মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৩, ২৭ ভাদ্র ১৪২০
মালিতে নতুন প্রেসিডেন্ট শান্তি কি আসবে!
এনামুল হক
মালিতে দেড় বছরের সংঘর্ষের পর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইব্রাহিম বুবাকার কিতা সাবেক অর্থমন্ত্রী সুমালিয়া সিসেকে পরাজিত করে দেশের নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন। সাংবিধানিক আদালত গত ১১ আগস্ট অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় পর্বের নির্বাচনের ফলাফলকে নিশ্চিত করে জানিয়েছে, বুবাকার কিতা নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করেছেন। তিনি ৭৭.৬ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। কিতাকে এখন মালিকে নতুন করে ঐক্যবদ্ধ ও পুনর্গঠিত করার কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। মালির ইতিহাসে গত দেড় বছর ছিল অত্যন্ত ঘটনাবহুল। এ সময় সামরিক অভ্যুত্থান . . .
অনিশ্চিত গন্তব্যে সিরিয়া
রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারকে ইস্যু করে যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ায় সীমিত পরিসরে হামলা চালাতে চায়। তবে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এবার কেউ নেই। পার্লামেন্টের বিরোধিতার মুখে ব্রিটেন আগেই পিঠটান দিয়েছে। এমনকি মার্কিন কংগ্রেসের ১১৬ জন সদস্য কংগ্রেসের সমর্থন ছাড়া এ যুদ্ধে না যাওয়ার অনুরোধ জানিয়ে প্রেসিডেন্ট ওবামাকে চিঠি দিয়েছেন। সোজা কথায় আবার একটা যুদ্ধে জড়ানো আমেরিকার জন্য হাওয়া অনুকূলে নয়। কিন্তু তারপরও সাম্রাজ্যবাদী অর্থনীতির বাধ্যবাধকতার কারণে আমেরিকা এ যুদ্ধে যেতে পারে। কিন্তু এর সম্ভাব্য পরিণতি কি দাঁড়াবে? সেই . . .
ক্ষমতার জটিলতায় দক্ষিণ সুদান
দক্ষিণ সুদানের প্রেসিডেন্ট সালভা কির তাঁর সরকারের এক বড় ধরনের রদবদল ঘটিয়েছেন। এভাবে রাষ্ট্রক্ষমতার ওপর তাঁর বজ্রমুষ্টি প্রতিষ্ঠার প্রয়াস পেয়েছেন আবার একই সঙ্গে সবকিছু খোয়ানোর ঝুঁকিও নিয়েছেন। নয়া সরকারের গঠনবিন্যাস থেকে দেখা যায় যে, প্রেসিডেন্ট কির বিভিন্ন উপজাতীয় গোষ্ঠীর সমর্থন আদায়, তাঁর সরকারের প্রতি আনুগত্য সুনিশ্চিতকরণ এবং উত্তর সুদানের সঙ্গে সমাঝোতার পথ সুগম করতে বদ্ধপরিকর। তবে এর আগে তাঁর সবচেয়ে শক্তিশালী দুই প্রতিদ্বন্দ্বীকে বরখাস্ত করার ঘটনাটি আগামীতে তাঁর জন্য দুঃস্বপ্ন হয়ে দাঁড়াতে পারে। . . .
পাক-আফগান অমীমাংসিত সমস্যা
আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই দু’দিনের সফরে গত ২৬ আগস্ট ইসলামাবাদ পৌঁছান। পরে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের অনুরোধে তিনি দ্বিপক্ষীয় আলোচনার জন্য সফরের মেয়াদ আরও একদিন বাড়ান। এই সফর সুনির্দিষ্ট কি ফল বয়ে এনেছে পর্যবেক্ষকরা এখনও তা বিশ্লেষণ করে দেখছেন। তবে দু’পক্ষের আশা ও প্রত্যাশা আগের যে কোন সময়ের চেয়ে বেশি বলে লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এর একটা কারণ হতে পারে যে, এই সফর এমন এক সময় অনুষ্ঠিত হয়েছে যখন আন্তর্জাতিক শক্তিগুলো আফগানিস্তান ত্যাগের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং পাকিস্তানেও . . .
রাজনীতি ও বৃহৎ ব্যবসার ঘনিষ্ঠ আঁতাত
রাজনীতি ও বৃহৎ ব্যবসার মধ্যে সর্বদাই একটা অশুভ আঁতাত কাজ করে। এরা পরস্পরের পরিপূরক। সব দেশে ও সব সমাজে এই আঁতাতটা কম বেশি লক্ষ্য করা যায়। বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্রের দেশ ভারতেও এই দুইয়ের মধ্যে গভীর মাখামাখি রয়েছে। এই মাখামাখি অবশ্য কখনই প্রকাশ্য রূপ ধারণ করতে দেখা যায় না। এদের সম্পর্কটা পারস্পরিক আদান-প্রদানের। ভারতে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ব্যক্তিত্ব প্রধানমন্ত্রীর পদ অলঙ্কৃত করেছেন। এক তথ্যানুসন্ধানে দেখা যায় প্রধানমন্ত্রীদের দৈনন্দিন শিডিউলের মধ্যে কিছু কিছু সøট থাকে যেখানে কোন নাম নেই। শুধু . . .