মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বৃহস্পতিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১১, ১ পৌষ ১৪১৮
যুদ্ধাপরাধীদের দ্রুত বিচার দাবি
দেশজুড়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন
জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ যুদ্ধাপরাধীদের দ্রুত বিচার সম্পন্নের দাবি নিয়ে দেশের জেলা-উপজেলা পর্যায়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলৰে শহীদ মিনার, শহীদদের স্মৃতিসত্মম্ভে ও বধ্যভূমিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করাসহ মানববন্ধন এবং আলোচনাসভা হয়েছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের পাঠানো_

রাজশাহী
যুদ্ধাপরাধীদের দ্রুত বিচার সম্পন্নের দাবির মধ্য দিয়ে রাজশাহীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। দিবসটি উপলক্ষে বুধবার সকালে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে পুষ্পসত্মবক অর্পণ করা হয়।
বিকেলে মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রম্নজ্জামান লিটন, মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি অধ্যাপক বজলুর রহমান ও দলীয় নেতৃবৃন্দ।
সকালে রাবির কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

চট্টগ্রাম
চট্টগ্রামে দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণের মধ্য দিয়ে শুরম্ন হয় দিনটি। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের উদ্যোগে দিনভর ছিল আলোচনাসভাসহ নানা অনুষ্ঠান। এদিন শ্রদ্ধাবনত চিত্তে জনগণ স্মরণ করে ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর পাকবাহিনী ও দোসরদের হাতে নিহত খ্যাতনামা শিক্ষাবিদ, চিকিৎসক, সাহিত্যিক, প্রকৌশলী, দার্শনিক, সাংবাদিকসহ দেশের সেরা সনত্মানদের। বিভিন্ন কর্মসূচীতে বক্তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সমুন্নত রাখতে বুদ্ধিজীবী হত্যাকারী ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবি জানান।
চট্টগ্রাম সিটি মেয়র এম মঞ্জুর আলম, সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর-উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি, বাসদ, জাসদ, ওয়ার্কার্স পার্টি, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, ছাত্রলীগ, আওয়ামী যুবলীগ, যুব ইউনিয়ন, ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব, জেলা ক্রীড়া সংস্থাসহ বিভিন্ন সংগঠন ও সংস্থার নেতারা শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণের মধ্য দিয়ে বিনম্র শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন। এদিন মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচীর মধ্যে ছিল সকাল ১০টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জমায়েত এবং উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের কর্মসূচীর মধ্যে ছিল সকালে দোসত্ম বোল্ডিং চত্বরে আলোচনাসভা ও পুষ্পসত্মবক অর্পণ। আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলোর উদ্যোগে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড ও এলাকায় ছিল বিসত্মারিত কর্মসূচী।
এ ছাড়া মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা মঞ্চে এবং ডিসি হিলে মুক্তিযুদ্ধের বই মেলার মঞ্চে আলোচনা হয় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস নিয়ে। মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলায় প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া। ডিসি হিলের আলোচনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোঃ নাসিম। জেলা প্রশাসন, সিটি কর্পোরেশন, শিল্পকলা একাডেমী, শিশু একাডেমীসহ বিভিন্ন সরকারী ও স্বায়ত্তশাসিত সংস্থাগুলোও যথাযথ মর্যাদায় দিবসটি পালন করে। সকল অনুষ্ঠানেই যুদ্ধাপরাধী ও ঘাতকদের বিচারে দীপ্ত শপথ উচ্চারিত হয়।

সিলেট
সিলেটে যথাযোগ্য মর্যাদায় বুধবার শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সামাজিক সংগঠন দিনব্যাপী কর্মসূচী পালন করে। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল সকালে নগরীর চৌহাট্টাস্থ শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসত্মম্ভে পুষ্পসত্মবক অর্পণ। আলোচনাসভা, মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাত। সকালে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশে অবস্থিত শহীদ বৃদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে ছুটে আসেন সর্বসত্মরের অগণিত মানুষ।

যশোর
যশোরে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবি করে শোকাবহ পরিবেশে যশোরের সর্বসত্মরের মানুষ পালন করছে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। দিবসটি উপলক্ষে সকালে চাঁচড়ায় শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসত্মম্ভে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান স্থানীয় সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলসহ সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন। এ সময় তারা রাজাকারমুক্ত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার শপথ গ্রহণ করেন। পরে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মার শানত্মি কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

বাগেরহাট
বাগেরহাটে যুদ্ধাপরাধীদের দ্রম্নত বিচারের দাবির মধ্য দিয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে। বুধবার সকালে শহরের ডাকবাংলো ঘাটে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের বদ্ধভূমিতে নির্মিত স্মৃতিসত্মম্ভে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, আওয়ামী লীগ, বিএনপি, কমিউনিস্টপার্টি, বিএমএ, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক দলের নেতাকর্মী ও ব্যক্তি পুষ্পমাল্য দিয়ে শহীদদের শ্রদ্ধা জানায়। পরে বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসত্মম্ভ পাদদেশে সংক্ষিপ্ত আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. মোজাম্মেল হোসেন এমপি, মীর শওকাত আলী বাদশা এসপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামরম্নজ্জামান টুকু, জেলা প্রশাসক আকরাম হোসেন, পুলিশ সুপার খোন্দকার রফিকুল ইসলাম, মীর ফজলে সাইদ ডাবলু বক্তৃতা করেন।
অপরদিকে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী বাগেরহাট পৌর শাখার উদ্যোগে নিজস্ব কার্যালয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে এক আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

গাইবান্ধা
শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে গাইবান্ধায় বুদ্ধিজীবী হত্যাকারী ও ৭১-এর যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, বধ্যভূমি সংরক্ষণ এবং স্মৃতিসত্মম্ভ নির্মাণের দাবিতে বুধবার জেলা শহরের ডিবি রোডে ঘণ্টাব্যাপী এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে এবং জেলা প্রশাসক বরাবরে একটি স্মারকলিপি হসত্মানত্মর করা হয়। গাইবান্ধা জেলা বধ্যভূমি সংরক্ষণ কমিটি এই কর্মসূচীর আয়োজন করে। মানববন্ধনে সাংবাদিক, রাজনীতিক, সাংস্কৃতিকর্মীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।
বক্তারা অবিলম্বে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং দৃষ্টানত্মমূলক শাসত্মির দাবির পাশাপাশি ৭১-এর বধ্যভূমিগুলো দখলমুক্ত করে তা সংরক্ষণ করা এবং সেখানে স্মৃতিসত্মম্ভ নির্মাণের দাবি জানান। সেই সঙ্গে সদর উপজেলার কামারজানী বাজারসংলগ্ন বধ্যভূমিটি অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে দখলমুক্ত করার দাবি জানানো হয়।

দিনাজপুর
দিনাজপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি পালনের লক্ষ্যে ব্যাপক কর্মসূচী নেয়া হয়। কর্মসূচীর অংশ হিসেবে চেহেলগাজী মাজারের শহীদ স্মৃতিসত্মম্ভে পুষ্পসত্মবক অর্পণ করে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, প্রেসক্লাব, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন। দিবসটি পালনে জেলা প্রশাসন, শিশু একাডেমী, দিনাজপুর সরকারী কলেজ, বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলা, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান দিনব্যাপী আলোচনাসভা, দোয়া-খায়ের ও মিলাদ মাহফিল কর্মসূচী পালন করে।