মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শুক্রবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০১১, ১৬ পৌষ ১৪১৮
তবু ব্যাটসম্যানদের পক্ষে সাফাই ধোনির
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মেলবোর্ন টেস্টের তৃতীয় দিনেও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে সমানতালে লড়াই করেছিল ভারত। কিন্তু চতুর্থ দিনে আরেকবার তাসের ঘরের মতো ধসে পড়ে ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপ। এতেই একদিন বাকি থাকতে সিরিজের প্রথম টেস্টে ১২২ রানের পরাজয়ের কালিমা যুক্ত হয়েছে মহেন্দ্র সিং ধোনির দলের। এই টেস্টে ভারতের পরাজয়ের কারণ খুঁজতে গেলে অবধারিতভাবে বেরিয়ে আসবে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা। বোলাররা ভাল বল করে জয়ের ভিত গড়ে দিলেও ব্যর্থ হন শচীন, দ্রাবিড়, লক্ষ্মণ, গাম্ভীর, কোহলিরা। কিন্তু ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি তেমনটি মনে করছেন না। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে ধোনি ব্যাটসম্যানদের দায় কৌশলে চেপে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন! এই হারের জন্য তিনি কৃতিত্ব দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার পেসারদের।
অস্টেলিয়াকে দ্বিতীয় ইনিংসে ২৪০ রানে আটকে রেখে ভারতের জয়ের সম্ভাবনা সৃষ্টি করেছিলেন উমেশ যাদব, জহির খানরা। কেননা ভারতের জয়ের টার্গেট ছিল ২৯২ রান। বিশ্বসেরা ব্যাটিং লাইনআপের কাছে এই রান দু'দিনে আশা করতেই পারেন ভক্তরা। কিন্তু তা হয়নি নন্দিত ব্যাটসম্যানদের আরেকবার নিন্দিত ব্যাটিংয়ে। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে ধোনিকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, প্রথম টেস্টের ব্যর্থতার কারণে পুরো সিরিজ নিয়ে তিনি চিন্তিত কি না। এই প্রশ্নটি সুকৌশলে এড়িয়ে যান ভারতীয় অধিনায়ক। বরং এই হারের জন্য তিনি অসি পেসারদের কৃতিত্ব দেন। এ প্রসঙ্গে ধোনি বলেন, আমি ব্যাটসম্যানদের নিয়ে চিন্তিত নই। তারা অনেক অভিজ্ঞ খেলোয়াড়। তারা জানে এখন তাদের কী করতে হবে। অস্ট্রেলিয়ার পেসাররাই মূলত পার্থক্য গড়ে দিয়েছেন। অবশ্য ধোনি স্বীকারও করেন ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা, আমাদের ব্যাটিং উভয় ইনিংসেই ফ্লপ হয়েছে। তারকা ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ হয়েছে। আমাদের আরও রানের প্রয়োজন ছিল। এই ব্যর্থতা থেকে বেরিয়ে আসতে আমাদের আরও সতর্ক হতে হবে। হারলেও বোলারদের প্রশংসা করতে ভুল করেন ধোনি, দ্বিতীয় ইনিংসে আমাদের বোলাররা ভাল বোলিং করে ম্যাচে ফিরিয়েছিলেন। তবে প্রথম ইনিংসে লোয়ার অর্ডার থেকে কিছু রান দরকার ছিল আমাদের। এরপরও অবশ্য আশার কথা শুনিয়েছেন ধোনি, আমি মনে করি, পরের ম্যাচগুলোতে আমাদের পারফরমেন্স অনেক ভাল হবে।
পেসার ত্রয়ীকে স্যালুট ক্লার্কের
মাইকেল ক্লার্কের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল হারানো সাম্রাজ্য ফিরিয়ে আনার মিশনে রয়েছে। এতে সাফল্য-ব্যর্থতা দু'টোই সঙ্গী হচ্ছে। দৰিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে টেস্ট সিরিজ ১-১ ব্যবধানে ড্র করার পর বর্তমানে ভারতের বিরম্নদ্ধে অসিরা খেলছে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। মেলবোর্নে প্রথম টেস্ট জিতে এই মিশনে শুভ সূচনা করেছে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। এই জয়ে পুরো অস্ট্রেলিয়া দলের কৃতিত্ব থাকলেও মূল কৃতিত্ব তিন পেসার জেমস প্যাটিনসন, বিল হিলফেনহাস ও পিটার সিডলের। দুই ইনিংসে ভারতের ২০ উইকেটের ১৯ উইকেটই দখল করেন এই তিন ত্রয়ী। ভারতের প্রথম ইনিংসের সবগুলো অর্থাৎ ১০ উইকেটই কব্জা করেন প্যাটিনসন, হিলফেনহাস ও সিডল। এর মধ্যে হিলফেনহাস ৫, সিডল ৩ ও প্যাটিনসন পেয়েছিলেন ২ উইকেট। গতকাল ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসেও ৯ উইকেট তুলে নেন এ তিন পেসার। এর মধ্যে প্যাটিনসন ৪, সিডল ৩ ও হিলফেনহাস ২ উইকেট লাভ করেন। স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচ শেষে এ তিন ত্রয়ীকে স্যালুট জানিয়েছেন অসি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। তাদের প্রশংসায় ভাসাতে গিয়ে তিনি বলেন, এই জয়ের কৃতিত্ব অনেকটাই তিন পেসারের। তিনজনই অসাধারণ বোলিং করেছে। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সঙ্গে ওদের পেসও ছিল অসাধারণ। এ প্রসঙ্গে ক্লার্ক আরও বলেন, ভারতের ব্যাটিং অনেক শক্তিশালী। তাদের বিরম্নদ্ধে তিন পেসার যেভাবে বল করেছে তা সত্যিই তুলনাহীন। আমি বিশ্বাস করি, এ সাফল্য পরের ম্যাচগুলোতেও অব্যাহত থাকবে।
দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ২৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বসেছিল অস্ট্রেলিয়া। সেখান থেকে শতরানের পার্টনারশিপ গড়ে দলকে রৰা করেছিলেন দুই বর্ষীয়ান তারকা রিকি পন্টিং ও মাইক হাসি।
ম্যাচ শেষে তাই তাদের প্রশংসা করতে ভুল করেননি অসি অধিনায়ক। কেপটাউনে দৰিণ আফ্রিকা ও হোবার্টে নিউজিল্যান্ডের কাছে হারের পর এই জয় দলের আত্মবিশ্বাস বাড়াবে বলেও মনত্মব্য করেছেন ক্লার্ক।