মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শুক্রবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১০, ৩ পৌষ ১৪১৭
রংপুরে নীল চাষ
চাষীরা রাসায়নিক সারের বিকল্প হিসেবেও নিজ উদ্যোগে নীল চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছে
ইংরেজ শাসনকালে নির্যাতন করে নীল চাষে বাধ্য করা হতো এ অঞ্চলের চাষীদের। তাদের ওপর নীলকরদের সেই অত্যাচারের কাহিনী এদেশের প্রায় সকলের জানা। আজ এই স্বাধীন দেশে নীল চাষের জন্য চাষীর ওপর কোন জুলুম নেই, নেই অত্যাচারী নীলকর সাহেব। কিন্তু রংপুরে এখনও হচ্ছে নীলচাষ, আছে নিখিলের মতো নীল চাষী। নীল লাভজনক পণ্য হওয়ায় দিনে দিনে এর চাষ বাড়ছে। এ এলাকার অনেক চাষী এখন নীলচাষ করে লাভবান হচ্ছেন। রংপুর সদর উপজেলার রাজেন্দ্রপুর ও গঙ্গাচড়া উপজেলার পাগলাপীর হরকলী ঠাকুরপাড়া এলাকায় প্রায় ৩ হাজার কৃষক ৯শ' একর জমিতে নীলচাষ . . .
মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের এখন রিক্সাচালক, দিন কাটছে নিদারুণ কষ্টে
নিদারুণ কষ্টের মধ্যে দিন কাটছে মেহেরপুরের মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের। ক্ষিপ্র গতিতে পাকবাহিনীর বিরম্নদ্ধে যুদ্ধ করার কারণে তাঁকে পাগলা তাহের নামে ডাকা হতো। সেই পাগলা তাহের এখন অসহায়। মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই তাঁর। রঘুনাথপুর আশ্রয়ণ প্রকল্পের টিন শেডের ছোট্ট একটি কক্ষে এক সন্তান আর স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করছেন তিনি। বয়সের ভারে দিন দিন অক্ষম হয়ে পড়ায় এখন আর ঠিকমতো খাটতে পারেন না। যে হাতে এক সময় অস্ত্র ধরেছিলেন সে হাত এখন রিক্সার হ্যান্ডেল ধরেছে দু'বেলা দু-মুঠো ভাত যোগাতে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ডাকে দেশকে . . .
হারিয়ে যাচ্ছে মলকা বানুর দীঘি ও মসজিদ
চট্টগ্রামের বাঁশখালীর শত বছরের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সাক্ষী মলকা বানু মসজিদ ও দীঘি অযত্ন-অবহেলায় পড়ে রয়েছে । কেউই সংস্কারে এগিয়ে না আসায় ইতিহাস ও ঐতিহ্যের পাতা থেকে ঝরে যাচ্ছে এই প্রাচীন মসজিদ ও দীঘিটি। মলকা বানু-মনু মিয়ার প্রেম উপাখ্যান ইতোমধ্যে লোকগাথা, যাত্রাপালা, মঞ্চনাটক ও পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মিত হয়েছে। তাদের প্রেমকাহিনী নিয়ে করা এসব যাত্রাপালা, নাটক, সিনেমা দেশের সর্বত্র আলোড়ন সৃষ্টি করেছিল। তাদের এই প্রেম উপাখ্যান অনেকের কাছে কল্পিতকাহিনী বা রূপকথা মনে হলেও বাসত্মবে কিন্তু তা নয়। মলকা বানু-মনু . . .
কালের সাক্ষী কালে খাঁ মসজিদ অরক্ষিত
পটুয়াখালী জেলা সদর থেকে প্রায় ৮ কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব দিকে এক অখ্যাত পল্লীর নাম শ্রীরামপুর। দক্ষিণাঞ্চলের ঐতিহাসিক স্মৃতিবিজড়িত কালের সাৰী শ্রীরামপুর মিঞা বাড়ির কালে খাঁ মসজিদ। প্রায় সাড়ে ৪শ' বছর আগে নির্মিত এ ঐতিহাসিক নিদর্শন সাক্ষ্য বহন করছে এতদ্বাঞ্চলে ইসলাম প্রচারের ইতিহাস। ঐতিহাসিকদের মতে, ১৫৯০ সালে চন্দ্রদ্বীপের রাজা ছিলেন কন্দর্প নারায়ণ। এ সময় যশোরের রাজা প্রতাপাদিত্য বৈবাহিককে পতর্ুগিজ দসু্য দমনে চন্দ্রদ্বীপের রাজধানী কচুয়াতে এলেন। সঙ্গে এলেন তার প্রধান সেনাপতি ভবানন্দ মজুমদারে পুত্র . . .
জীবনযুদ্ধে পরাজিত মুক্তিযোদ্ধা আজিজ
অস্ত্রহাতে নয় মাস যুদ্ধ করে যে বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিনিয়ে এনেছিলেন সবুজে রক্তে লাল বিজয় পতাকা। আজ সেই বীর সৈনিক আজিজ হাওলাদার নিজেই জীবনযুদ্ধে পরাজিত। গত বছরের ৭ মে স্টক করে তার ডানপাশ অবশ হয়ে গেছে। বর্তমানে অর্থাভাবে বিনা চিকিৎসায় মুক্তিযোদ্ধা আজিজ হাওলাদার রয়েছেন শয্যাশায়ী। তাঁর চিকিৎসকরা বলেছেন দ্রুত তাঁকে উন্নত চিকিৎসা করানো হলে আরোগ্য লাভ করা সম্ভব কিন্তু অসহায় পরিবারটির পক্ষে বর্তমানে যেখানে ওষুধ ক্রয়ের সামর্থ্য নেই সেখানে উন্নত চিকিৎসার কথা ভাবাই দুঃসহ। তাই অসহায় পরিবারটি মুক্তিযাদ্ধা আজিজ হাওলাদারের . . .