনসিংহ, ২১ সেপ্টেম্বর ॥ ভালুকায় মোবাইলে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে কনের বাড়িতে কতিপয় যুবকের হামলায় শিশুসহ বরপক্ষের অন্তত ১২ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুইজনকে ভালুকা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
জানা যায়, শুক্রবার উপজেলার পনাশাইল গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে রফিকুল ইসলামের সঙ্গে নামাকাঁঠালী গ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে ফাহিমার বিয়ে হয়। সন্ধ্যায় কনের বাড়িতে বরপক্ষের এক ছেলে ছবি তুলতে গেলে কতিপয় যুবক তাতে বাধা দেয়। এ সময় তা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়ে এক পর্যায়ে সংঘর্ষে রূপ নেয়। এতে বরপক্ষের আত্মীয় জাহাঙ্গীর আলম (২২) ও তার স্ত্রী শারমিন আক্তার, জাহানারা খাতুন, নাছিমা, আছমা, বর রফিকুল ইসলাম, কনে ফাহিমা, শারমিন, রকিন, রাইম উদ্দিনসহ ১২ জন আহত হয়।