মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ১ ডিসেম্বর ২০১৪, ১৭ অগ্রহায়ন ১৪২১
রিয়াল মাদ্রিদের রেকর্ড টানা ১৬ জয়
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নিজেদের টানা জয়ের নতুন রেকর্ড গড়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। শনিবার স্প্যানিশ লা লিগায় স্বাগতিক মালাগাকে ২-১ গোলে হারিয়ে টানা ১৬তম জয় পেয়েছে গ্যালাক্টিকোরা। এ্যাওয়ে ম্যাচে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নদের হয়ে গোল দুটি করেন ফরাসী স্ট্রাইকার করিম বেনজমা ও ওয়েলস তারকা গ্যারেথ বেল। চলতি মৌসুমে লীগে নিজেদের মাঠে প্রথম হারের স্বাদ পেয়েছে মালাগা। ম্যাচের শেষ দিকে স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ইস্কো দুই হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে বাকি সময় দশজন নিয়ে খেলতে হয় কার্লো আনচেলোত্তির দলকে। সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে আগের রেকর্ড টপকে গেছে রিয়াল। ১৯৬০-৬১ ও ২০১১-১২ মৌসুমে টানা ১৫ ম্যাচ জিতেছিল লা লিগার সর্বাধিক চ্যাম্পিয়নরা। লা লিগায় চলমান মৌসুমে প্রথমবারের মতো গোল পাননি ?সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। তবে বেনজেমা ও বেলের দুটি গোলেই অবদান রেখে এই অতৃপ্তি ঘুচিয়েছেন বর্তমান ফিফা সেরা ফুটবলার।
প্রত্যাশিত জয়ে যথারীতি পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান অক্ষুণœ রেখেছে রিয়াল। ১৩ ম্যাচে সর্বোচ্চ ৩৩ পয়েন্ট ভা-ারে তাদের। রবিবার রাতের ম্যাচের আগে ১২ খেলায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৮ পয়েন্ট বার্সিলোনার। একই অবস্থায় থেকে তৃতীয় স্থানে ছিল বর্তমান শিরোপাধারী এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। প্রায় প্রতিটি ম্যাচেই প্রতিপক্ষের জালে গোলোৎসব করা রিয়াল পরশুও ফেবারিট হিসেবে মাঠে নেমেছিল। আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে থাকা দলটি শুরু থেকেই খেলেছে দাপটের সঙ্গে। কিন্তু প্রতিপক্ষ গোলক্ষকের দৃঢ়তায় দুই গোল নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে কার্লো আনচেলোত্তির দলকে। ম্যাচের ১৮ রোনাল্ডো-বেনজেমার দারুণ সমঝোতায় প্রথম গোল পায় রিয়াল। বামপ্রান্ত দিয়ে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারদের ধোঁকা দিয়ে নিচু ক্রস দেন পর্তুগীজ তারকা। তা থেকে ডান পায়ের শটে গোল করেন বেনজেমা। ৩১ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযেগ পেয়েছিল রিয়াল। কিন্তু ৩০ গজ দূর থেকে রোনাল্ডোর নেয়া ফ্রিকিক কোন রকমে প্রতিহত করেন স্বাগতিক মালাগা গোলরক্ষক। প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে ভাগ্যের জোরে বেঁচে যায় রিয়াল। আর লজ্জা থেকে রক্ষা পান অধিনায়ক ও গোলরক্ষক ইকার ক্যাসিয়াস। পর্তুগীজ মিডফিল্ডার সার্জিও দারদারের ফ্রিকিক রুখতে পুরোপুরি ব্যর্থ হন তিনি। তার পায়ের ফাঁক গলে যাওয়া বলটি পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়।
বিরতির পরও আধিপত্য ধরে রেখে খেলতে থাকে অতিথিরা। ৭৬ মিনিটে ম্যাচের সহজতম সুযোগটি পেয়েছিলেন সি আর সেভেন। কিন্তু ১২ গজ দূর থেকে গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে পারেননি রোনাল্ডো। ৮২ মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর আরেকটি সুযোগ হারায় রিয়াল। গ্যারেথ বেলের হেড ক্রসবারের সামান্য উপর দিয়ে চলে যায়। ৮৩ মিনিটে আর বিফল হননি ওয়েলস তারকা। নিজেদের সীমানা থেকে ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার মার্সেলোর বাড়ানো লম্বা ক্রসে বল রোনাল্ডোর মাথা হয়ে আসে বেলের কাছে। নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন বিশ্বের সবচেয়ে দামী ফুটবলার বেল। ৮৬ মিনিটে ইস্কো লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। ম্যাচের শেষ মিনিটে প্যারাগুয়ের স্ট্রাইকার সান্টাক্রুজ মালাগার হয়ে হেডে গোল করে ব্যবধান করেন ২-১। শেষ পর্যন্ত অবশ্য হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় স্বাগতিকদের।
দলের অপ্রতিরোধ্য ছন্দে বেজায় খুশি রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলোত্তি। ম্যাচ শেষে সব কৃতিত্বই তিনি দেন খেলেয়াড়দের। ইতালিয়ান এই কোচ বলেন, এটি অসাধারণ এক জয়। টানা এত ম্যাচ জেতা সহজ নয়।