মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ১ ডিসেম্বর ২০১৪, ১৭ অগ্রহায়ন ১৪২১
প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগ ॥ ষড়যন্ত্রের অভিযোগ, বিসিবি সভাপতির কাছে চিঠি রূপগঞ্জের
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ চলতি প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট ক্রিকেট লীগে টানা পাঁচ ম্যাচ জেতে শীর্ষে ছিল লিজেনন্ডস অব রূপগঞ্জ। নামে নতুন একটি দল হলেও গত আসরে তারা গাজী ট্যাংক ক্রিকেটার্স নামে খেলে শিরোপা জয়ের গৌরব অর্জন করে। এবারও শুরুটা সেভাবেই করেছিল দলটি। কিন্তু টানা দুই ম্যাচ হেরে গেছে দলটি। বিভিন্ন কৌশলে রূপগঞ্জকে শিরোপা বঞ্চিত করতে ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে দলটি। সে কারণেই মাঠে ও খেলার ওপর খারাপ প্রভাব পড়ছে বলে দাবি করা হয়েছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কিছু ক্ষমতাশালী কর্মকর্তার কারণেই এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। ষড়যন্ত্রের স্বরূপ জানাতে দলটির পক্ষ থেকে চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান বাদল ইতোমধ্যেই বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে চিঠিও দিয়েছেন। সমস্যা তুলে ধরে সে সব সমাধানের জন্য পাপনের কাছে আবেদন জানিয়েছেন তিনি।
দুর্দান্তভাবেই এবার ২০১৪-১৫ মৌসুমের প্রিমিয়ার লীগ শুরু করেছিল রূপগঞ্জ। চ্যাম্পিয়নশিপ ধরে রাখার অভিযানে দারুণ খেলেছে দলটি। তবে হঠাৎ করেই যেন ছন্দপতন ঘটেছে। টানা দুই ম্যাচ হেরেছে দলটি। এর পেছনে ষড়যন্ত্র বড় প্রভাব ফেলেছে বলে অভিযোগ করেছে রূপগঞ্জ কর্তৃপক্ষ। সবিস্তারে সে সব ষড়যন্ত্রের ব্যাখ্যা দিয়ে বিসিবি সভাপতি পাপনকে চিঠিও প্রদান করেছে দলটি। চিঠিতে দলের নাম পরিবর্তনে পাপনের পদক্ষেপ ও সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়েছে। চলতি লীগে যেসব সমস্যার মুখোমুখি হয়েছে দলটি তাঁর প্রথমেই আছে ভেন্যু সংক্রান্ত। চ্যাম্পিয়ন দল হিসেবে মূল ক্রিকেট ভেন্যুতে বেশি ম্যাচ পাওয়ার কথা থাকলেও সেটা পায়নি রূপগঞ্জ। সাত রাউন্ডের খেলা শেষ হয়ে গেছে মাত্র দুটি ম্যাচ মূল ভেন্যু মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলার সুযোগ পেয়েছে রূপগঞ্জ। এমনকি অষ্টম, নবম ও দশম রাউন্ডেরও কোন ম্যাচ মিরপুরে দেয়া হয়নি তাদের। এ জন্য পাপনকে অষ্টম রাউন্ডের ম্যাচ মিরপুরে দেয়ার আবেদন জানিয়েছে ক্লাবটি। আম্পায়ারিং নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়েছে চিঠিতে। আগেও নির্দিষ্ট কিছু আম্পায়ারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে তাঁদের আর ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব না দেয়ার আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু পাপনের কাছে চিঠিতে দাবি করা হয়েছে সেসব আম্পায়ারদেরই রূপগঞ্জের ম্যাচগুলোয় রাখা হয়েছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সুপরিচিত এবং দক্ষ আম্পায়ারদের দিয়ে ম্যাচ পরিচালনা করার সুযোগ দিতে পাপনের কাছে দাবি করেছে দলটি। বিভিন্ন দলের সমর্থকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধেও অভিযোগ এনেছে রূপগঞ্জ। নিজেদের ম্যাচ ভিডিও করা আবেদন করার পরও ক্যামেরাম্যান আনার পর ক্যামেরা কেড়ে নেয়া হয়েছে যার প্রতিকার দাবি করেছে রূপগঞ্জ। তাছাড়া ম্যাচের দিন ক্লাবের শীর্ষ কর্মকর্তাদের বসার জন্য হসপিটালিটি বক্সে কোন আসন দেয়া হয়নি এবং ভেন্যু ম্যানেজারকে তা জানিয়েও কোন প্রতিকার হয়নি বলে দাবি করেছেন বাদল।