মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৩, ৬ আশ্বিন ১৪২০
বাবার মুক্তিযুদ্ধ
রণজিৎ সরকার
খুব ভোরে রানার ঘুম ভাঙল। মা কান্না করছে। পাশে বাবা নেই। রানা অবাক। মা কেন কাঁদছে। হাত দিয়ে চোখ নাড়তে নাড়তে রানা বলল, মা কাঁদছ কেন? মা উত্তর দেয় না। রানা আবারও বলল, মা কাঁদছ কেন,বাবা কোথায়? মা তবু উত্তর দেয় না। কেঁদেই চলছে। শাড়ির আঁচলে হাতে নিয়ে মায়ের চোখের জল মুছে দিতে দিতে রানা বলল, মা, বাবা কি তোমার সঙ্গে রাগ করে কোথাও চলে গেছে? রানাকে জড়িয়ে ধরে চিৎকার দিয়ে মা বলল, তোমার বাবা মুক্তিযুদ্ধ করতে গেছে। সেই জন্য তুমি কাঁদছ? কাঁদার কি হলো? তোমার বাবা জীবিত অবস্থায় যদি ফিরে না আসে! যুদ্ধে গেলে কি মানুষ . . .
ধারাবাহিক উপন্যাস ॥ স্বপ্নডানায় ওড়াউড়ি
মোহিত কামাল
(পূর্ব প্রকাশের পর) ‘তাই বলে জ্যান্ত টিকটিকিটি খেয়ে ফেলবে?’ ‘হ্যাঁ, জ্যান্ত টিকটিকিই পছন্দ আমার।’ ‘না। ঠিক করোনি। অন্যায় করেছ তুমি।’ ‘ভুল বুঝছ তুমি। আমার চাওয়া-পাওয়ার বিষয়ে ধারণা নেই তোমার। কোনো বিষয়ে জানা না থাকলে, জেনে মতামত দিতে হয়। না জেনে মত প্রকাশ করলে ভুল হয়। ভুল হলে দুজনের সম্পর্ক ভালো হয় না।’ ‘সম্পর্ক ভালো হয় না’Ñকথাটা শোনা মাত্র নরম হয়ে গেল ফুয়াদের মন। কোনোমতেই সম্পর্ক খারাপ করতে চায় না সে। ইলেকটার্চ প্যারটের সঙ্গে . . .
ছ বি র গ ল্প
মোটরসাইকেল কি চিংড়ি দিয়ে তৈরি করা সম্ভব? উপাদেয় খাবার হিসেবে চিংড়ির পরিচিতি বিশ্বজুড়ে। এবার সে চিংড়ি দিয়ে রীতিমতো শিল্পকর্ম তৈরি করে ফেললেন তাইওয়ানের এক শেফ। একটি চিংড়ির খোলসের কোনো অংশ না ফেলে তা দিয়ে তিনি তৈরি করলেন ক্ষুদ্রাকৃতির মোটরসাইকেল। হুয়াং মিংবো নামের ওই শেফ চিংড়ির খোলস দিয়ে বানানো এই শিল্পকর্ম প্রদর্শন করলেন চীনের ফুজিয়ান প্রদেশে ফুড আর্ট সেমিনারে। তার এই ক্ষুদ্রাকৃতির শিল্পকর্ম সেমিনারে আগত অতিথিদের দৃষ্টি কেড়ে নেয় খুব সহজেই। সূত্র : ডেইলি মেইল . . .
ভোলাবাবুর ছড়া
বেবী মওদুদ
এক ঢং ঢং করে যেই পড়ে গেল ঘণ্টা আনন্দে ভরে ওঠে খুশি হয় মনটা। ভোলাবাবু ইশকুল রোজ যেতে চায় না কী যে সব লেখাপড়া বুঝতেই পায় না। তারচেয়ে ভালোলাগে পাখি হয়ে উড়তে প্রজাপতি পাখা মেলে ফুলে ফুলে ঘুরতে। ভোলাবাবু গান গায় যদি নামে বিষটি শুনে যেন মনে হয় দোয়েলের শিসটি। দুই. কাগজ ছিঁড়ে খেলা করে আপন মনে হাসে রসগোল্লা খেতে খেতে আনন্দেতে ভাসে। সবই বলে বোকা হাবা বুদ্ধি মোটে নাই সারাটা দিন ঘরে বসে বলবে তাই তাই। মায়ের ডাকে ঘুম ভাঙ্গে বাবার কোলে চড়ে হাসবে শুধু মিটি মিটি মাথাটা . . .