The Daily Janakantha
মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ১ ডিসেম্বর ২০১৪, ১৭ অগ্রহায়ন ১৪২১
মাশরাফির ভাবনায় ৫-০
সিরিজের শেষ ম্যাচ আজ
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ হাতে যখন সুযোগ ধরা দিয়েছে ৫-০ করার, তখন কী আর এর বিকল্প ভাবা যায়। বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাও তা ভাবছেন না। আজ সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডের আগে তাই মাশরাফি ৫-০ ব্যবধান ছাড়া আর কিছুই ভাবতে পারছেন না। নিজেই বলেছেন, ‘৪-১ চিন্তাই করছি না।’ ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফির বলা কথাগুলো এখানে তুলে ধরা হলো।
* ৪-১ বেশি খারাপ-
মাশরাফি বিন মর্তুজা ॥ অবশ্যই এটা চিন্তা করছি না। চারটা ম্যাচ জেতার পরে অবশ্যই সব খেলোয়াড়রাই আত্মবিশ্বাসী। ক্রিকেটে এটা হতেই পারে। কিন্তু আমাদের জেতার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত থাকতে হবে। এবং আজকের ম্যাচটা জেতার জন্য যত দূর ভাল খেলা সম্ভব সেটা খেলতে হবে।
* এত পরিবর্তন-
মাশরাফি ॥ পরিবর্তন তো কেবল এখন না সৌম্য সরকারকে নেয়া হয়েছে আগের ম্যাচেও তাইজুল, রাজুকে নেয়া হয়েছে। পারফর্মেন্সের ওপর প্রভাব তখনই পড়বে, যখন দল এভাবে চিন্তা করবে। যাকে আনা হচ্ছে সে সক্ষম। তার ওপর নিশ্চয়ই দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে। তার ওপর যে দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে সেটা করা এবং যারা ভাল করছে তাদের শেষ পর্যন্ত ভাল করা। এগুলো হলে মনে হয় না সমস্যা হবে।
* তামিমের খেলার সম্ভাবনা-
মাশরাফি ॥ মিটিংয়ের আগেই চলে আসছি এখানে সংবাদ সম্মেলনে। দল নিয়ে এখনও কথা হয়নি। ব্যাটিং অর্ডার যেভাবে আছে সেভাবে করবে। যদি বিকল্প খেলোয়াড় আসে, তাহলে সে ওই খেলোয়াড়ের জায়গায় খেলবে। আলাদা পরিবর্তনের কিছু নেই।
* পেসারদের পারফর্মেন্স-
মাশরাফি ॥ প্রথম একটা দুইটা ম্যাচে আসলে পেসারদের একটু সমস্যা হয়েছে। তারপর এখন ভাল করছে। এটা আসলে ব্যাকআপ করার ব্যাপার। আমাদের কন্ডিশনে বা বাংলাদেশে আমরা কখনই পেসারদের ব্যাকআপ করি না। সমর্থক থেকে শুরু করে কেউই না, কখনই না। একজন পেসার তৈরি হওয়া এই ধরনের কন্ডিশনে বা এই ধরনের দেশে তার ওপর কম্বিনেশন করা কঠিন হয়ে যায়। তিন পেসার নিয়ে খেলতে কেউই চায় না। বিশ্বকাপে যে কন্ডিশনে খেলবেন প্রায় ম্যাচেই তিন পেসার দরকার হতে পারে। শেষ দুইটা ম্যাচে পেসাররা খুব ভাল বল করেছে। রুবেল তো খুবই ভাল বল করেছে। আবুলও প্রথম ম্যাচ খেলল সেও খারাপ করেনি। আশা করি সামনে ওরা আরও ভাল করবে।
