মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
রবিবার, ৫ জুন ২০১১, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪১৮
আগামী বাজেট কেমন হওয়া উচিত?
ড. মুহম্মদ মাহবুব আলী
আগামী ২০১১-১২ অর্থবছরের বাজেট নিয়ে জনগণের চিন্তা-ভাবনার শেষ নেই। বর্তমান সরকারের আমলে এটি তৃতীয় বাজেট। বাজেটে মূলত রাজস্ব আয় এবং সরকারী ব্যয়ের একটি রূপরেখা থাকে। পাশাপাশি বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীর দিকনির্দেশনা থাকে। এবার সরকারের একটি মহল তৎপর ছিল রাজস্ব আয় এবং সরকারী ব্যয়ের পাশাপাশি বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীকে একই সূত্রে গ্রথিত করার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর তা সম্ভব হয়নি। এদিকে আগামী বাজেটে নারীর ক্ষমতায়নের ওপর গুরুত্ব আরোপ করা দরকার। যোগ্যতার ভিত্তিতে যাতে নারীরা চাকরি পান সেজন্য বিশেষ উদ্যোগ নিতে হবে। . . .
বাজেটের আগের বাজেট
শুক্রবার দিনটিতে অফিস না থাকায় অন্য অনেকের মতো মামুন সাহেবও এই দিনটিতেই বাজার করেন নিয়মিত। প্রতি শুক্রবারের মতো জুন মাসের প্রথম শুক্রবারে সকাল সকাল বাজারে গিয়ে কিছুটা দ্বিধা দ্বন্দ্বে পড়েন তিনি। নিত্যপণ্য কাঁচামাল সব কিছুরই দামটা যেন কিছুটা অস্বাভাবিক। চার শ' টাকায় যে ইলিশ গত সপ্তাহে কিনেছেন সেটা ছয় শ' টাকা। অথচ সে সময়ের চেয়ে ইলিশের দাম এখন কম হওয়ার কথা। একইভাবে মোমবাতি, ঘি, চিনি এমনকি বাথরুমের নষ্ট কলটা বদলানোর জন্য একটা কল কিনতে গিয়েও তিনি একই সমস্যায় পড়েন। কারণ জানতে চাইলে সবার একই কথা . . .
বিশ্ব শ্রমবাজারে দক্ষ শ্রমিক
আশানুরূপভাবে বাড়ছে বাংলাদেশের দক্ষ ও পেশাজীবী জনশক্তি রফতানি। জনশক্তি রফতানি বাড়লেও কমে গেছে নিয়োগকারী দেশের সংখ্যা। গত বছরের তুলনায় চলতি বছরের প্রথম ৪ মাসে দক্ষ জনশক্তি রফতানি বেড়েছে ১৪ দশমিক ২০ শতাংশ। গত বছর এ সময়ের মধ্যে জনশক্তি রফতানি হয়েছিল ১ লাখ ৩৪ হাজার ৭৮৭ জন। আর এ বছরের প্রথম ৪ মাসে জনশক্তি রফতানি হয়েছে ১ লাখ ৫৩ হাজার ৯৩৩ জন। সমপ্রতি মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের অনেক দেশেই রাজনৈতিক অস্থিরতায় বাংলাদেশের জনশক্তি রফতানিতে ধস নেমে আসার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছিল। দক্ষ জনশক্তি রফতানির পরিমাণ বাড়ায় সে ধাক্কা . . .
মাংস ও ডিম উৎপাদনের নতুন প্রযুক্তি
আমরা সবাই অর্গানিক শাকসবজি এবং ফলমূলের কথা শুনেছি, কিন্তু আর কিছু দিনের মধ্যে আমরা অর্গানিক মাংস এবং ডিম কিনতে পারব, যা সরাসরি আমাদের দেশে উৎপন্ন হবে। হঁযা, বাংলাদেশ একটি অনুন্নত দেশ, আমাদের দেশের জন্য এটি যুগোপযোগী এবং স্বাস্থ্যসম্মত, যা হবে এ্যান্টিবায়োটিক ছাড়াই তৈরি। ব্রয়লার এবং লেয়ারে অনিয়ন্ত্রিতভাবে এ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করা হয় এবং এর অপসারণ সময় শেষ হওয়ার আগেই বাজারে বিক্রি করা হয়। এসব মাংস এবং ডিম সারা দেশের মানুষ খাচ্ছে, দীর্ঘদিন এ্যান্টিবায়োটিকযুক্ত মাংস এবং ডিম খাওয়ার ফলে তৈরি হবে 'উৎঁম . . .