মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ২৫ জুলাই ২০১১, ১০ শ্রাবণ ১৪১৮
গার্ডিওলার দৃষ্টিতে ফার্গুসনই সেরা
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বয়সের তুলনায় ব্যবধান অনেক। ফার্গুসনের ৬৯, গার্ডিওলার ৪০। তবে এই মুহূর্তে ফুটবল বিশ্বে আলোচিত দুই কোচ কিন্তু এরাই। জাতীয় দল না হলেও ক্লাব পর্যায়ে এদের খ্যাতি শীর্ষ পর্যায়ে। স্পেনের বার্সিলোনার হয়ে আলোকিত পেপ গার্ডিওলা, আর ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে স্যার আলেঙ্ ফার্গুসন। দলের হয়ে একাধিক শিরোপা জিতে গার্ডিওলা-ফার্গুসন ভিন্নমাত্রায় অবস্থান করছেন। তবে কোচিং ক্যারিয়ারের পরিধি বিচার করলে ফার্গুসনের চেয়ে এগিয়ে গার্ডিওলাই। ২০০৭ সাল থেকে কোচিং ক্যারিয়ার শুরম্ন করা গার্ডিওলা বার্সার হয়ে এ পর্যনত্ম জিতেছেন দুটি ইউরোপ সেরার মুকুটসহ একাধিক শিরোপা।
সেখানে ফার্গুসনের কোচিং ক্যারিয়ার শুরম্ন সেই ১৯৭৪ সাল থেকে। ম্যানইউর হয়ে যাত্রা শুরম্ন ১৯৮৬ থেকে। দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে তিনি আছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। তার শিরোপাও নেহায়েত কম নয়। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তার শিরোপা সংখ্যা ৩৬টি। এর মধ্যে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শিরোপা রয়েছে দুটি। লীগ শিরোপা ১২টি। গত মৌসুমে লিভারপুলকে পেছনে ফেলে সর্বাধিক (১৯) শিরোপা জেতার নতুন রেকর্ড গড়েছে ম্যানইউ এই ফার্গির হাত ধরেই। আর তাই এই মুহূর্তে এক নম্বর কোচ হিসেবে ফার্গুসনকেই রায় দিয়েছেন স্পেনের পেপ গার্ডিওলা। শুধু তাই নয়, ফার্গির সঙ্গে নিজের তুলনাও করেননি তিনি।
পরশু ক্রোয়েশিয়ান ক্লাব হাজডুক স্পিলিটর বিপক্ষে একটি প্রীতি ম্যাচের আগে গার্ডিওলা বলেছেন, 'আমি নিজেকে ফার্গুসনের সঙ্গে তুলনা করি না। চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে আমরা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে হারিয়েছি, তার মানে এই নয় যে, আমি তাঁর চেয়ে ভালো কোচ। ফার্গুসনের সমপর্যায়ে যেতে হলে আমাকে এখনো অনেক কাজ করতে হবে। চ্যাম্পিয়ন্স লীগ জিততে না পারলেও তাঁর মর্যাদা এতটুকুও কমবে না। তিনি গত ২৫ বছর ধরে ম্যানইউয়ের কোচ হিসেবে কাজ করছেন। তাঁর হাত ধরেই অনেক শিরোপা জিতেছে এই ইংলিশ ক্লাবটি। আমার মনে হয়, কোচ হিসেবে যদি কাউকে এক নম্বর বলতে হয়, তাহলে সেটা অবশ্যই এ্যালেঙ্ ফার্গুসন।'
গত মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল বার্সিলোনা ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ওল্ডট্রাফোর্ডে সেই ধুন্ধুমার লড়াইয়ে জিতেছিল গার্ডিওলা বাহিনীই। আর হারের জ্বালা সইতে হয়েছিল ফার্গুসন বাহিনীকে। নতুন মৌসুম শুরম্ন হতে মাসখানেক বাকি। আবারও শুরম্ন হয়ে যাবে জমজমাট ইউরোপিয়ান ফুটবল। প্রত্যেক দেশে ঘরোয়া ফুটবলের পাশাপাশি শুরম্ন হবে ইউরোপের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগও।
নতুন মৌসুমের আগে ফার্গুসনের প্রশংসা দিয়েই যাত্রা শুরম্ন করলেন বার্সা কোচ গার্ডিওলা। এ যেন শিরোপা জেতার আগাম কৌশলও।

বাকু ওপেনে অল রাশিয়ান ফাইনাল
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আজারবাইজানে অনুষ্ঠিতব্য বাকু কাপ ফাইনালে উঠেছেন রাশিয়ার ভেরা ভোনারেভা। বিশ্বের ৩নং টেনিস তারকা সেমি ফাইনালে দাঁড়াতেই দেননি ইউক্রেনের মারিয়া কোরিতসেভাকে। শনিবার তাকে সরাসরি ৬-১, ৬-২ সেটে হারিয়ে ১২তম ডবিস্নউটিএ খেতাব জয়ের পথে এগিয়ে যান ভোনারেভা। আর এ জন্য মাত্র ৬৬ মিনিট সময় ব্যয় করতে হয় তাকে। এর ফলে বাকু কাপ শিরোপা উঠতে যাচ্ছে কোন রাশিয়ানের হাতেই। প্রথম সেমিতে আরেক রাশিয়ান আসরের ৭ম বাছাই কেসেনিয়া পারভাক কাজাখসত্মানের গালিনা ভস্কোবোয়েভাকে ১-৬, ৬-০ ও ৬-২ সেটে হারিয়ে প্রথমবারের মতো কোন ডবিস্নউটিএ ফাইনাল খেলার যোগ্যতা অর্জন করেন। আগামী রবিবার রাতে ফাইনালে মুখোমুখি হবেন এ দু'জন রাশিয়ান।
শনিবার রাতে সেমিতে টুর্নামেন্টের সেরা বাছাই ভোনারেভার কাছে কোন পাত্তাই পাননি কোরিতসেভা। প্রথম ৫ গেমের মধ্যে মাত্র একবার পয়েন্টের মুখ দেখেন তিনি। তবে ভোনারেভার ফোরহ্যান্ড ইরোরের সুবাদে একটি ব্রেক পয়েন্টও জিতে নেন কোরিতসেভা। প্রথম সেটে তার প্রাপ্তি ওইটুকুই।