* ফিটনেস এবং আত্মবিশ্বাস-
মাশরাফি ॥ সত্যি কথা বলতে কি টেস্ট যখন খেলছি না সেহেতু আমার দায়িত্ব ওয়ানডে ও টি২০ ম্যাচে ভালভাবে অংশগ্রহণ করা। যদি পারফর্মেন্স ঠিক থাকে। যেহেতু আমি টেস্ট সার্ভিস দিতে পারছি না, এই চিন্তা করে ওয়ানডে, টি২০ খেলব। সেক্ষেত্রে এসে আমি ভাল অবস্থায় থেকেও বিশ্রাম যদি নেই সেটা অবিচার করা হবে। এটা সততায় থেকে ঠিক সিদ্ধান্ত হবে না। অবশ্যই আমি আত্মবিশ্বাসী। আগের ম্যাচটা খেলা আমার জন্য খুব কঠিন ছিল। কারণ তার আগের দিন একদিনের গ্যাপ ছিল ওটা যখন পেড়েছি তখন আরও আত্মবিশ্বাসী হয়েছি।
* ৫-০ স্বস্তিধায়ক-
মাশরাফি ॥ এই মুহূর্তে এসে আর বলতে হচ্ছে না এক একটা করে এগিয়ে যাব। কারণ আমাদের সামনে একটাই ম্যাচ আছে। ফিনিশ করাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সব সময় শেষটা ভাল হলে পরের ম্যাচ খেলার সময় ওটা মাথায় থাকে শেষ ম্যাচটা আমরা জিতেছি। এটা ধারাবাহিকভাবে করাটাও খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমি অবশ্যই আশা করি খেলোয়াড়রা এটা সিরিয়াসলি নেবে এবং নিচ্ছে। আরও ভাল পারফর্ম করবে যেটা কি না শেষ চার ম্যাচের সমস্যাগুলো ছিল।
* অধিনায়ক হিসেবে হোয়াইওয়াশের স্বাদ-
মাশরাফি ॥ ৫-০ এটা এখন আমার ভেতর ফিল হচ্ছে। এখন আমাদের আরেকটা ম্যাচ আছে জিততে পারলে ৫-০ হবে। এটা খুব ভাল হবে। এর আগে যেটা করতে পারিনি, এখন এটা করে আলাদা শান্তি পাব বিষয়টা আসলে সেটা না। ভাল লাগবে, যে বছরটা গিয়েছে এই বছরটা অনেক জেতা ম্যাচ আমরা হেরে গিয়েছি। এগুলো হলে হয়ত এত সমস্যা আমাদের তৈরি হতো না। যে চাপগুলো আমাদের মাঝখান দিয়ে গিয়েছে এগুলো যেত না। জিম্বাবুইয়ের সঙ্গে খেলার আগে কেউ চিন্তা করেনি আমরা ৫-০ জিতব এবং টেস্ট ৩-০ ব্যবধানে জিতব। এই চিন্তা কারও মাথায় আসেনি। এখন যদি কারও আসে আমি বলব সে সৎ না। ৫-০ যদি ইনশাল্লাহ এখন করতে পারি ছেলেদের কিছুটা ক্রেডিট পাওয়া উচিত।
* বিশ্বকাপেও অধিনায়ক-
মাশরাফি ॥ অধিনায়কত্ব করার জন্য আমি কোন চ্যালেঞ্জই নিচ্ছি না। আমি খেলার জন্য আলাদা চ্যালেঞ্জ নিতে পারি। অধিনায়কত্বের জন্য আলাদা চ্যালেঞ্জ আমি নিতেও চাই না। এই মুহূর্তে একটাই চ্যালেঞ্জ আজকের ম্যাচটা জিততে পারা। কেননা আজকের ম্যাচে আমিই অবধারিতভাবে অধিনায়কত্ব করব। পরবর্তী কোন চ্যালেঞ্জ আমার নাই। যদি বিসিবি কোন সিদ্ধান্ত নেয় ওটাতেই আমি অনেক খুশি থাকব। আমি শুধু খেলোয়াড় হিসেবে খেলব।