মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৩, ২৯ কার্তিক ১৪২০
কোন্ পথে ইরাক
এনামুল হক
ইরাকের প্রধানমন্ত্রী নূর আল মালিকী তাঁর দেশে আগের চেয়ে অধিকতর তৎপরতায় লিপ্ত আল কায়েদার সন্ত্রাস মোকাবিলায় মার্কিন সামরিক সাহায্য চেয়েছেন। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র তেমন কোন সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেয়নি। মালিকী গত ১ নবেম্বর ওয়াশিংটনে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন। শেষ মার্কিন সৈন্যটি ইরাক ছেড়ে চলে যাওয়ার প্রায় দু’বছর পর দুজনের মধ্যে এটাই প্রথম বৈঠক। শোনা যায় মালিকী যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে এ্যাপাচি হেলিকপ্টার ও অন্যান্য অস্ত্র কিনতে চেয়েছেন। কিন্ত যুক্তরাষ্ট্র পরিষ্কার কিছু বলেনি। . . .
টোকিও-সিউল বিপজ্জনক অচলাবস্থা
জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যেকার সম্পর্কের আরেক দফা অবনতি হয়েছে। এতে ইন্ধন হিসেবে কাজ করেছে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন ইতিহাসের বিভিন্ন ঘটনা এবং ১৯১০ থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত কোরিয়ার ওপর জাপানের নিষ্ঠুর ঔপনিবেশিক শাসনের দুঃসহ স্মৃতি। ২০১২ সালের মে থেকে এ পর্যন্ত দুদেশের নেতাদের মধ্য কোন বৈঠক হয়নি। সমীক্ষায় দেখা গেছে, তিনগুণ বেশি কোরীয় নাগরিক এখন জাপানের তুলনায় চীনকেই বেশি পছন্দ করে। ভবিষ্যতে কোন যুদ্ধে দক্ষিণ কোরিয়াকে সাহায্য দেয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে তার জাপানের ঘাঁটিগুলোকে ব্যবহারের অবাধ সুযোগ দেয়া হবে . . .
গোয়েন্দা নজরদারি জার্মানিও কম যায় না
সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় গোয়েন্দা নিরাপত্তা সংস্থাকে (এনএসএ) নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে গোয়েন্দা নজরদারী করার জন্য। তাদের সেই নজরদারীতে কোন বাছবিচার নেই। এমনকি ইউরোপীয় দেশগুলোর নাগরিকরাও সেই নজরদারী থেকে রেহাই পাচ্ছে না। জার্মানিসহ ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাজনীতিকরা যুক্তরাষ্ট্রের এই নজরদারীর অহরহ সমালোচনা করে চলেছেন। অথচ তাদের দেশগুলোও এ ব্যাপারে ধোয়া তুলসী পাতা নয়। জার্মানির কথাই ধরা যাক। জার্মান গোয়েন্দা সংস্থা বুন্দেসনাক্রিশ্চটেনডাইনেস্টি। (বিএনডি) আর যুক্তরাষ্ট্রের এনএসএ’র মধ্যে কার্যত কোন . . .
দুঃস্বপ্নের মুখে সিরীয় শরণার্থীরা
সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্রসংক্রান্ত সাম্প্রতিক চুক্তিকে বিশ্ববাসী শান্তির পথে পদক্ষেদ বলে যতই অভিনন্দন জানাক না কেন, সিরিয়ার জনগণের তাতে স্বস্তিবোধ করার কোন কারণ নেই। ভিটামাটি থেকে উচ্ছেদ হওয়া লাখ লাখ সিরীয়র কাছে এর চেয়ে অনেক বড় সমস্যা রয়ে গেছে। অন্ন, আশ্রয়, পানি ও চিকিৎসা- এগুলো তাদের কাছে জীবন মরণের প্রশ্ন। শীতের আগমনী বার্তা শোনার সঙ্গে সঙ্গে বেঁচে থাকার চ্যালেঞ্জগুলো তাদের সামনে আরও অনেক কঠিন রূপ নিয়ে হাজির হয়েছে। প্রতিবেশী দেশগুলোতে আশ্রয় নেয়া সিরীয় শরণার্থীর সংখ্যা প্রায় ২২ লাখ। এর মধ্যে ১০ . . .
ইরানের উদ্দেশ্যমূলক পরমাণু কর্মসূচী
আন্তর্জাতিক রাজনীতির ক্ষেত্রে সম্প্রতি অন্যতম আলোচিত বিষয় হলো ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচী। ইরানের দাবি তার এই কর্মসূচীর উদ্দেশ্য শান্তিপূর্ণ। পাশ্চাত্য তা মানতে নারাজ। তারা ইরানের ওপর একের পর এক কঠোর থেকে কঠোরতর আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে এই আশঙ্কায় যে ইরানের পরমাণু কর্মসূচীর উদ্দেশ্য আণবিক বোমা তৈরি। সত্যিই যদি একদিন ইরান এই আণবিক অস্ত্রের অধিকারী হয় তাহলে সেই অস্ত্র দিয়ে কি করবে প্রতিবেশী আরবদের ও ইসরাইলের বিরুদ্ধে ব্যবহার করতে? এতে কি ইরানের শাসকগোষ্ঠী লাভবান হবে, নাকি তারা নিজেদের আরও সমস্যা . . .