মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শুক্রবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০১১, ১৬ পৌষ ১৪১৮
হেলিকপ্টারে চড়ার অভিজ্ঞতা_ অভিভূত মুশফিক, অলক ও শাহরিয়ার
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রোগ্রামে যাওয়ার আগে হেলিকপ্টারে চড়ে সেই প্রোগ্রামের উদ্দেশে এক গন্তব্য থেকে আরেক গন্তব্যে এসেছেন কোন ক্রিকেটার সেই স্মৃতি বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক ও প্রধান নির্বাচক আকরাম খান কোনভাবেই মনে করতে পারছেন না। এই রকম যে ক্রিকেট বিশ্বেই বিরল। সেই বিরল ঘটনার সাক্ষী হলেন গতকাল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম, ব্যাটসম্যান শাহরিয়ার নাফীস ও অলরাউন্ডার অলক কাপালী। এক সুরে বলেও দিলেন, 'বিস্মিত আমরা।' কথা ছিল ফতুলস্নায় খেলা শেষে মুশফিককে নিয়ে বিকেএসপিতে খেলা শেষে অলক কাপালী ও শাহরিয়ার নাফীসকে হেলিকপ্টারে করে শুরুতে নিয়ে যাওয়া হবে বনানীর আর্মি স্টেডিয়ামে। কিন্তু আর্মি স্টেডিয়ামে একটি প্রোগ্রাম থাকায় সেটি সম্ভব হয়নি। হেলিকপ্টারে এই তিন ক্রিকেটারকে চড়ানোর সিদ্ধান্ত থেকে তাই বলে দূরে সরে যাননি বিপিএলের গবর্নিং বডির কর্মকর্তারা। হেলিকপ্টার আর্মি স্টেডিয়াম না গিয়ে আসল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে। সেখান থেকে পরে এই তিন ক্রিকেটারকে নিয়ে যাওয়া হলো হোটেল রেডিসনে। কেন? সেখানে যে হয়েছে বিপিএলের লোগো উন্মোচন প্রোগ্রাম। আর ছয়জন আইকনের মধ্যে আছেন এই তিন ক্রিকেটার। লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে যেন তাদের অংশগ্রহণ দেরিতে না হয় এ জন্যই এ ব্যবস্থা। খেলা শেষে যে ফতুলস্না থেকে আসতে মুশফিকের অনেক দেরি হয়ে যাবে এবং বিকেএসপি থেকে খেলা শেষে শাহরিয়ার, কাপালীর দ্রুত আশাও অনেক কঠিন হবে। তাই অন্য কোন গতি না পেয়ে এবং বিপিএলের প্রচারণায় আরও সারা ফেলতে এ রকম ব্যবস্থা। প্রথমে বিকেএসপি থেকে কাপালী ও শাহরিয়ারকে নিয়ে পরে ফতুলস্নায় মুশফিককে আনতে যায় হেলিকপ্টার। এরপর সরাসরি মিরপুর স্টেডিয়ামে আসে। সেখান থেকে এই তিনজন বিপিএল কর্মকর্তাদের সঙ্গে গাড়িতে করে রেডিসনে যান। যাওয়ার আগে হেলিকপ্টার থেকে নেমে নিজেদের অনুভূতি জানান মুশফিক, কাপালী ও শাহরিয়ার। মুশফিক বলেন, 'আমি বিস্মিত। আগেরদিনই শুনেছি। কিন্তু চড়ে আসায় অন্যরকম এক অনুভূতি। গর্ববোধও হচ্ছে।' কাপালী বলেন, 'মুশফিকের কথায় আমিও একমত। নিজেকে অনেক ভাগ্যবান মনে হচ্ছে। এমন একটি প্রোগ্রামের সঙ্গে জড়িত হতে পেরেছি এবং এমন সম্মান পাচ্ছি।' শাহরিয়ার জানান, 'আমার অনেক ভাল লাগছে। হেলিকপ্টারে চড়ে কোন প্রোগ্রামে যাচ্ছি। ভাবতেই অবাক লাগছে। গর্ববোধ করছি।' রাজশাহীর মুশফিকুর রহীম, সিলেটের অলক কাপালী ও বরিশালের শাহরিয়ার নাফীসের সঙ্গে আরও তিন ক্রিকেটার আইকন ক্রিকেটারের তালিকায় আছেন। চট্টগ্রামের তামিম ইকবাল, খুলনার শাকিব আল হাসান এবং ঢাকার মোহাম্মদ আশরাফুল। মুশফিক, কাপালী ও শাহরিয়ারের খেলা থাকায় তাদের জন্য এ ব্যবস্থা। তামিম, শাকিব, আশরাফুলের খেলা ছিল না বৃহস্পতিবার। আজ তাদের খেলা। আর তাই তাদের নিজ নিজ গাড়িতে করেই বিপিএলের প্রোগ্রামে যেতে হয়েছে।