মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ২৫ জুলাই ২০১১, ১০ শ্রাবণ ১৪১৮
খেলতে পারবেন তামিম তবে...
বাংলাদেশ-জিম্বাবুইয়ে সিরিজ
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সুসংবাদই মিলেছে। তবে সঙ্গে ঝুঁকিও রয়েছে। জিম্বাবুইয়ে সিরিজে টেস্ট খেলতে পারবেন কিনা বাংলাদেশ ওপেনার তামিম ইকবাল, এই শঙ্কা তৈরি হয়েছিল। তা দূর হয়ে গেছে। শঙ্কামুক্ত এখন তামিম। জিম্বাবুইয়ে সিরিজের শুরু থেকেই অংশ নিতে পারবেন বাংলাদেশ ওপেনার। তবে আগামী কয়েকদিন তামিমকে অনেক সতর্ক থাকতে হবে। কারণ ঝুঁকি এখনও পুরোপুরি শেষ হয়ে যায়নি। ঝুঁকি এড়ানোর জন্য তার রানিং বন্ধ থাকবে। জিম্বাবুইয়ে যাওয়ার আগে কিংবা পরে সামান্য কোন অসুবিধা ধরা দিলেই তামিমের টেস্ট খেলা আর হবে না। অর্থাৎ এখনও ঝুঁকিমুক্ত নন বাংলাদেশ ওপেনার।
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ডাক্তার দেবাশীষ চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেন। জানান, 'ওর (তামিম) স্ক্যান করানো হয়েছে। যে স্থানে ইনজুরি আছে সেই কুচকিতে আলট্রাসনোগ্রাফ করানো হয়। যেটা ধরা পড়ে তা হচ্ছে ডান পায়ের কুচকির মাংসপেশীতে টান পড়েছে। যে মাত্রায় টান পড়েছে তাতে দুই থেকে আড়াই সপ্তাহ লাগে ঠিক হতে। সোমবার অথবা মঙ্গলবার তাকে নেটে ব্যাটিং করানোর চেষ্টা করা হবে। কিন্তু আগামী ৫ দিন একেবারেই রানিং ও ফিল্ডিং করতে পারবে না তামিম।'
যেহেতু দুই আড়াই সপ্তাহ লাগবে সেরে উঠতে, তাহলে কী টেস্ট খেলতে পারবেন না তামিম? প্রশ্নটি করতেই দেবাশীষের জবাব, 'তার ইনজুরি হওয়ার পর থেকে ধরা হচ্ছে এই সময়সীমা। সেই হিসেবে আশা করছি সিরিজের মূল ম্যাচগুলো খেলতে পারবে তামিম। এখন টেস্ট ম্যাচ আদৌ খেলতে পারবে কিনা এ নিয়ে এখনই কিছু বলা যাবে না। হাতে কয়েকদিন সময় আছে। বিদেশী ফিজিও (ভিভব সিং) আছেন। তিনি সোমবার তামিমের ইনজুরি স্থান দেখবেন। এরপর বলা যাবে। সময়সীমা যেহেতু শেষ এবং এখন সুস্থ তামিম তাই আশা করা যায় টেস্টও খেলতে পারবে ও। তবে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে পারবে কিনা এ নিশ্চয়তা দেয়া যাচ্ছে না। আগামী কয়েকটা দিন তার জন্য অনেক গুরম্নত্বপূর্ণ। কোন ঝুঁকি নেয়া চলবে না। তা হলে টেস্ট খেলতে পারবে। আর ঝুঁকিতে পড়ে গেলেই সমস্যা।' দেবাশীষের শেষ কথাটিতেই বোঝা যাচ্ছে তামিমকে নিয়ে শঙ্কা না থাকলেও এখনও ঝুঁকিমুক্ত নন। সামনের দিকগুলোই এখন বলে দেবে ইনজুরি পুরোপুরি মুক্ত হয়ে টেস্ট খেলতে পারবেন কিনা তামিম।
ল্যাবএইডে গতকাল রবিবার দুপুরে তামিমের ইনজুরিজনিত অংশে স্ক্যান করানো হয়। ডান পায়ের কুচকিতে ব্যথা পেয়েছিলেন তামিম। ১ জুলাই ডার্বিশায়ারের বিরম্নদ্ধে ম্যাচেই ইনজুরিতে পড়েন। কিন্তু এর পরও খেলা চালিয়ে যান। কাউন্টি ক্রিকেট খেলে আসার পর থেকে ইনজুরির কারণে অনুশীলনেও অংশ নিতে পারেননি। ইনজুরির দিন থেকে সময়সীমা হিসাব করলে তামিমের সুস্থ হয়ে যাওয়ার কথা। দুই সপ্তাহের বেশি সময় অতিক্রমও করেছে। কিন্তু ইনজুরির পরও কাউন্টিতে খেলে যাওয়ায় শঙ্কা করা হচ্ছিল তামিমকে না আবার টেস্ট ম্যাচ খেলা থেকেই বিরত থাকতে হয়। কিন্তু আপাতত তা আর হচ্ছে না। সুস্থ তামিম। তবে আগামী কয়েক দিন ঝুঁকি এড়িয়ে চলতে হবে বাংলাদেশ ওপেনারকে।
জিম্বাবুইয়ের বিরম্নদ্ধে সিরিজে অংশ নিতে বাংলাদেশ দল বুধবার সকালে দেশ ছাড়বে। জিম্বাবুইয়ে যাওয়ার আগ পর্যনত্ম তামিম রানিং, ফিল্ডিং করতে পারবেন না। সেখানে গিয়েই ব্যাটিংয়ের সঙ্গে অন্য কাজও করতে পারবেন। তবে যেহেতু আরও ৫ দিন রানিং, ফিল্ডিং করা থেকে বিরত থাকতে হবে তাই ৩০ জুলাই তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে তামিম অনিশ্চিতই বলা চলে। এই সময়টায় নিজেকে ফিট বানিয়ে ৪ আগস্ট শুরম্ন হওয়া একমাত্র টেস্টে নামবেন তামিম। এমনই আশা সবার। আর ১২, ১৪, ১৬, ১৯ ও ২১ আগস্ট পর পর পাঁচ ওয়ানডেতে তামিম খেলতে পারবেন অনায়াসেই। যদি শেষ পর্যনত্ম শঙ্কামুক্তের সঙ্গে ঝুঁকিমুক্তও থাকেন বাংলাদেশ ওপেনার তামিম।