মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শনিবার, ৯ এপ্রিল ২০১১, ২৬ চৈত্র ১৪১৭
আজ খেলবেন কি মাশরাফি?
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শেষ পর্যন্ত মাশরাফি দলে আছেন। অনেক অনিশ্চয়তা শেষে নিশ্চয়তা মিলল অস্ট্রেলিয়ার বিরম্নদ্ধে মাশরাফি দলেই থাকছেন। কিন্তু 'নড়াইল এঙ্প্রেস' আজ শনিবার প্রথম ওয়ানডেতে একাদশে থাকছেন কিনা সেই নিশ্চয়তা নেই। বাংলাদেশ অধিনায়ক শাকিব যেমন মাশরাফির বিষয়ে বললেন, 'উনি দলের সঙ্গেই আছেন। খেলার জন্য ফিট। উনি দলের সঙ্গেই থাকছেন।' তবে তাকে একাদশে খেলানোর বিষয়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক একটু কূটনৈতিক জবাবেরই স্থান খুঁজে নিলেন, 'এখনও সিদ্ধানত্ম হয়নি। এখনই বলা মুশকিল। উনি যখনই দলে থাকে সব সময়ই ম্যাচ খেলেছেন। বাংলাদেশের জন্য ভাল কন্ট্রিবিউটও করেছেন। যখন দল নিয়ে চিনত্মা করব তখন ভালভাবেই চিনত্মা করব। তবে দল বিশ্বকাপের মতোই হবে। খুব বেশি পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা নেই। একটা পরিবর্তন হতে পারে।' দল বিশ্বকাপের মতোই হবে। শাকিবের এমন কথায় মাশরাফির একাদশে থাকার বিষয়টি অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। আবার একটি পরিবর্তনের সঙ্গে মাশরাফি যখন দলে থাকেন তখন খেলেন শাকিবের এমন আভাস তার একাদশে থাকার বিষয়টিও নিশ্চিত করে। পুরোপুরি ধোঁয়াশার মধ্যে আছে মাশরাফির একাদশে আজ থাকার বিষয়টি। মাশরাফি নিজেও যেমন নিশ্চিত করে কিছুই বলতে পারেননি। শুধু জানালেন, 'হঁ্যা, দলেই আছি। তবে একাদশে থাকতে পারব কিনা জানি না।'
অস্ট্রেলিয়ার জন্য ঘোষিত ১৪ সদস্যের দলে থাকা ক্রিকেটারদের মধ্যে দুই ওপেনার তামিম ইকবাল, ইমরম্নল কায়েসের একাদশে থাকা নিশ্চিতই। বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়েছেন জুনায়েদ সিদ্দিকী। তাই তিন নম্বর পজিশনে শাহরিয়ার নাফীসেরও খেলা নিশ্চিত। ব্যাটিংয়ে মুশফিকুর রহীম, শাকিব আল হাসান পরের দু'টি অবস্থান দখল করে নেবেন। এবার ষষ্ঠ স্থানে থাকছেন কে? এ নিয়েও আলোচনার জন্ম দিয়েছে। অলক কাপালী এবার যুক্ত হয়েছেন দলে। আছেন রকিবুল হাসানও। বিসিবি একাদশের হয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরম্নদ্ধে কাপালী রানের খাতা খোলার আগে প্যাভিলিয়নে ফিরলেও রকিবুল অর্ধশতক করেছেন। এই দু'জনের যে কোন একজন এই স্থানে থাকছেন। এমনও হতে পারে যে কোন একজনকে ওপরে উঠিয়ে খেলানো হচ্ছে। জানা গেল রকিবুলকেই রাখার আলোচনা চলছে। সপ্তমে মাহমুদুলস্নাহ রিয়াদই থাকছেন। স্পেশালিস্ট স্পিনার আবদুর রাজ্জাক ও পেসার শফিউল ইসলামও চূড়ানত্ম। বাকি থাকে দু'টি স্থান। দুই পেসার নিয়ে খেলার চিনত্মাই করা হচ্ছে। যদি মাশরাফি দলে যুক্ত হন। তাহলে বাদ পড়বেন রম্নবেল হোসেন। অর্থাৎ এই দুই পেসারের মধ্যে একজন খেলবেন। শেষ পর্যনত্ম জানা মাশরাফিকেই রাখা হচ্ছে। আর একটি স্থান স্পিনার কাম ব্যাটসম্যান দিয়ে পূরণ করতে হচ্ছে। সেই খানে আবার আশা রয়েছে কাপালীর। সোহ্রাওয়ার্দর্ী শুভর কথাও উঠছে। তবে পাওয়ার পেস্নতে কাপালীর কার্যকারিতার আশা করা হচ্ছে। সঙ্গে স্পিনটাও ব্যতিক্রম। লেগ ব্রেকার হিসেবেও কাপালীই এগিয়ে। এই দু'জনকে পেছনে ফেলে জাতীয় দলের নতুন মুখ শুভাগত হোমও রয়েছেন। তাকেও চিনত্মার বাইরে রাখা হচ্ছে না। এমনও হতে পারে আজই অভিষেক হয়ে যেতে পারে শুভাগতর। শাকিব ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে বললেন, 'দল এখনও চূড়ানত্ম নয়।' বিশ্বকাপে যেমনটি প্রতি ম্যাচের আগেই হয়েছে। খেলার আগের দিন জানা গেছে এক, শেষ মুহূর্তে গিয়ে খেলা শুরম্নর আগে হয়েছে আরেক। এবারও বিষয়টি ধোঁয়াশার মধ্যেই রেখে দিয়েছেন শাকিব। একাদশে একটি পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছেন। আর সেই স্থানটি রম্নবেলের স্থলে মাশরাফিই হওয়ার সম্ভাবনা জোরালো। শেষ পর্যনত্ম কী হয় সেটিই দেখার। তবে মাশরাফি শেষ পর্যনত্ম খেলবেন কিনা? এই প্রশ্ন সারাদিন ঘুরপাক খেল।